ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ঐতিহাসিক রায়ে প্রত্যাশা অনেক

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:০৭ ২৫ অক্টোবর ২০১৯

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলায় সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাসহ ১৬ আসামিরই মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আসামিদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। যে টাকা আদায় করে নুসরাতের পরিবারকে দেয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া রায়ে চার পুলিশের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মামলায় সকল আসামির ফাঁসির রায় ঘোষণায় নুসরাতের পরিবারের পক্ষ থেকে সন্তুষ্টি প্রকাশ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন দেশবাসী। দেশের সব পেশার মানুষ এই রায়কে ঐতিহাসিক বলে আখ্যা দিয়েছেন। এতো অল্প সময়ে অর্থাৎ মাত্র ৬১ কার্যদিবসে মামলা নিষ্পত্তির ঘটনা এই প্রথম। যা দেশের ইতিহাসে এক অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকলো। এর আগে এতো কম সময়ে কোনো মামলার রায় প্রদান করা হয়নি। এমনকি, দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালেও সম্ভব হয়নি।

এ ঐতিহাসিক কাজটির পেছনে যার অবদান, সবার আগে কৃতজ্ঞতার সঙ্গে তার নামটি প্রকাশ করা জরুরী। কারণ তার নির্দেশেই প্রশাসনের প্রচেষ্টায় এবং আদালতের গুরুত্বের তালিকায় থাকায় মামলাটি এত দ্রুত নিষ্পত্তির দিকে এগিয়েছে। তিনি আর কেউ নন, দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্মরণকালে দেশে ঘটে যাওয়া আলোচিত অপরাধকর্মগুলোর মধ্যে এই ঘটনাটির বিচার এতো দ্রুত ও প্রত্যাশিতভাবে হওয়ায় দেশবাসী- রাষ্ট্র, দেশপ্রধান ও আদালতের উপর পূর্ণ আস্থা প্রকাশ করেছেন। তারা বলছেন- রাষ্ট্র যদি চায় তবে এভাবে সকল অপরাধকর্মের সুষ্ঠু বিচার দ্রুততার সঙ্গেই মিটিয়ে ফেলা সম্ভব। আর এই সংস্কৃতি যদি প্রতিষ্ঠিত করা যায় তবে দেশে দূর্নীতি, অপরাধ কর্ম অনেকাংশে কমে আসবে। যা সর্বজনের মত। উন্নয়ের পথে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে মাথা তুলে দাঁড়াতে হলে এখন সর্বাগ্রে এটিই করতে হবে। সময় এসেছে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার।

দেশের সকল মানুষ কর্মঠ হবে, দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত হয়ে সৎভাবে কাজ করবে এটি এখন সময়ের দাবি। এক সময়ের দারিদ্র সীমার নিচে অবস্থান করা বাংলাদেশের প্রতিটি সেক্টরে যে দূর্নীতির বিষবৃক্ষ ঢুকে পড়েছে তা উপড়ে ফেলার এখনই সময়। যদিও রাষ্ট্রপ্রধান বিষয়টি উপলব্ধি করতে পেরেছেন এবং তিনি মাদক, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস এবং দূর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছেন। যা সর্ব মহলে প্রশংসিত হচ্ছে। দেশের মানুষের প্রত্যাশা এ ধারা অব্যাহত থাকবে এবং দল-মত নির্বিশেষে সমান দৃষ্টিতে অন্যায়ের বিরুদ্ধে কাজ করবে সরকার।

যেমনিভাবে নুসরাত হত্যার বিচারের রায় জাতীকে আশা দেখিয়েছে, প্রত্যেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন, ঠিক একইভাবে সব অন্যায়, অপকর্ম ধাপে ধাপে দূর করার প্রচেষ্টা থাকুক এই প্রত্যাশা।

এসএ/

 

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি