ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৮ ৪:১৪:৪২

Ekushey Television Ltd.

ঠিক সময়ে কাজ করতে না পারলেই খাওয়ানো হয় মূত্র-কীটপতঙ্গ! 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:৩৯ পিএম, ৮ নভেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৬:২৮ পিএম, ৮ নভেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার

কাজের ক্ষেত্রে যদি দেরি হয় বা সময়ের কাজ সঠিক সময়ে শেষ করতে না পারলেই জোর করে মূত্র পান করানো হয়, খাওয়ানো হয় পোকামাকড়। এ ছাড়া বেতও মারা হয় শ্রমিকদের। একটি চিনা কোম্পানিতে শ্রমিক নির্যাতনের এই চাঞ্চল্যকর খবর সামনে নিয়ে এল চিনের সরকারি সংবাদ মাধ্যম।   

নির্যাতনের এখানেই শেষ নয়। মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার পাশাপাশি কমোডে মুখ ঢুকিয়ে সেই জল খেতে বাধ্য করা হত শ্রমিকদের। আর এই সমস্ত শাস্তিই দেওয়া হত সবার সামনে, প্রকাশ্যে। দক্ষিম পশ্চিম চিনের গুইঝোউ প্রদেশের একটি গৃহসজ্জা সামগ্রী বানানোর কারখানায় এই অত্যাচার চালানো হত বলে জানা গিয়েছে চিনের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে। সেখানেই সরকারি মাধ্যমে অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে কয়েক জন কর্মী কাজ ছেড়ে দিয়েছিলেন।  

তাঁদের কাছ থেকেই প্রথম জানা যায় নির্যাতনের এই ভয়াবহ ঘটনা। অত্যাচারের পাশাপাশি পান থেকে চুন খসলেই করা হত জরিমানা। যদিও অধিকাংশ কর্মীই নির্যাতন সহ্য করে কাজ করে যেতেন বলে জানিয়েছেন কাজ ছেড়ে দেওয়া কর্মীরা। কারণ, এটাই নিয়তি বলে মেনে নিতেন তাঁরা।

এই ভয়াবহ ঘটনা সামনে আসার পরই অবশ্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে চিনা প্রশাসনের তরফে। কোম্পানির তিন জন ম্যানেজারকে পাঁচ থেকে দশ দিনের জন্য কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

চিনের শ্রমিকদের দূরবস্থা নিয়ে বরাবরই সরব পশ্চিমী সংবাদ মাধ্যম ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলি। বেশি সময় ধরে কাজ করানো, কম বেতন দেওয়া, ছোট্ট ঘুপচি ঘরে গাদাগাদি করে শ্রমিকদের রাখা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন সময়। গুইঝোউ প্রদেশের এই অত্যাচারের ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় নিশ্চিত ভাবেই আরও জোরাল হবে সেই সব প্রশ্ন। সূত্র: আনন্দবাজার

এসি

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি