ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯, || আশ্বিন ৩০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালিত

প্রকাশিত : ১৮:৫২ ১৭ মার্চ ২০১৯ | আপডেট: ১৬:০১ ১৯ মার্চ ২০১৯

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

রোববার (১৭ মার্চ) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

পরে শিক্ষক সমিতি, ডিন, কর্মকর্তা পরিষদ, হল এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়।

পুষ্পস্তবক অর্পন শেষে উপাচার্যের নেতৃত্বে র‌্যালি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘গাহি সাম্যের গান’ মঞ্চে  আলোচনা সভা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য হাবিবা রহমান খান।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটির সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে এবং কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সাহাবউদ্দিন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম এবং বঙ্গবন্ধু নীল দলের সভাপতি ড. সিদ্ধার্থ দে (সিধু)।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ হাবিবা রহমান বলেন,‘বঙ্গবন্ধু মানে একটি পতাকা, একটি দেশ এবং একটি মানচিত্র। বঙ্গবন্ধু এই দেশের মানুষের জন্য বারবার কারাবরণ করেছেন। হাসি মুখে ফাঁসির মঞ্চে যেতেও তিনি ভয় পাননি। তিনি পাকিস্তানিদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন,বাঙালিরা বারবার মরে না, একবার মরে। তোমরা শুধু আমার লাশটি বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিও।’

এ সময় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন এমপি হাবিবা রহমান।

কেআই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি