ঢাকা, বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

নারীদের প্রশিক্ষণ দেবে মহিলা বিষয়ক অধিদফতর

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৪৯ ১৩ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ১২:২৭ ১৯ এপ্রিল ২০১৮

বর্তমানে দেশের নারীরা ছোট ছোট উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। কিন্তু পর্যাপ্ত দক্ষতা ও প্রশিক্ষণের অভাবে তারা অনেক সময় সফল হতে পারেন না। অথচ দেশের মোট জনশক্তির অর্ধেকই নারী। নারীকে যদি কর্মমুখী শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় তবে নারীর ক্ষমতায়ন বেড়ে যাবে বহুগুণে। দেশের অর্থনীতির ভিতকে শক্ত করতে হলে পুরুষের পাশাপাশি নারীকেও এগিয়ে নিতে হবে। নারীদেরকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করতে সরকার মহিলা অধিদফতরের মাধ্যমে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দিয়ে যাচ্ছে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচি নারীদেরকে আরও স্বাবলম্বী হতে সহয়তা করবে।

যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিবে

দরজি বিজ্ঞান, এমব্রয়ডারি, ব্লক-বাটিক ও টাই-ডাই বিষয়ে নারীদেরকে এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে আবেদনকারীকে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে।

প্রশিক্ষণের তথ্য

প্রতি বছর তিনটি সেশনে এখানে প্রশিক্ষাণার্থী নেওয়া হয়। প্রথম সেশন জানুয়ারি থেকে এপ্রিল সেশন, দ্বিতীয় সেশন মে থেকে আগস্ট এবং তৃতীয় সেশন সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বর। এ তিনটি সেশনে মোট ৩০ জন করে প্রশিক্ষণার্থী ভর্তির সুযোগ পান। এই প্রশিক্ষণের মেয়াদ চার মাস।

দ্বিতীয় সেশনের জন্য আবেদন করতে হবে ৩০ এপ্রিলের মধ্যে। আবেদন ফরম পাওয়া যাবে (৩৭/৩, ইস্কার্টন গার্ডেন রোড, ঢাকা) মহিলা অধিদফতরের অফিসে। সরকারি ছুটির দিন ছাড়া আবেদনকারীরা সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন।

প্রতি ব্যাচে সর্বোচ্চ ৩০ জন ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন। মে মাস থেকে ক্লাস শুরু হয়ে  চলবে আগস্ট পর্যন্ত। আবেদনকারীকে প্রতিটি কোর্সের ফি বাবদ ৩৩০ টাকা প্রদান করতে হবে। তবে এর মধ্যে ২০০ টাকা জামানত জমা হিসেবে নেওয়া হবে। যা কোর্স শেষে প্রশিক্ষাণার্থীদের ফেরত দেওয়া হবে।

দরজি বিজ্ঞানের প্রশিক্ষক মমতাজ বেগম বলেন,‘নারীদেরকে প্রশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হাতে কলমে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নারীরা ঘরে বসেই বাড়তি আয়ের সুযোগ পেতে পারে। দুস্থ নারীদের পুনর্বাসনের লক্ষে এই অধিদপ্তর বিনামূল্যে সেলাই মেশিন সরবরাহ করে থাকে। এখানে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে নানা পেশার নারীরা প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন। এই ট্রেডে কাজ শিখে অনেকে উদ্যেক্তা হয়ে নিজের ভাগ্য পরিবর্তন করতে সচেষ্ট হয়েছেন।"

প্রশিক্ষণ নিতে আসা আকতারা বাণু একুশে  টেলিভশন অনলাইনকে বলেন, ‘আমি পড়াশোনা বেশি দূর করতে পারিনি। তাই এখানে এসে কাজ শিখে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি।’

অন্য এক প্রশিক্ষণার্থী তানজিনা বলেন, ‘আমি একজন পুলিশের বাসায় কাজ করতাম। বাহিরে কাজ করতে ভালো লাগে না। আর তাই প্রশিক্ষণ নিয়ে টেইলার্সে যেন কাজ করতে পারি সেজন্য এখানে আসা। এই প্রশিক্ষণ আমাদের ভাগ্য পরিবর্তনে সহায়তা করবে।”

অন্য কোর্সের নাম

চার মাস মেয়াদি কম্পিউটার বেসিক, উইন্ডোজ অপারেশন ও আউটসোর্সিং কোর্সে ভর্তির যোগ্যতা এসএসসি। কোর্স ফি আড়াই হাজার টাকা। গ্রাফিকস ডিজাইন ও আউটসোর্সিং বিষয়ে ভর্তির যোগ্যতা এইচএসসি। কোর্স ফি পাঁচ হাজার টাকা। ওয়েব ডিজাইন কোর্সে ভর্তির যোগ্যতা এইচএসসি। কোর্স ফি আট হাজার টাকা। এ সকল কোর্সের প্রতি শিফটে নেওয়া হবে ২০ জন করে।

এই প্রশিক্ষণ সম্পর্কে কম্পিউটার প্রোগ্রামার ফজলে রব একুশে টেলিভিশন অনলাইনকে বলেন, ‘ কম্পিউটারের এই প্রশিক্ষণ কোর্স সময় উপযোগী পদক্ষেপ । সমাজের অনগ্রর নারীরা এসব কোর্স করে  স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারবে। নারীরা ঘরে বসেই সেলাই কাজ এবং এডভান্সড কোর্স হিসেবে গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েভ ডিজাইন, আউট সোর্সিং করে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারবে। এখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে কর্মজীবনে উদ্যেক্তা হয়ে বেশ সাফল্য অর্জন করেছেন অনেক নারী।

প্রশিক্ষণ নিতে আসা রাবেয়া আকতার বলেন, ‘এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আউটসোর্সসিং করে নিজের আয় বাড়াতে চাই। ক্যারিয়ার গড়তে চাই। এখানে বেশ আগ্রহের সাথে শিখতে পারছি।’

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

ভর্তি আবেদন পত্রের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের ফটোকপি, পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ও স্ট্যাম্প সাইজের এক কপি ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি যুক্ত করতে হবে।

কেআই/টিকে

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি