ঢাকা, বুধবার   ২২ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

পকেটে মোবাইল পুরুষের জন্য ডেকে আনে বিপদ: গবেষণা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৫৭ ৭ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ১২:০৪ ৭ মার্চ ২০১৮

বিশ্বজুড়ে মোবাইল ফোনের ব্যবহার যেন বেড়েই চলেছে। এখন যেখানেই যাওয়া হোক না কেন ফোন না নিয়ে গেলে যেন নিজেকে সঙ্গহীন মনে হয়। তাই বাইরে যাওয়ার সময় আর কিছু মনে থাকুক আর না থাকুক ফোন নিয়ে যাওয়ার কথা বেশ মনে থাকে। বিশেষ করে পুরুষরা যখন বের হয় তখন নিজের ফোনটা তার প্যান্টের পকেটে রেখে বের হয়।

কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, ফোন পকেটে ব্যবহার করে পুরুষরা তাদের জীবনে ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনছে। কেননা মোবাইল ফোন থেকে ইলেকট্রোম্যাগনেটিক রেডিয়েশন নামে এক ধরনের বিষাক্ত পদার্থ নির্গত হয় তা শরীরে মারাত্মক ক্ষতি করে। এছাড়া ক্যান্সারের জন্য অন্যতম দায়ী।

ক্যালিফোর্নিয়ার ব্রেস্টলিঙ্ক নামক একটি সংস্থায় গবেষণা করে দেখা গেছে যে, পুরুষদের প্যান্টের পকেটে মোবাইল ফোন রাখাটা মোটেও ভাল নয়। এর কারণ, মোবাইল ফোন পুরুষদের ক্ষেত্রে বীর্যের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে, কথা বলার সময় ফোন যদি পুরুষাঙ্গের কাছাকাছি থাকে, তবে তা বীর্য উৎপাদনকারী কোষের মারাত্মকভাবে ক্ষতি করে। এতে পরিমাণ মতো বীর্য তৈরি হতে পারে না।

ফলে মূলত ক্ষতিগ্রস্ত বীর্যের কারণে সন্তান দুর্বল এবং শারীরিক বা মানসিক প্রতিবন্ধকতা নিয়ে জন্মাতে পারে। অনেক পুরুষ কানে হেডফোন ব্যবহার করে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মোবাইল ফোন পকেটে রাখে, তাদের ক্ষেত্রে ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা সব থেকে বেশি।

ক্লেভল্যান্ড-এ অবস্থিত সেন্টার ফর রিপ্রোডাক্টিভ মেডিসিন-এ মোবাইল ফোনের ওপর একটি সমীক্ষা চালানো হয়। তাতে ৩২ জন পুরুষের ওপর এই সমীক্ষা হয়। তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে বীর্যের নমুনা নিয়ে, তা দিয়ে নানা ধরণের পরীক্ষা-নিরিক্ষা চালানো হয়। এক সময় নমুনাগুলির কাছাকাছি ফোন রেখে দিয়ে তার প্রভাব পরীক্ষা করা হয় এবং দেখা যায় যে, বীর্যগুলি যথারীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

তথ্যসূত্র : ডেইলি সান শাইন।

কেএনইউ/

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি