ঢাকা, বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

পাঁচ দিনের ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার শুরু

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:১১ ১০ অক্টোবর ২০১৯

রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডস্থ কম্পিউটার সিটি সেন্টারে (মাল্টিপ্ল্যান) শুরু হয়েছে ৫ দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার ২০১৯’ শীর্ষক মেলা। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় এ উপলক্ষে কম্পিউটার সিটি সেন্টারে এক বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মেলা উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। দশমবারের মতো আয়োজিত ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ারে এবারের স্লোগান- গো ডিজিটালি মেক ইয়োর লাইফ হ্যাসল ফ্রি।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলার সমাপনী আগামী ১৪ অক্টোবর। সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ১ম থেকে ১০ম তলা পর্যন্ত ১ লাখ ৬৫ হাজার বর্গফুট এরিয়া জুড়ে এ মার্কেটের ৭৪৬টি প্রতিষ্ঠান তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিপণ্য ও কলাকৌশল এ মেলায় প্রদর্শন করবে।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মোস্তাফা জব্বার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে সার্থকভাবে ব্যবহারের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এত বড় মার্কেট নেই। এখানে ব্যবসায়ীরা শুধু ব্যবসায় করে না। বাংলাদেশের মানুষকে কম্পিউটার পৌঁছে দিতে এবং দক্ষতা তৈরি করতে কাজ করছেন।

তিনি আরো বলেন, ২০২১ সালে আমরা বাংলাদেশের ৫০ বছর পালন করবো এবং বিশ্বকে দেখিয়ে দিব ডিজিটাল বাংলাদেশ। আমাদের গ্রামের মানুষেরা এখন স্মার্টফোনের মাধ্যমে অ্যাপ ব্যবহার করতে শিখেছে। বাংলাদেশে ২০২১ সালের মধ্যে সব ইউনিয়নে ফাইবার অপটিক্স পৌঁছানো হবে। ইন্টারনেটের ক্ষতিকারক দিকও আছে কিন্ত আমরা বসে নেই, গত বছর ডিসেম্বর থেকে চলতি বছর এই সময় পর্যন্ত ২২ হাজার পর্নো সাইট বন্ধ করেছি। একই সঙ্গে ভুয়া সাইটগুলোও বন্ধ করেছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন, এফবিসিসিআই এর পরিচালক আবু মোতালেব, হাফেজ হারুন, খন্দকার মঈনুর রহমান জুয়েল, ব্যবসায়ী ঐক্য ফোরামের সভাপতি আব্দুস সালাম, ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জসীম উদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন কম্পিউটার সিটি সেন্টারে সভাপতি ও মেলার আহ্বায়ক তৌফিক এহ্সোন।

সভাপতির বক্তব্যে তৌফিক এহ্সোন বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতি মানুষের জীবনের সমস্যা দূর করতে পারে। আমাদের সামনে আসছে আইওটিসহ নানা প্রযুক্তি। দেশের প্রযুক্তিপ্রেমী মানুষেরা এ রকম একটি মেলার আয়োজনের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। মেলায় তাদের জন্য নতুন পণ্য যেমন রয়েছে তেমনি ছাড় আর উপহার রয়েছে। আশা করছি এবারে ১০ লাখের বেশি মানুষ মেলা পরিদর্শন করবেন।

মেলায় বিশ্বের স্বনামধন্য বিভিন্ন আইসিটি ব্র্যান্ড পৃষ্ঠপোষকতা করছে। প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে এসার, ডেল, এইচপি, ক্যাসপারস্কি। গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে আসুস, লেনোভো, এডাটা। সিলভার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ডাহুয়া ও টিপি-লিংক। স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ইসেট, টেনডা, ট্রানসেন্ড, ওয়েব লিংক। গেমিং পার্টনার হিসেবে রয়েছে গিগাবাইট।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকবে শিশু-কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, ফ্রি গেমিং ও ইন্টারনেট ব্রাউজিং প্রভৃতি সুবিধা। মেলায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার উন্মুক্ত করা হয়েছে।

আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি