ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৮ ৩:২৩:২৬

Ekushey Television Ltd.

বঙ্গবন্ধুর খুনীদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক প্রক্রিয়া(ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:২১ পিএম, ৯ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আত্মস্বীকৃত ৬ খুনীকে আজও দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়নি। পলাতক খুনীদের একজন জার্মানীতে আর বাকী ৫ জন কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, সেনেগাল ও জিম্বাবুয়েতে রয়েছে। কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে খুনীদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক প্রক্রিয়া চলছে দীর্ঘদিন ধরে।

বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যা করেই থামেনি খুনীদের বর্বরতা। এই হত্যাকাণ্ডের বিচার না করতে আইন করে চরম অসভ্যতার নজির গড়ে তারা। বন্ধ করে দেয়া হয় বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথ।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার বিচার শুরু হয়। দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে ২০১০ সালে ১২ খুনীর মধ্যে কার্যকর করা হয় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড।

তারা হলো: অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল সৈয়দ ফারুক রহমান, অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ, অবসরপ্রাপ্ত মেজর এ কে বজলুল হুদা ও অবসরপ্রাপ্ত মেজর এ কে এম মহিউদ্দিন।

বাকী সাতজনের মধ্যে আজিজ পাশা জিম্বাবুয়েতে রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা অবস্থায় ২০০১ সালের ২ জুন মারা যায় বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়।

জীবিত ৬ জনের মধ্যে রাশেদ চৌধুরী বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ১৯৭৬ সালে জেদ্দায় কূটনীতিক পদে যোগ দেন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার তাকে দেশে ফেরত আসার নির্দেশ দিলে, যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেয় রাশেদ চৌধুরী। আরেক খুনী নূর চৌধুরী ১৯৭৬ সালে ব্রাসিলিয়ায় কূটনৈতিক জীবন শুরু করে। আওয়ামী লীগ সরকার তাকেও ফেরত আসার নির্দেশ দিলে, নূর চৌধুরী আশ্রয় নেয় কানাডায়। তাকে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়ার কথা জানা যায় মাঝেমধ্যেই।

শরিফুল হক ডালিমকে ১৯৭৬ সালে কূটনীতিক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় বেইজিংয়ে। ১৯৮৮ সালে পদায়ন করা হয় কেনিয়ার রাষ্ট্রদূত হিসেবে।

রিসালদার মোসলেহউদ্দিন রয়েছে জার্মানীতে। তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে জার্মান সরকারের সঙ্গে কূটনৈতিক যোগাযোগ চলছে।

খন্দকার আব্দুর রশীদকে পাকিস্তানে দেখা গেছে, এমন তথ্যের ভিত্তিতে পাকিস্তান সরকারকে একটি নোট ভারবাল দেয় বাংলাদেশ। তবে, দেশটির পক্ষ থেকে কোন ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায়নি। আবদুল মাজেদের অবস্থান সম্পর্কে এখনো কোন তথ্য নেই সরকারের কাছে।

বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের দেশে ফেরত আনার চেষ্টা চললেও বিভিন্ন দেশের আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে বিলম্বিত হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

জাতির জনকের পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে এনে দণ্ড কার্যকরের দাবি দেশবাসীর।

 



এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি