ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৮ ৫:৪২:৫১

‘ব্যারিস্টার মইনুলকে সাধারণ বন্দিদের মতো রাখা হবে’

‘ব্যারিস্টার মইনুলকে সাধারণ বন্দিদের মতো রাখা হবে’

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সাধারণ ওয়ার্ডে, সাধারণ বন্দিদের মতো রাখা হবে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুব আলম এমন তথ্য জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, তাকে (ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন) সাধারণ ওয়ার্ডে, সাধারণ বন্দিদের মতো রাখা হবে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে আদালত থেকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। সোমবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ও জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। রংপুরে দায়ের করা মানহানির একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। আজ মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) দুপুর ১টার দিকে ব্যারিস্টার মইনুলকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়। মামলার শুনানি শেষে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) কায়সারুল ইসলাম ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর বেসরকারি ৭১ টেলিভিশনের একটি টকশোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে নিয়ে অশালীন ও আপত্তিকর মন্তব্য করার অভিযোগে নারী সাংবাদিক ও সম্পাদকরা বিবৃতি দিয়ে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ক্ষমা চাইতে বলেন। তিনি এরপর দুঃখ প্রকাশ করে লিখিত ক্ষমা চাইলেও তাকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান তারা। এসএইচ/
খালেদা জিয়ার যাবজ্জীবন সাজা চায় দুদক, আদেশ কাল

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার যাবজ্জীবন সাজা চেয়ে মামলার বাদী দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এবং রাষ্ট্রপক্ষ। দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান এবং রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শুনানিতে অংশ নিয়ে এ দণ্ড চেয়েছেন। আগামীকাল বুধবার এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি হয়। শুনানির একপর্যায়ে আদালত বর্জন করেন তাঁর আইনজীবীরা। অর্থের উৎসের বিষয়ে পরিষ্কার হওয়ার জন্য অতিরিক্ত সাক্ষ্য গ্রহণ চেয়ে করা আবেদন গ্রহণ না করায় আদালত বর্জন করেছেন তাঁরা। এরপর আদালত তাঁদের অনুপস্থিতিতে অতিরিক্ত সাক্ষ্য নেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেন। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষে ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে এ মামলায় শুনানি শেষ হয়েছে। আগামীকাল এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য রাখা হয়েছে। বেলা ১১টার দিকে শুনানির একপর্যায়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘সোমবার মামলার অর্থের উৎসের বিষয়ে আপনারা যে আদেশ দিয়েছেন, তার বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে যাব।’ জবাবে আদালত বলেন, ‘আপনারা আপিল বিভাগে যেতে পারেন।’ এরপর এ জে মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত আসা পর্যন্ত মামলার কার্যক্রম মুলতবি করেন।’ জবাবে আদালত বলেন, ‘মুলতবির আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হলো।’ এ সময় এ জে মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘সে ক্ষেত্রে আমরা শুনানিতে অংশগ্রহণ করছি না। আমরা শুনানি থেকে বিরত থাকছি।’ এরপর খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালত থেকে বেরিয়ে আসেন। এরপর আদালত বলেন, ৩১ অক্টোবর আপিল নিষ্পত্তির নির্দেশনা রয়েছে। এর মধ্যে আপিল নিষ্পত্তি করতে হবে। এরপর তাঁদের অতিরিক্ত সাক্ষ্য নেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। এ সময় এ জে মোহাম্মদ আলী ছাড়াও জয়নুল আবেদীন, আবদুর রেজাক খান, ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, আমিনুল ইসলাম, এ এইচ এম কামরুজ্জামান, ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরী, মো. আখতারুজ্জামান, মো. ফারুক হোসেনসহ খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালত থেকে বেরিয়ে আসেন। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী পঞ্চম বিশেষ জজ আদালত। পরে ওই সাজার বিরুদ্ধে আপিল করেন খালেদা জিয়া ও রাষ্ট্রপক্ষ। রায় ঘোষণার পরপরই খালেদা জিয়াকে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। অসুস্থ হয়ে পড়ায় পরে তাঁকে বঙ্গবন্ধু শেখ মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। / এআর /

আদালতে ব্যারিস্টার মইনুল

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়েছে। রংপুরের মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে মঙ্গলবার দুপুর ১২ টা ৫৫ মিনিটে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলামের আদালতে ব্যারিস্টার মইনুলের জামিন শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে গতকাল সোমবার রাত সোয়া ৯ টার দিকে রাজধানীর উত্তরা থেকে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও ইংরেজি দৈনিক নিউ নেশনের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তর জার্নাল’-এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে প্রকাশ্যে সরাসরি অনুষ্ঠানে চরিত্রহীন বলায় দেশজুড়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ মন্তব্যের জন্য পরে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন ব্যক্তিগতভাবে মাসুদা ভাট্টির কাছে ফোন করেন এবং লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু মাসুদা ভাট্টি তাকে ক্ষমা করেননি। তাই ওই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে গত রোববার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে মানহানির মামলা করেন মাসুদা ভাট্টি। আদালত ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। পাশাপাশি মইনুলের একই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রোববার সকালে তার বিরুদ্ধে জামালপুরের আদালতে ২০ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন যুব মহিলা লীগের জামালপুর শাখার আহ্বায়ক ফারজানা ইয়াসমীন লিটা। আদালত সে মামলা আমলে নিয়েও ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন। ওই দুই মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে রোববার বিকেলে পাঁচ মাসের জন্য আগাম জামিন দেন আদালত। এ ছাড়া ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, ভোলা, কুড়িগ্রাম ও রংপুরে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে একাধিক মামলায় পরোয়ানা জারি করেন আদালত। এরই মধ্যে গতকাল সোমবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। একে//

ময়মনসিংহের আদালতে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে মামলা

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ময়মনসিংহের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় এ মামলা করা হয়। মঙ্গলবার সকালে মামলাটি করেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ও ভালুকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা সুলতানা মনি। অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম রোজিনা খান মামলাটি আমলে নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন মনিরার আইনজীবী পিযুষ কান্তি সরকার। বাদী মনিরা সুলতানা মনি সাংবাদিকদের বলেন, টক শোতে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে জামায়াতের প্রতিনিধি বলায় তিনি সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন নারী বলে আখ্যায়িত করেন। ফলে সব নারী জাতিসহ সব সাংবাদিককে অপমানিত করা হয়েছে। আমি (বাদী) একজন নারী, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও জনপ্রতিনিধি হওয়ায় সামাজিক রাজনৈতিকভাবে আহত ও অপমানিত হয়েছি। এ জন্য আমি মামলা করেছি। প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তর জার্নাল’-এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে প্রকাশ্যে সরাসরি অনুষ্ঠানে চরিত্রহীন বলায় দেশজুড়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ মন্তব্যের জন্য পরে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন ব্যক্তিগতভাবে মাসুদা ভাট্টির কাছে ফোন করেন এবং লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু মাসুদা ভাট্টি তাকে ক্ষমা করেননি। তাই ওই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে গত রোববার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে মানহানির মামলা করেন মাসুদা ভাট্টি। আদালত ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। পাশাপাশি মইনুলের একই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রোববার সকালে তার বিরুদ্ধে জামালপুরের আদালতে ২০ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন যুব মহিলা লীগের জামালপুর শাখার আহ্বায়ক ফারজানা ইয়াসমীন লিটা। আদালত সে মামলা আমলে নিয়েও ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন। ওই দুই মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে রোববার বিকেলে পাঁচ মাসের জন্য আগাম জামিন দেন আদালত। এ ছাড়া ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, ভোলা, কুড়িগ্রাম ও রংপুরে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে একাধিক মামলায় পরোয়ানা জারি করেন আদালত। এরই মধ্যে গতকাল সোমবার রাত সোয়া ৯ টার দিকে রাজধানীর উত্তরা থেকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও ইংরেজি দৈনিক নিউ নেশনের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। একে//

যেভাবে গ্রেফতার হলেন মইনুল হোসেন

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন তার ব্যক্তিগত একটি প্রাইভেটকারে করে সোমবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে আ স ম আব্দুর রবের বাসায় যান। তবে তার আগে থেকেই পুলিশ বাড়ির বাইরে অবস্থান করছিল। যখন তিনি বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করেন তার কিছুক্ষণ পরে তারা একে অন্যকে খবর দেন। পরে অল্প সময়ের মধ্যে বাড়ির সামনে পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশের সংখ্যা বেড়ে যায়। আ স ম আব্দুর রবের বাড়ির সিকিউরিটি গার্ড সিদ্দিক এসব তথ্য জানান। সিকিউরিটি গার্ড বলেন, বাড়ির সামনে রোডের দুই মাথার এক পাশে তিনটি এবং অপর পাশে চারটি সিলভার রঙের হাইয়েচ গাড়ি দাঁড়ানো ছিল। এছাড়া পুলিশের ৬ থেকে ৭টি মোটরসাইকেল ছিল। তিনি বলেন, রাত পৌনে ৯ টার দিকে পুলিশ বাসার ভেতরে ঢোকেন। পরে সোয়া নয়টার দিকে মইনুল স্যারকে সঙ্গে নিয়ে নিচে এসে একটি সিলভার রঙের হাইয়েচ গাড়িতে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। প্রসঙ্গত, সোমবার রাত সোয়া নয়টার দিকে রংপুরে দায়ের করা মানহানির একটি মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে ডিবি অফিসে নেওয়া হয়েছে। একে//

চাঁদাবাজির তৃতীয় মামলায় জামিন পেলেন ডা. জাফরুল্লাহ

সাভারের আশুলিয়া থানায় দায়ের হওয়া চাঁদাবাজি ও জমি দখলের তৃতীয় মামলায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। এক জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এ জামিন আদেশ দেন। আদালতে তার জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। তার সঙ্গে ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, এ কে এম এহসানুর রহমান প্রমুখ। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। এর আগে গত ২১ অক্টোবর রাতে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে আবারও চাঁদাবাজি ও জমি দখলের অভিযোগে মামলা হয়। সেলিম আহমেদ নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে ওই মামলাটি দায়ের করেন। এ নিয়ে আশুলিয়া থানায় জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগে মোট তিনটি মামলা দায়ের করা হলো। এ মামলাতেও জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে প্রধান আসামি করে গণবিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দেলোয়ার হোসেন, পরিচালক সাইফুল ইসলাম শিশির ও আওলাদ হোসেনের নাম উল্লেখসহ আরও বেশ কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। মামলার এজাহারে বলা হয়, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশে সেলিম আহমেদ জমি কিনে ভোগ দখল করে আসছিলেন। তবে গত কয়েক মাস যাবৎ ওই জমি দখল করে নেওয়ার জন্য পাঁয়তারা করে আসছে জাফরুল্লাহ’র লোকেরা। এছাড়া, জমির মালিকের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করেন তারা। এসএইচ/

মাসুদা ভাট্টিকে ক্ষমা চাইতে মইনুলের উকিল নোটিশ

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের কাছে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাইতে মাসুদা ভাট্টিকে উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। সোমবার সকালে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জুলফিকার আলী জুনু এই নোটিশ পাঠান। আইনজীবী জুলফিকার আলী জুনু বিষয়টি নিশ্চিত করেন। নোটিশে বলা হয়, সম্প্রতি চ্যানেল একাত্তরের একটি টকশোতে মাসুদা ভাট্টি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও মানহানিকর প্রশ্নের মাধ্যমে তার সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ন করেছেন। তাই নোটিশ প্রাপ্তির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে ক্ষমা চাইতে বলা হচ্ছে। অন্যথায় মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা হবে বলেও নোটিশে উল্লেখ করা হয়। মাসুদা ভাট্টির এমন প্রশ্নে মাধ্যমে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা কেন সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট হিসেবে গণ্য হবে না এবং মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না তাও জানতে চাওয়া হয়েছে নোটিশে। উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তরের জার্নাল’ এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন- আপনি বলেছেন আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন।’ মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই।’ আরকে//

জাবালে নূরের মালিকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চার্জগঠন ২৫ অক্টোবর

রাজধানীর বনানী-এয়ারপোর্ট সড়কে হোটেল র‌্যাডিসনের বিপরীতে দুই বাসের পাল্লায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় জাবালে নূর মালিকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছেন আদালত। তাদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের জন্য আগামী ২৫ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ সোমবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েস মামলাটির চার্জশিট আমলে নিয়ে চার্জগঠনের শুনানি এ দিন ধার্য করেন। যাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল হয়েছে তারা হলেন- জাবালে নূরের মালিক মো. শাহদাত হোসেন আকন্দ (৬০), চালক মাসুম বিল্লাহ (৩০), হেল্পার মো. এনায়েত হোসেন (৩৮) ও চালক মো. জোবায়ের সুমন (৩৬) এবং বাস মালিক মো. জাহাঙ্গীর আলম (৪৫) ও হেল্পার মো. আসাদ কাজী (৪৫)। আসামিদের মধ্যে শেষের ২ জন পলাতক। এর আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ২৭৯, ৩২৩, ৩২৫, ৩০৪ ও ৩৪ ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন ডিবি পুলিশ উত্তর ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিমের ইন্সপেক্টর কাজী শরীফুল ইসলাম। চার্জশিটের ধারাগুলোর মধ্যে ৩০৪ ধারার খুন বলে গণ্য নয় এরূপ দণ্ডনীয় নরহত্যার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। গত ২৯ জুলাই বেপরোয়া গতিতে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস হোটেল র‌্যাডিসনের বিপরীতে জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের পাশে রাস্তায় অপেক্ষারত শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের ১৪-১৫ জন ছাত্র-ছাত্রীর ওপর উঠিয়ে দিয়ে চালক পালিয়ে যান। এ দুর্ঘটনায় একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র আব্দুল করিম রাজীব নিহত হয়। এছাড়া গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয় ওই কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র সোহেল রানা, দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইমরান চৌধুরী, মেহেদী হাসান জিসান, রাহাত, সজিব, জয়ন্তি, প্রথম বর্ষের ছাত্রী রুবাইয়া, এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী তৃপ্তাসহ আরো কয়েকজন। ওই ঘটনায় সেদিন রাতেই ক্যান্টনমেন্ট থানায় এ মামলা দায়ের করেন নিহত দিয়া খানম মিমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম। ২৯ জুলাই দিবাগত রাতে ক্যান্টনমেন্ট থানায় নিহত একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম এ মামলা দায়ের করেন। / এআর /

জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে চুরির মামলা

এবার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। দুটি চাঁদাবাজির মামলার পর আশুলিয়া থানায় তার বিরুদ্ধে নতুন এই মামলা দায়ের করা হলো।মামলার বাদী রাজধানীর আদাবরের বাসিন্দা যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী সৈয়দ সেলিম আহমেদ (৬১)। অনধিকার প্রবেশ, চুরি, ভাঙচুর, ক্ষয়ক্ষতি, হুমকির অভিযোগে মামলাটি দায়ের করা হয়। এতে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে করা হয়েছে হুকুমের শীর্ষ আসামি। এর আগে আশুলিয়ায় জমি দখলের চেষ্টা, ভাঙচুরের অভিযোগে জাফরুল্লার বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়। গতকাল রোববার বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চে জামিন প্রার্থনা করলে তার আগাম জামিন মঞ্জুর করা হয়।এসএ/

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি