ঢাকা, শনিবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বাজার নিয়ন্ত্রণে কোনো ছাড় দেবেন না সরকার (ভিডিও)

ফারজানা শোভা

প্রকাশিত : ১১:৩০, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

দুর্নীতি  রোধ ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে কাজ শুরু করেছে মন্ত্রণালয়গুলো। অতীতের নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে ইমেজ সংকট কাটিয়ে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে চায় নবনিযুক্ত মন্ত্রীরা। ক্ষমতাসীন দলের ইশতেহার বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে জনগণের নিরাপত্তা ও আস্থা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার। 

টানা চারবারের মত সরকার গঠনের প্রথমেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের কড়া অবস্থান আবারও স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। গেল ১৬ জানুয়ারি প্রথম মন্ত্রিসভা ও ৫ ফেব্রুয়ারি সচিব পর্যায়ের বৈঠকে দুর্নীতি দমনের পাশাপাশি সরকারি ব্যয়ে স্বচ্ছতা ও কৃচ্ছতাসাধন, নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও আইনশৃংক্ষলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার নির্দেশ দেন সরকার প্রধান। 

প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশ বাস্তবায়নে সতর্ক মন্ত্রীরা। তারা বলছেন, বাজার নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেবেন না সরকার প্রধান।  

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, “আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। এই চ্যালেঞ্জের মধ্যে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা, দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখা এবং দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক সূচককে ধরে রাখা। মানুষ একদিন সরকারের প্রতি অনাস্থার জায়গায় ছিল, অবিশ্বাসের জায়গায় ছিল- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই আস্থা ফিরিয়ে এনেছেন। কাজেই সেই আস্থা-বিশ্বাসকে ধরে রেখেই নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করতে হবে।”

মৎস ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী আব্দুর রহমান বলেন, “এই ব্যাপারটি আমাদের নীতি-নৈতিকতার মধ্যেই পড়ে, খাদ্যদ্রব্য যেন মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে থাকে তার ব্যবস্থা করা। পাশাপাশি যারা উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত তারাও যেন ন্যায্যমূল্যটা পায় সে ব্যাপারেও খেয়াল রাখা। সৎ প্রধানমন্ত্রীর কেবিনেটে যারা মন্ত্রীত্ব করবেন তাদেরও সৎভাবেই স্বচ্ছতার সাথেই এগুলো করা উচিত। সামাজিক আন্দোলন বা সামাজিক ক্যাম্পেইনিং এটা একটা বড় বিষয়।”

প্রকল্প গ্রহণ, অর্থ বরাদ্দ , ক্রয় সংক্রান্ত ব্যয় ও অপচয় রোধে যাচাই বাছাই বাড়ানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর। সঠিক সময়ে প্রকল্প শেষ না হলে কড়া জবাবদিহি করতে হবে মন্ত্রণালয়কে। 

মন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, “ফাঁক ফোকড় থেকে দু’চারটি ঘটনা ঘটেছে এটা অপ্রিয় হলেও সত্য কথা। সেই জায়গাটিতে আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। সেই ফাক-ফোকড়গুলো বন্ধ করে দিয়ে সঠিক ধারায় এগুতে হবে। কাজেই এ ব্যাপারে আমরা অত্যন্ত সতর্ক।”

মন্ত্রী আব্দুর রহমান বলেন, “যেগুলো জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ এবং দেশের উন্নয়নের কাজে লাগবে, আমাদের অগ্রগতির ধারা অব্যাহত থাকবে সেই ধরনের প্রকল্প নেওয়া, গুণগত মান থাকতে হবে এবং মূল্যের দিক থেকে যেন সর্বনিম্ন হবে- সেই জায়গাটিই নিশ্চিত করা।”

মন্ত্রিরা জানান, বছরপূর্তীর আগেই নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী জনগণের কাছে দেয়া প্রতিশ্রুতির দৃশ্যমান বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে চায় সরকার। 

এএইচ


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি