ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:০৯:২৬

Ekushey Television Ltd.

বিশ্বকাপের কিছু স্মরণীয় মুহূর্ত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:৩২ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৬:৩৪ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার

বিশ্বকাপে নানা ধরণের ঘটনা ঘটে থাকে। কোনো কোনো ঘটনা ভক্তদের হতাশ করে আবার কোনো কোনো ঘটনা পুলকিত করে। এমন কিছু ঘটনা নিম্নে আলোকপাত করা হলো-

ঘিঘিয়ার গোল-
১৯৫০ বিশ্বকাপে সবাই ধরেই নিয়েছিল, এবারের শিরোপাটি ব্রাজিল জিততে যাচ্ছে। ফাইনাল ম্যাচে যদি কোনো ফলাফলও না হতো, তবু শিরোপাটি শেষমেশ ব্রাজিলের হাতেই উঠতো। কিন্তু উরুগুয়ের ঘিঘিয়া তা আর হতে দিলেন না। ম্যাচের ৭৯ মিনিটে গোল করে ২-১–এ এগিয়ে নিলেন উরুগুয়েকে। সেই সঙ্গে দ্বিতীয়বার এবং শেষবারের মতো বিশ্বকাপের শিরোপাটি ঘরে উঠেছিল উরুগুয়ের।

ইংল্যান্ডের শিরোপা জয়
জন্মদাতা ইংল্যান্ড হলেও ফুটবলীয় সাফল্যে অনেক পিছিয়ে তারা। তবু ভাগ্যিস, ১৯৬৬ বিশ্বকাপটা জিতেছিল তারা। ফাইনালেও পৌঁছেছে সেই একবারই। ভাগ্যিস, ববি মুর সেবার জিতিয়েছিলেন ইংল্যান্ডকে। মুরের এই ছবিটাও তাই ঐতিহাসিক হয়ে আছে।

১৯৭০ বিশ্বকাপটি ব্রাজিল এবং পেলে উভয়ের জন্যই ছিল তৃতীয় বিশ্বকাপ জয়। তবে ফাইনাল ম্যাচে ইতালির বিপক্ষে গোল করার পর এমন বাঁধভাঙা উল্লাসের আরেকটি কারণ কিন্তু ছিল। গোলটি ছিল ব্রাজিল দলের ১০০তম গোল। আর তা পেলের পায়ের ছোঁয়ায় হওয়াতেই এমন উল্লাস।

ঈশ্বরের হাত-
১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যারাডোনার হাত দিয়ে গোল করাটা এখনো ব্রাজিলিয়ান ও ইংলিশ ভক্তদের মূল আলোচনা। ম্যারাডোনা অবশ্য মানতে রাজি নন, তিনি হাত দিয়ে গোল করেছেন। এই কিংবদন্তির দাবি, তার হয়ে ঈশ্বরই গোল করিয়েছেন!

১৯৯৪ বিশ্বকাপের ব্রাজিলের জয়

১৯৯৪ বিশ্বকাপটি ব্রাজিলিয়ানদের জন্য ছিল চতুর্থ বিশ্বকাপ জয়। ম্যাচের পুরো সময় ইতালির সঙ্গে গোলশূন্য থাকায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। পরে ব্রাজিল ম্যাচটি ৩-২ গোলে জিতে নেয়।

জিদানের ঢুস
বোন নিয়ে গালি দেওয়ায় রেগে গিয়ে মার্কো মাতেরাজ্জিকে ঢুস মেরেছেন ফ্রেঞ্চ কিংবদন্তি জিনেদিন জিদান। ২০০৬ বিশ্বকাপের সবচেয়ে স্মরণীয় মুহূর্ত হয়ে আছে এটি।

 

এসএইচ/



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি