ঢাকা, বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

যুব উন্নয়ন অধিদফতরে ৩৬৬৫ তরুণকে প্রশিক্ষণ

প্রকাশিত : ১৬:৫৬ ১৯ অক্টোবর ২০১৭

বাংলাদেশ বর্তমানে ১৫ থেকে ৬৫ বছর বয়সী প্রচুর কর্মক্ষম লোক রয়েছে। এদের একটি বড় অংশ বেকার। কাজ চাচ্ছে কিন্তু কাঙ্খিত কাজ পাচ্ছে না। এভাবে দিনের পর দিন বসে থেকে কর্মক্ষমতা নষ্ট হচ্ছে তাদের। এসব বেকার তরুণ-তরুণীদের প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকারের যুব উন্নয়ন অধিদফতরের যুব উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।

এই ধাপে ৩৬৬৫ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে কাজের উপযোগী করে গড়ে তোলবে যুব উন্নয়ন অধিদফতর। অংশ নেওয়া যাবে অষ্টম শ্রেণি পাস হলেই। নামেমাত্র ফি-তে এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। উপস্থিতি ঠিক থাকলে মিলবে ভাতাও। প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেকে গড়ে তোলতে চাইলে দ্রুত আবেদন করুন। আর প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেকে তৈরি করুন আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়।  


যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ  
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সারাদেশে যুব উন্নয়ন অধিদফতরের যুব উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে দেওয়া হবে এই প্রশিক্ষণ। গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি পালন, প্রাথমিক চিকিৎসা, মৎস্য চাষ ও কৃষি, ব্লক-বাটিক ও স্ক্রিন প্রিন্ট, ওভেন ও সুইং মেশিন অপারেটিং এবং বিউটিফিকেশন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।


কোনটি কতজনকে প্রশিক্ষণ
যুব উন্নয়ন অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি পালন, প্রাথমিক চিকিত্সা, মত্স্য চাষ ও কৃষি বিষয়ে তিন মাস মেয়াদি কোর্সে দেশের ৫৭টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৩২০০ জন প্রশিক্ষণ পাবেন। চার মাস মেয়াদি ব্লক-বাটিক ও স্ক্রিন প্রিন্ট কোর্সে ৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ২২৫ জন, দুই মাস মেয়াদি ওভেন ও সুইং মেশিন অপারেটিং বিষয়ে তিনটি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৬০ জন এবং এক মাস মেয়াদি বিউটিফিকেশন বিষয়ে ৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ১৮০ জন প্রশিক্ষণ পাবেন।


ভর্তির যোগ্যতা
অষ্টম শ্রেণি পাস হলেই আবেদন করা যাবে এই প্রশিক্ষণের জন্য। অংশ নিতে পারবেন ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সী বেকার তরুণ তরুণীরা। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা শিথিলযোগ্য।


আবেদন যেভাবে
আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৯ অক্টোবর। নিজ হাতে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। নির্ধারিত আবেদন ফরম পাওয়া যাবে যুব উন্নয়ন অধিদফতরের ওয়েবসাইটে (www.dyd.gov.bd)। এছাড়া উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদফতরের উপপরিচালক, কো-অর্ডিনেটর, ডেপুটি কো-অর্ডিনেটর ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বিনামূল্যে সংগ্রহ করা যাবে আবেদন ফরম।
পূরণ করা আবেদনপত্র নিজ জেলা বা উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দপ্তরে জমা দিতে হবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের ফটোকপি, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি বা জন্মনিবন্ধনের ফটোকপি ও সদ্য তোলা দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি যুক্ত করতে হবে।


বাছাই প্রক্রিয়া
জেলা ও উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদফতরের মাধ্যমে প্রার্থীর আবেদন ফরম যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রাথমিক বাছাইয়ের পর ৩০ অক্টোবর সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে অধিদতফরের নিজ নিজ জেলা ও উপজেলা কার্যালয়ে। সাক্ষাৎকারের দিন প্রার্থীর সব মূল কাগজপত্র সঙ্গে রাখতে হবে।


কোর্স শুরু
প্রশিক্ষণ কোর্স শুরু হচ্ছে ২ নভেম্বর ২০১৭ ইং থেকে।

প্রশিক্ষণ ফি ও ভাতা
প্রশিক্ষণের সব খরচ বহন করবে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর। তবে গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি পালন, প্রাথমিক চিকিত্সা, মত্স্য চাষ ও কৃষি বিষয়ে প্রার্থীদের কাছ থেকে ভর্তি ফি বাবদ ১০০ টাকা (অফেরতযোগ্য) ও জামানত বাবদ ১০০ টাকা (ফেরতযোগ্য) নেওয়া হবে। পাওয়া যাবে উপস্থিতির ভিত্তিতে মাসিক ১২০০ টাকা হারে ভাতা। ব্লক-বাটিক, স্ক্রিন প্রিন্ট এবং ওভেন ও সুইং মেশিন অপারেটিং কোর্সের জন্য ৫০ টাকা ও বিউটিফিকেশন কোর্সের জন্য কোর্স ফি লাগবে ১০০ টাকা।


যোগাযোগ
যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে হবে নিজ জেলা বা উপজেলার যুব উন্নয়ন অধিদফতর কার্যালয়ে। প্রধান কার্যালয় : যুব ভবন, ১০৮ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০। ওয়েব :www.dyd.gov.bd


// এআর //

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি