ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫৩:২৭

Ekushey Television Ltd.

রাজপথের আন্দোলনেই খালেদার মুক্তি সম্ভব: মওদুদ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:২২ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বুধবার

দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নির্বাচনে যেতে চাইলে হাতে আর ‘মাসখানেক’সময় আছে মন্তব্য করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। সেই লক্ষ্যে তিনি নেতাকর্মীদের আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। একমাত্র রাজপথের আন্দোলনের মধ্য দিয়েই খালেদার মুক্তি সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

জিয়ার অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের সাজা হয়। গত এপ্রিল থেকে তিনি কারাবন্দি। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বুধবার ঢাকাসহ সারা দেশে দুই ঘণ্টার প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মওদুদ আহমদ অভিযোগ করেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া বিএনপি দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেবে না। তিনি বলেন,বিষয়টি স্পষ্ট, সরকার চায় না বেগম খালেদা জিয়া জামিনে মুক্তি পাক। আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি আর সম্ভবপর নয় বলে আমি মনে করি। এখন রাজপথের আন্দোলনেই কেবল খালেদার মুক্তি সম্ভব।

তিনি বলেন, আমাদের যে আন্দোলন চলছে এই আন্দোলন বেগবান হবে, এই আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে যাবে যেদিন, সেদিন এই সরকারের পতন আসবে।

অনশনে আরো উপস্থিত ছিলেন—বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, নিতাই রায় চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, আমান উল্লাহ আমান, আবুল খায়ের ভুঁইয়া, মিজানুর রহমান মিনু, আতাউর রহমান ঢালী, আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, ইমরান সালেহ প্রিন্স, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, স্বনির্ভরবিষয়ক সম্পাদিকা শিরিন সুলতানা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমদ খান, যুবদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি রফিকুল আলম মজনু প্রমুখ।

এ ছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে বক্তব্য দেন জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরওয়ার, কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য আবদুল হালিম, লেবার পার্টির একাংশের সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, কল্যাণ পার্টির সহসভাপতি শহীদুর রহমান তামান্না, ন্যাপের চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম, জাগপার সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমেদ বেলা ১২টায় অনশনস্থলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান।

/ এআর /



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি