ঢাকা, বুধবার   ২২ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

সিলেটকে ডিজিটাল করার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:২৮ ২৪ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৫:২৯ ২৪ নভেম্বর ২০১৯

মুজিব বর্ষকে সামনে রেখে সিলেট বিভাগের ডিজিটাল কার্যক্রম দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। ইতিমধ্যে সুশাসন সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবা, আমার গ্রাম আমার শহর সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবা, তরুণদের কর্মসংস্থান সংক্রান্ত ডিজিটাল সেবার কাজ শুরু হয়েছে। আশা করা হচ্ছে আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল হবে সিলেট বিভাগ।

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার জানান, ডিজিটাল পরিকল্পনার বেশ অগ্রগতি হয়েছে। চলতি বছরের জুলাই থেকে সিলেট বিভাগের চারটি জেলার ই-ফাইলিংয়ের কাজ শুরু হয়। এক্ষেত্রে সিলেটের চারটি জেলা দেশের শীর্ষ ছয়টি জেলার মধ্যে অবস্থান করছে। গত জুলাইয়ে সিলেট ছিল ১৬তম স্থানে, এখন ৬ষ্ঠ স্থানে। 

তিনি আরও জানান, গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে সিলেট বিভাগের ৪০টি উপজেলায় শতভাগ ই-মিউটেশন অনলাইনে www.land.gov.bd ভূমির নামজারি চালু করা হয়। এছাড়া বিভাগীয় কমিশনারের সঙ্গে মাঠ পর্যায়ের সব কর্মকর্তাকে যোগাযোগের জন্য বার্তা barta.gov.bd নামের অ্যাপস চালু করা হচ্ছে। এই অ্যাপসের মাধ্যমে বিভাগীয় কমিশনার সব জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কিংবা সহকারী কমিশনারদের (ভূমি) একসঙ্গে যেকোনো তথ্য প্রেরণ বা নির্দেশনা দিতে পারবেন। এই অ্যাপসটি আগামী ৩০ নভেম্বর থেকে চালু হতে পারে।

আমার গ্রাম আমার শহর
এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে সিলেট বিভাগের যেকোনো নাগরিক ৩৩৩ কল সেন্টারে ফোন করে এখন ৫০টির মতো সেবার আবেদন দাখিল করতে পারবেন। একসেবা (eksheba.gov.bd) প্ল্যাটফর্ম থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বিভিন্ন সেবা প্রাপ্তির আবেদন দাখিল, খতিয়ান, পর্চার আবেদন দাখিল, নগদ কৃষির (ছাদ কৃষি) অনলাইন ব্যবস্থাপনা, তথ্য অধিকার আইনের আওতায় সরকারি অফিস থেকে বিভিন্ন তথ্য ও সেবা প্রাপ্তির আবেদন দাখিল ও দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তির লক্ষ্যে বেকার নিবন্ধন প্রভৃতি সেবা পাওয়া যাবে। এছাড়া সিলেট বিভাগের সব জেলায় ডিজিটাল রেকর্ড রুম পদ্ধতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সব জমির পর্চা ইলেকট্রনিক উপায়ে এবং ইউডিসির মাধ্যমে প্রদানের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ৩৩৩ কল সেন্টারের মাধ্যমে যেকোনো নাগরিক পর্চার আবেদন দাখিল করতে পারবেন।

ভাতা গ্রহীতাদের তথ্য ডিজিটালাইজ
সমাজকল্যাণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে প্রদানকৃত সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ের ভাতা ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতা আগামী ডিসেম্বর থেকে সিলেট বিভাগে ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদানের পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে ভাতা গ্রহীতাদের ৭০ ভাগের তথ্য ডিজিটালাইজ করা হয়েছে।

কৃষকদের ডাটাবেজ
সিলেট বিভাগে কৃষকদের ডাটাবেজ তৈরির কার্যক্রম চলছে। এরই মধ্যে মৌলভীবাজার জেলার সব কৃষকের ডাটাবেজ শেষে হয়েছে। বাকি তিনটি জেলার আংশিক ডাটাবেজ তৈরির কার্যক্রম চলমান। ডাটাবেজ হয়ে গেলে বিভিন্ন ধরনের কৃষি সেবা কৃষকদের ফোনের মাধ্যমে প্রদান করা সম্ভব হবে। কৃষক ৩৩৩১ নম্বরে ফোন করে তার এলাকার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে কৃষি সহায়তা নিতে পারবেন। পরীক্ষামূলক এ প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে সফলতা লাভ করেছে।

তরুণদের কর্মসংস্থান সংক্রান্ত
অ্যাকসেস টু ইনফরমেশনের (এটুআই) মাধ্যমে উদ্ভাবিত স্কিলস পোর্টালের মাধ্যমে (skills.gov.bd) বেকার যুবকদের রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ডাটাবেজ তৈরির কাজ চলমান। ডাটাবেজ তৈরির কাজ শেষ হলে রেজিস্ট্রেশনকৃত যুবকদের পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। শিল্পকারখানার চাহিদা মোতাবেক বেকার যুবকদের দক্ষতা বাড়াতে প্রশিক্ষণ প্রদানের ব্যবস্থা করাও হবে।

এএইচ/

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি