ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৭ জুন ২০২১, || আষাঢ় ২ ১৪২৮

২৪ হাজার বছর পর প্রাণ ফিরে পেল আণুবীক্ষণিক জীব

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:২৪, ১০ জুন ২০২১

অনুকূল তাপমাত্রায় ২৪ হাজার বছর পর ফের প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছে একটি আণুবীক্ষণিক জীব। রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা সুদূর উত্তরের ইয়াকুটিয়ার অঞ্চল থেকে আণুবীক্ষণিক এ জীবটি উদ্ধার করেন। প্রাচীন এই জীবটির নাম ডিলয়েড রটিফার। ডিলয়েড রটিফার নামের এ বহুকোষী জীবটি বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে মিঠাপানির আবাসে পাওয়া যায়। এটি চরম ঠাণ্ডা সহ্য করে টিকে থাকতে সক্ষম।

উত্তর-পূর্ব সাইবেরিয়ার বিশাল চিরহিমায়িত (পার্মাফ্রস্ট) অঞ্চলে আণুবীক্ষণিক জীবটি এত বছর হীমাঙ্কের নিচে তাপমাত্রায় বরফ হয়ে জমেছিলে। উদ্ধারের পর বিজ্ঞানীরা প্রাণবন্ত হয়ে এটি পুনরুৎপাদনও শুরু করেছে।

মাটির ৩ দশমিক ৫ মিটার গভীর থেকে সংগ্রহ একটি নমুনা থেকে এ প্রাণীটিকে উদ্ধার করা হয়। বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে এর জীবনকাল ২৩ হাজার ৯৬০ থেকে ২৪ হাজার ৪৮৫ বছর বলে ধারণা করেন। সম্প্রতি কারেন্ট বায়োলজি নামক সাময়িকীতে প্রাণীটি নিয়ে গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ হয়েছে।

ডিলয়েড রটিফার নিয়ে এর আগে করা কিছু গবেষণার পর বিজ্ঞানীরা বলেছিলেন, এগুলো হীমাঙ্কের ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস নিচে এক দশক পর্যন্ত টিকে থাকতে পারে। তবে এবারে পাওয়া প্রাণীটি বরফ হয়ে টিকে থাকার ক্ষেত্রে এ প্রজাতির পূর্বের সকল রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে।

যদিও হীমাঙ্কের নিচে টিকে থাকার দীর্ঘতম রেকর্ড এটি নয়। এর আগে নেমাটোড নামের একটি বহুকোষী আণুবীক্ষণিক জীবের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল, যেটি কিনা ঠাণ্ডায় জমে ৩০ হাজার বছর ধরে টিকেছিল।

কিন্তু কি করে এত কম উষ্ণতার মধ্যে নিজেদের শরীরে প্রাণের চিহ্ন বজায় রাখা সম্ভব তা নিয়ে চলছে গবেষণা। বিজ্ঞানীরা মনে করছেন যে, প্রাণীদের মধ্যে এমন কিছু বিশেষ ক্ষমতা থাকে যা নিজেদের কোষকে অত্যন্ত কম উষ্ণতার মধ্যে বাঁচিয়ে রাখতে সাহায্য করে। বহুকোষী প্রাণীরা কিভাবে দীর্ঘ বছরে বেঁচে থাকতে পারে, তা জেনে রীতিমত অবাক বিজ্ঞানীরা। এর ফলে আগামী দিনে জিন গবেষণা এবং বিজ্ঞানের অন্যান্য শাখা তে গবেষণার নতুন দিগন্ত আবিষ্কৃত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
সূত্র : আল জাজিরা, সাইন্স এলার্ট
এসএ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি