ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২, || মাঘ ৫ ১৪২৮

জমে উঠেছে বিজয়ে প্রযুক্তি মেলা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:৪৬, ৮ ডিসেম্বর ২০২১

ঢাকায় আইডিবি ভবনের বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে জমে উঠেছে বিজয়ে প্রযুক্তি মেলা ২০২১। হাল প্রযুক্তির কম্পিউটার-ল্যাপটপ প্রেমীদের আনাগোনায় মুখর মেলা প্রাঙ্গণ। মেলার দ্বিতীয় দিন বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে বিশাল করিডর পার হয়ে মেলা চত্বরে ঢুকেই কথা হলো ঢাকার শংকর থেকে আসা মাসুদ রায়হানের সঙ্গে। 

তিনি বললেন, ‘একটি ল্যাপটপ কেনার উদ্দেশ্যে মেলায় এসেছি। মেলায় মূল্য ছাড়ে পছন্দের যন্ত্রটি কেনা যায়। বিভিন্ন দোকানে ঘুরে ঘুরে দেখছি, পছন্দ হলেই কিনব।’

‘মেলা শুরু হয়েছে জেনেই এসেছি। পুরো মেলা ঘুরে ঘুরে দেখছি। ইচ্ছা আছে ল্যাপটপ কেনার।’ বিসিএস কম্পিউটার সিটির মেলা প্রাঙ্গণে দুপুরে এ কথা বলেন মেলায় আসা ইশরাত শারমিন নামের এক তরুণী। 

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিসিএস কম্পিউটার সিটির এ মেলা শুরু হয় মঙ্গলবার সকাল থেকে। পাঁচ দিনব্যাপী এ মেলায় কথা হয় মেলা থেকে মনিটর কেনা হাসানের সঙ্গে। তিনি জানান, মেলা উপলক্ষে প্রযুক্তিপণ্যটি কিনতেই কম্পিউটার সিটিতে আসা। অনেক দিন থেকেই মেলার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। অবশেষে মেলা থেকে প্রয়োজনীয় মনিটরটি কিনে নিলাম। 

মেলার দ্বিতীয় দিন বুধবার ঘুরে দেখা যায়, বিকেলবেলায় দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়তে থাকে অন্যান্য সময়ের চেয়ে। কেনাকাটার চেয়ে ঘুরে ঘুরে প্রযুক্তিপণ্য দেখছেন তাঁরা। দর্শনার্থীর মধ্যে রয়েছে স্কুল শিক্ষার্থীও। মেলা উপলক্ষে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পণ্য কেনার ওপর রয়েছে অফার। মেলায় আসা এ লেভেল উত্তীর্ণ ধানমন্ডির ইকরামুল ইসলাম বলেন, মেলায় পছন্দের ল্যাপটপ খুঁজে পেতে সুবিধা অনেক বেশি। মেলা উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মূল্যছাড় দিচ্ছে। রয়েছে বিশেষ ছাড় ও উপহার।

মেলা প্রসঙ্গে আহ্বায়ক মো. মাহাবুবুর রহমান বলেন, মেলা নিয়ে আমাদের প্রত্যাশা অনেক। শুধু ব্যবসায়িক বিবেচনায় নয়, নতুন নতুন প্রযুক্তিপণ্যও ক্রেতাদের পরিচয় করিয়ে দিতে চাই। ’আস্থার ২২ বছর’ স্লোগানে পাঁচ দিনের এই মেলার ৮ ডিসেম্বর বুধবার দ্বিতীয় দিন চলছে। মেলা উপলক্ষে কম্পিউটার সিটির বিভিন্ন দোকানে রয়েছে বিশেষ মূল্য ছাড়। বিভিন্ন পণ্যের সঙ্গে দেওয়া হচ্ছে আকর্ষণীয় উপহার।  

এরআগে গত মঙ্গলবার মেলা উদ্বোধন করে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি বলেন, বিজয়ের মাসের ১২ তারিখে বাংলাদেশে ৫জি চালু হবে। এর ফলে প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বাংলাদেশে নতুন যুগে প্রবেশ করবে। বাংলাদেশে ২০০৮ সালে মাত্র ৮ লাখ লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করতো। ২০২১ সালে এসে সেই সংখ্যা দাড়িয়েছে ১২ কোটিতে। এতো ব্যবহারকারী থাকার পরও আমাদের ইন্টারনেট বিভিন্ন দেশে রপ্তানি করছি। ২০২৪ সালে দেশে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল চালু হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) সভাপতি ও ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি সার্ভিসেস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহিদ-উল-মুনীর, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ড্যাফোডিল ফ্যামিলির চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান, বিসিএস কম্পিউটার সিটির প্রথম সভাপতি ও রায়ান্স আইটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ হাসান জুয়েল, স্মার্ট টেকনোলিজস্ (বিডি) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মাদ জহিরুল ইসলাম, গ্লোবাল ব্র্যান্ড (প্রাঃ) লিমিটেডের চেয়ারম্যান আব্দুল ফাত্তাহ এবং এ এল মাজাহার ইমাম চৌধুরী (পিনু চৌধুরী)। 

আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এইবার মেলায় থাকবে না কোন এন্ট্রি টিকেট এবং ফেসবুকে রেজিস্টেশন করলেই থাকবে উপহার। প্রত্যেক ৫০০ টাকার পণ্য ক্রয় করলেই থাকছে একটি করে লাকী কুপন। মেলায় থাকছে বিশেষ ছাড় ও অনেক অনেক উপহার। সিটি কমিটির সদস্য ও মিডিয়া কনভেনার মো. জাহেদ আলী ভূঁইয়া মেলায় সকলকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং সকল স্বাস্থবিধি মেনে চলার জন্য আহবান জানিয়েছেন। 

মেলা চলবে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন মেলা খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত। এবারের মেলায় স্পন্সর করেছেন আসুস, গিগাবাইট, লেনোভো ও টেন্ডা।

এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি