ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ মে ২০২১, || বৈশাখ ২২ ১৪২৮

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি

কাতারে প্রাণ হারিয়েছে বাংলাদেশের ১ হাজার শ্রমিক (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:০৭, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

কাতারে ২০২২ বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে গেল ১০ বছরে প্রাণ হারিয়েছে বাংলাদেশের ১ হাজারের বেশি শ্রমিক। ভারত, পাকিস্তানসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের সাড়ে ৬ হাজারের বেশি শ্রমিক মারা গেছে। সম্প্রতি ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ানের বিশেষ প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয় এসব তথ্য। অধিকাংশ মৃত্যুই বিশ্বকাপের জন্য স্থাপনা নির্মাণের সঙ্গে সম্পৃক্ত। যদিও শুরু থেকেই শ্রমিক মৃত্যুর ঘটনাকে স্বাভাবিক দাবি করে আসছে কাতার।

ফুটবল জগতের সবচেয়ে বড় আয়োজন ফিফা বিশ্বকাপ, ২০২২’র প্রস্তুতি প্রায় ১০ বছর ধরে চলছে কাতারে। গড়ে উঠেছে বিশাল বিশাল সব অট্টালিকা, শতাধিক পাঁচ তারকা হোটেল, ৭টি নতুন স্টেডিয়াম, নতুন বিমানবন্দর, ফ্লাইওভার, মেট্রোরেলসহ আধুনিক গণপরিবহন ব্যবস্থা।

আর এই বিশ্বকাপের প্রস্তুতিকে ভাগ্য পরিবর্তনের স্বপ্ন ভেবে কাতারে পাড়ি জমায় বাংলাদেশ, ভারতসহ এশিয়ার লাখ লাখ শ্রমিক। শুরু করে বড় বড় স্থাপনা নির্মাণের কাজ। 

তবে মৃত্যু যে তাদের ভাগ্যে লেখা ছিলো, তা ভাবতেও পারেননি অনেকে। সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বের হয় চমকে দেয়া সব তথ্য। এতে বলা হয়, ২০১১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত কাতারে সাড়ে ৬ হাজারের বেশি দক্ষিণ এশিয়ান শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে বাংলাদেশী ১ হাজার ১৮ জন।

গার্ডিয়ানের তথ্য অনুযায়ী প্রতি সপ্তাহে গড়ে বাংলাদেশ, ভারতসহ এশিয়ার ৫টি দেশের ১২ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। স্টেডিয়াম নির্মাণ করতে গিয়েই মারা গেছেন ৩৭ শ্রমিক। বাকি প্রায় সবই বিশ্বকাপ আয়োজনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। অধিকাংশেরই ময়না তদন্ত করতে দেয়া হয়নি বলে দাবি গার্ডিয়ানের।  

কাতার কর্তৃপক্ষ বলছে, অধিকাংশ মৃত্যু স্বাভাবিক। তাদের মতে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের ৬৯ ভাগ শ্রমিকের মৃত্যু স্বাভাবিক, সড়ক দুর্ঘটনায় ১২ ভাগ ও কর্মক্ষেত্রে মারা গেছে ৭ ভাগ।

কাতারের পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে ফুটবল সংস্থা ফিফা। দুর্ঘটনার হার কম বলেও দাবি তাদের।

বিশ্বকাপ উপলক্ষে বর্তমানে ২০ লাখ প্রবাসী শ্রমিক অবস্থান করছেন কাতারে। তবে গেল বছরের শেষ দিকে শ্রমিক মৃত্যুর তথ্য গার্ডিয়ানের হিসাবে নেই। তাই মৃত্যুর সঠিক সংখ্যা আরও বড় বলেই সন্দেহ সংবাদ মাধ্যমটির।
ভিডিও :

এএইচ/এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি