ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:০৬:৪৭

সুইডেনে সিটি কাউন্সিলর বাংলাদেশি যুবক

সুইডেনে সিটি কাউন্সিলর বাংলাদেশি যুবক

সুইডেনের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে এক বাংলাদেশি সিটি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এই সিটি নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে রুহুল আমিন বিল্লাল বিজয়ী হয়েছেন। দেশটির রাজধানী স্টকহোম সিটির কমুনে দি সিগটুনা কাউন্সিল পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন রুহুল আমিন বিল্লাল। তিনি লিবারেল রাজনৈতিক পার্টি থেকে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়ে জয়লাভ  করেছেন। সুইডেনের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বাংলাদেশির বিজয় অনন্য মাইলফলক বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। তার দেশের বাড়ি গাজীপুর। পিতা মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. সামসুল হক। প্রবাসে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বিজয়ের পর এক প্রতিক্রিয়ায় স্থানীয় সকল প্রবাসী ভোটারদের কাছে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন। এই প্রথমবারের মতো দেশের বাহিরে এত বড় পরিসরে নির্বাচনে বিজয়ী হতে পেরে নিজেকে  ভাগ্যবান বলে মনে করেন বাংলাদেশি  এই কাউন্সিলর। সুইডেন যুবদলের নেতা কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপি সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব, বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজা, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আলম হোসেন, জার্মান বিএনপির সভাপতি আকুল মিয়া, সাধারণ সম্পাদক গনি সরকার। কেআই/ 
মালয়েশিয়ায় ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার

মালয়েশিয়ার নিলাই শহর থেকে ৬৫ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে দেশটির অভিবাসন দফতর। আটক করা হয়েছে বিদেশী কর্মী সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের দুই কর্মকর্তাকে। অভিবাসন দপ্তর জানিয়েছে, মানব পাচারকারী চক্রের প্রতারণার শিকার হয়েছেন এসব বাংলাদেশীরা। এ ঘটনায় এরইমধ্যে মানবপাচারবিরোধী আইনে তদন্ত শুরু করেছে দেশটি। উন্নত জীবন গড়তে মালয়েশিয়ায় স্বপ্নযাত্রা। বৈধ না অবৈধ- কোন পথে যাচ্ছেন? তা জানা অনেকের জন্যই ছিল কঠিন। অনেকক্ষেত্রেই এই স্বপ্নযাত্রা থেমে যায় মানবপাচারকারীদের শৃঙ্খলে। বন্দি জীবন কাটে প্রতারক প্রতিষ্ঠানের ডরমিটরিতে। মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরে এরকমই এক সিন্ডিকেট অফিসে আটকা পড়েছিলেন ৬৫ বাংলাদেশী। মঙ্গলবার দেশটির অভিবাসন বিভাগ অভিযান চালিয়ে তাদের উদ্ধার করে। পাওয়া যায় ৩৭৭টি পাসপোর্ট। এরমধ্যে ৩৬১টি পাসপোর্টই বাংলাদেশীদের। অভিবাসন দফতরের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মুস্তাফার আলী জানান, মানব পাচারের শিকার এসব বাংলাদেশীরা কয়েক মাস ধরে বেতন পাননি। উল্টো ৩০০ থেকে ৫০০ রিংগিত ধার নিতে বাধ্য করা হয়েছিল তাদের। জব্দ করা হয় মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির স্বাক্ষরিত চুক্তির কপিসহ ৬১টি নথি। আটক করা হয় কোম্পানির পরিচালক কমিটির দুই সদস্যকে। বিদেশি শ্রমিক কোটার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেতে কোম্পানিটির প্রতারণার বিষয়টি বেরিয়ে এসেছে প্রাথমিক তদন্তে। অবৈধ অভিবাসীদের মালয়েশিয়া ছাড়ার সময়সীমা শেষ হয় ৩১ আগস্ট। পরদিন থেকেই অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে মেগা থ্রি নামে অভিযানে নামে মালয় সরকার। এশিয়ান নেটওয়ার্ক সংস্থা বলছে, গেল ৮ মাসে ৭ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশী আটক হয়েছেন। দেশটিতে বর্তমানে ১০ লাখেরও বেশি বাংলাদেশী রয়েছেন।

মালয়েশিয়ায় জিম্মি ৬৫ বাংলাদেশিসহ ৩৭৭ পাসপোর্ট উদ্ধার 

মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরের একটি অফিস থেকে ৩৭৭টি পাসপোর্টসহ ৬৫ জন প্রবাসী বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে সে দেশের অভিবাসন বিভাগ। এ সময় কোম্পানির একজন কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানা গেছে।      বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তফা আলী সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন যাবত অবৈধদের বৈধ করার নামে প্রতারণাসহ জাল ভিসা তৈরির অভিযোগ ছিল কোম্পানিটির বিরুদ্ধে।  এছাড়া কোম্পানিটি দীর্ঘদিন যাবত অভিবাসী শ্রমিকদের জিম্মি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। উদ্ধারকৃত বাংলাদেশীরা জানান, দীর্ঘ পাঁচ মাস যাবত বেতন না দিয়ে রুমের ভিতর তাদেরকে আটকে রেখে ছিলো। এছাড়া বিভিন্ন কোম্পানির কাছে এ সব বাংলাদেশি শ্রমিকদের ১৮০০ থেকে ২০০০ মালয় রিংগিতের বিনিময়ে বিক্রি করতো বলে তারা জানান।    উল্লেখ্য, সম্প্রতি আরও একটি বড় সিন্ডিকেটকে নিলাই থেকে গ্রেফতার করে অভিবাসন বিভাগ। কেআই/এসি     

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের বনভোজন অনুষ্ঠিত 

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের লং আইল্যান্ডে হেকশেয়ার স্টেট পার্কে এ বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়।       শুধুমাত্র প্রেসক্লাবের সদস্য ও তাদের পরিবার এ বনভোজনে অংশ নেন। এ ছাড়া কয়েকজন শুভানুধ্যায়ীও অংশ নিয়েছিলেন। বনভোজন ছিল উপভোগ্য। নারীদের হাঁড়ি ভাঙা খেলা, পুরুষদের পেনাল্টি কিক মারা প্রতিযোগিতা এবং ক্লাব সদস্যদের সঙ্গীত প্রতিযোগিতা ছিল আনন্দ-উচ্ছ্বাসপূর্ণ। সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছেন সামসুন্নাহর নিম্মি, দ্বিতীয় মোহাম্মদ সাঈদ এবং তৃতীয় দিমিত্র এথিনা। বিজয়ীদের দেয়া হয় আকর্ষণীয় পুরস্কার। এ ছাড়া নামমাত্র মূল্যে র্যা ফেল ড্র’র পুরস্কার হিসাবে রঙিন টিভি ও আইফোন-৬এস প্রদান করা হয়েছে। বাসে চড়ে একসঙ্গে আনন্দ-উল্লাস করে বনভোজনে গিয়েছিলেন প্রেসক্লাবের সদস্য পরিবার-পরিজন। বাস ছেড়েছিল জ্যাকসন হাইটস এলাকা থেকে। নাগরিক কোলাহল ছেড়ে নির্জনতায় তারা ডুবেছিলেন আনন্দ-উল্লাস আর সঙ্গীতের মূর্ছনায়। বনভোজনে সঙ্গীত পরিবেশন করেন কৃষ্ণা তিথি। তিনি মাতিয়ে রাখেন সমবেত সঙ্গীত পিপাসুদের।  এই বনভোজনের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর, সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান রচি এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মোহাম্মদ সাঈদ ও সামসুন্নাহার নিম্মি। সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন কণ্ঠশিল্পী ফিরোজ ইসলাম এবং মিসেস মঈন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন এটর্নী মঈন চৌধুরী। তিনি সঙ্গীতও পরিবেশন করেন। এ ছাড়া বনভোজনে উপস্থিত হয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আসন্ন নির্বাচনে নিউইয়র্ক সিটির এটর্নী জেনারেল পদে প্রার্থী (প্রাইমারীতে ডেমক্রেট প্রার্থী) লেসিয়া ইভ।   এসি     

মালয়েশিয়ায় ৫ শতাধিক প্রবাসী আটক

মালয়েশিয়ায় ৫ শতাধিক অবৈধ প্রবাসীকে আটক করেছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। থ্রি-প্লাস ওয়ানের মাধ্যমে অবৈধ শ্রমিকদের দেশে ফেরার সুযোগ শেষ হওয়ার পরপরই শনিবার এক অভিযানে তাদের আটক করা হয়। বিভিন্ন সূত্রে ৫ শতাধিক অবৈধ প্রবাসীকে আটক করার তথ্য জানানো হয়েছে। তবে দেশটির অভিবাসন বিভাগ ৩৯৫ জনকে আটকের বিষয় নিশ্চিত করেছে। এছাড়া আটকদের মধ্যে কতজন বাংলাদেশি রয়েছে তা জানা যায়নি। জানা যায়, এজেন্টর নামে ভিসা করে বিভিন্ন জায়গায় কাজ করলেও তাদের অবৈধ হিসেবে বিবেচিত করা হবে। তবে অনেকের ভিসা থাকা সত্ত্বেও আটক করা হয়েছে। এর ফলে প্রবাসীদের মনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ইমিগ্রেশন বিভাগের প্রধান দাতুকে সেরি মুস্তফার আলী জানান, যতক্ষণ পর্যন্ত অবৈধ প্রবাসীদের আইনের আওতায় আনা না যাচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত সম্ভাব্য সব জায়গায় অভিযান পরিচালিত হবে। অবৈধ শ্রমিক এবং মালিকদের সঙ্গে কোনও আপস করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন ইমিগ্রেশন বিভাগের প্রধান। তিন বাহিনীর সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় অবৈধ অভিবাসী মুক্ত করা হবে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, শুধু অবৈধ অভিবাসী সন্ধানেই নয়, এবার মালিকপক্ষকেও আইনের আওতায় আনা হবে। আর আটকদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত কোনও প্রকার আউট পাস সংগ্রহ করতে দেওয়া হবে না বলে জানান মুস্তফার আলী। জানা যায়, যে তিন বাহিনী দিয়ে অভিযান সাজানো হয়েছে তার মধ্যে রয়েছেন- ইমিগ্রেশন, পুলিশ ও রেলা। একে//

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে বাংলাদেশির যাবজ্জীবন

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেকে হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার দায়ে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক আইএস সদস্যকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে যুক্তরাজ্যের একটি আদালত। শুক্রবার দেশটির পুরনো বেইলি আদালতে নাইমুর জাকারিয়া রহমান (২১) নামের ওই যুবকের বিরুদ্ধে এই সাজা ঘোষণা করা হয়। গত জুলাই মাসে লন্ডনের ওল্ড বেইলি আদালত নাইমুরকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। নাইমুরের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে থেরেসা মে’র মাথা শরীর থেকে আলাদা করে ফেলার পরিকল্পনায় জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। জানা যায়, নাইমুর উত্তর লন্ডনে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতেন। গোয়েন্দারা জাল বিস্তার করে গত বছরের ২৮ নভেম্বর তাকে আটক করেন। অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েদের অশালীন ছবি পাঠানোর সন্দেহে গত বছর অগাস্টে নাইমুরকে আটক করেছিল পুলিশ। তখন তার মোবাইল ফোনে ধর্মীয় উগ্রবাদীদের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার ইঙ্গিত পান কর্মকর্তারা। এরপর লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থা এমআই ফাইভের সন্ত্রাস দমন কর্মকর্তাদের একটি ছদ্মবেশী অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যবস্তু হয়ে ওঠেন নাইমুর। থেরেসা মেকে হত্যার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নাইমুর গত নভেম্বরে হোয়াইট হলের আশপাশ ঘুরে দেখেন এবং বিস্ফোরক নিতে যুতসই মনে করে একটি ব্যাগ তিনি ছদ্মবেশি একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে দেন। ২৮ নভেম্বর ওই পুলিশ কর্মকর্তা নকল বিস্ফোরক ভরে ওই ব্যাগ ও একটি জ্যাকেট নাইমুরকে দিয়ে বলেন, এখন তিনি এগিয়ে যেতে পারেন। কেনসিংটনের ওই জায়গা থেকে হাঁটা শুরু করার পরপরই নাইমুরকে আটক করে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। আদালতে শুনানির সময়ে জানানো হয়, মুসাদ্দিকুর রহমান (২৮) নামে নাইমুরের এক চাচা আইএস সদস্য। সে সিরিয়ায় থেকে নাইমুরের সঙ্গে যোগাযোগ করত। সেই মূলত নাইমুরকে ব্রিটেনে হামলা চালাতে প্ররোচিত করেছে। দুই বছর ধরে এ হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলো নাইমুর। তবে গত গ্রীষ্মে এক ড্রোন হামলায় তার সেই চাচা মারা যায়। সূত্র: রয়টার্স একে//

কাতারে বঙ্গবন্ধু পরিষদের জাতীয় শোক দিবস পালন 

কাতারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।    বৃহস্পতিবার রাজধানী দোহার নাজমা দাওয়াত রেস্তোরাঁয় ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ কাতার’ এ সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।  সংগঠনের সভাপতি এস এম ফরিদুল হকের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল আফছার বাবুলের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নবী। এতে বক্তব্য রাখেন,সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ারশাহ, মো. কফিলউদ্দিন, নজরুল ইসলাম সিসি, শহিদুল্লাহ হায়দার,প্রকৌশলী আনোয়ার, প্রকৌশলী জালাল আহমাদ, মুসলিম উদ্দিন, মো.মহিউদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ। বক্তারা বঙ্গবন্ধুর খুনি যারা এখনও পলাতক রয়েছে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসি কার্যকর করার দাবি জানান। বঙ্গবন্ধু ও ১৫ই আগস্টে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। কেআই/এসি   

সৌদি আরবে গৃহকর্মীদের বেতন দ্বিগুণ হচ্ছে  

সৌদি আরবে যে সব গৃহকর্মী গিয়েছেন তাদের বেতন ভাতা দ্বিগুণ করা হচ্ছে। বিষয়টি জানান সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ। শনিবার (২৫ আগস্ট) তিনি এ বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন।   রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের সৌদিতে ন্যূনতম মাসিক বেতন ১৬ হাজার টাকা। ইতোমধ্যে তাদের বেতন দ্বিগুণ করতে দূতাবাসের মাধ্যমে সৌদি সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। শিগগিরই গৃহকর্মীদের বেতন দ্বিগুণ হবে। জানা গেছে, বর্তমানে সৌদি আরবে সাত লাখেরও বেশি গৃহকর্মী কর্মরত রয়েছে। তারা ন্যূনতম ১৬ হাজার টাকা বেতন পাচ্ছেন। তবে গৃহভেদে গৃহকর্মীর বেতন ৩০ হাজার টাকাও আছে। জীবনযাত্রার সার্বিক দিক বিবেচনা করে ন্যূনতম বেতন দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা থেকে রিয়াদে গৃহকর্মী নেয়ার ব্যাপারে সৌদির বেসরকারি এজেন্সির সঙ্গে বাংলাদেশের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ফলে ৬০ হাজারেরও বেশি নারী গৃহকর্মীর জন্য সৌদি আরবের দুয়ার খুলে যায়। চুক্তিতে উল্লেখ করা হয়, গৃহকর্মীদের সর্বোচ্চ বেতন ১২০০ রিয়াল (বাংলাদেশি টাকায় ২৬ হাজার) ও সর্বনিম্ন ১০০০ রিয়াল (২২ হাজার)। এর ব্যত্যয় হতে পারবে না। তবে নারী গৃহকর্মীদের অনেকের অভিযোগ, ৮০০ রিয়ালের (১৭ হাজার) বেশি তাদের বেতন দেয়া হয় না। সমঝোতা চুক্তি অনুযায়ী, গৃহকর্মীদের একাধারে প্রতিদিন কমপক্ষে ৯ ঘণ্টা বিশ্রাম, সপ্তাহে একদিন ছুটি, পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যসম্মত থাকার জায়গা, ভালো খাবার, কাপড় এবং প্রয়োজনীয় দৈনন্দিন ব্যবহার্য জিনিসপত্র দিতে হবে। পাশাপাশি গ্রহণযোগ্য অসুস্থতার কারণে গৃহকর্মীকে সবেতনে ছুটি দেয়া এবং তার যাবতীয় চিকিৎসার ব্যয়ভার নিয়োগকর্তার বহন করতে হবে। এসি  

কাতারে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত

কাতার  থেকে এম এ সালাম: যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশের মতো কাতারেও উদযাপিত হলো পবিত্র ঈদুল আযহা। আজ মঙ্গবার সকাল ৫:২৫ মিনিটে ৩৬৮ টি ঈদগাহ ও মসজিদে পবিত্র ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন ধর্ম প্রাণ মুসল্লীরা। ঈদের নামাজ শেষে কোলাকুলি করেন ও মুসলিম উম্মাহের সুখও শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। ঈদুল আজহার অবসরে বিভিন্ন বিপণিবিতান ও বিনোদনকেন্দ্রে ঘুরে বেড়ান কাতারপ্রবাসীরা। এ সময় একে ওপরের সঙ্গে মেতে ওঠেন ঈদ উদযাপনে। কাতারের ভিলাজিও মল, সিটিসেন্টার, অ্যাকুয়া পার্কসহ বিভিন্ন পার্ক ও মলে আয়োজিত ঈদ উৎসবেও ভিড় করেন অনেকে। বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে ঘুরে বেড়ানো আর প্রাণখোলা আড্ডায় মেতে ঈদুল আজহার আনন্দ উপভোগ করেন, ঈদের দিন বিকেল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত হাজারও প্রবাসীর পদচারণায় মুখর হয় কর্নিশ এবং সুক ওয়াকিফসহ অন্যান্য দর্শনীয় স্থান। ঈদের অবসরকে আনন্দমুখর করে তুলতে কাতারের বিভিন্ন শহর থেকে অনেকে এসে জড়ো হন এই কর্নিশে। কর্মব্যস্ত জীবনে ঈদের এই ক্ষণিকের অবসর প্রবাসীদের জন্য বয়ে আনে সুবর্ণ সুযোগ। বিদেশে ঈদের এই আনন্দঘন মুহূর্তে দেশে থাকা স্বজনদের কথা বারবার মনে পড়ে তাদের। প্রবাসের ঈদ তাই তাদের কাছে ছিল অপূর্ণ আনন্দ। সেই দুঃখ ভুলে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান হাজারো মাইল দূরে থাকা কাতারপ্রবাসী বাংলাদেশিরা। টিআর/

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে এনে শাস্তির দাবি মালয়েশিয়া আ’লীগের  

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবি জানিয়েছেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।     আজ রোববার সন্ধ্যায় হোটেল রি-জেন্সির হল রুমে বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও ‘রক্তাক্ত ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির উদ্যোগে আলোচনা সভায় ভক্তারা এ দাবি করেন। মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হক জোসেফের পরিচালনায় সভাপতি মকবুল হোসেন মুকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটি কুয়ালালামপুরের সিনিয়র প্রফেসর ডা. এটিএম এমদাদুল হক।  আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সাজাপ্রাপ্ত খুনিরা বিদেশে পালিয়ে থেকে দেশবিরোধী যড়ষন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তাই তাদের এই ষড়যন্ত্রে রুখে দিতে এখনই পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। বক্তারা আরো বলেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তার আদর্শ এবং দর্শনকে হত্যা করতে পারেনি।  দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামিদের ফাঁসি হয়ে যাওয়ার সাত বছর পরও তাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে না পারায় আমরা চিন্তিত।  আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন পান্না, বিশেষ অতিথি মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামন কামাল, সহ-সভাপতি কায়ূম সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীন সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মুরাদ চৌধুরী, যুবলীগের আহ্বায়াক কমিটির সদস্য জহিরুল ইসলাম জহির, আশফাকুল ইসলাম ব্রাউন সোহেল প্রমুখ।   আলোচনা সভা শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও অন্যান্য শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।    এমএইচ/এসি     

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি