ঢাকা, রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ১:৩০:১৫

খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে যে মন্তব্য করলেন তসলিমা নাসরিন!

খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে যে মন্তব্য করলেন তসলিমা নাসরিন!

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগির নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ভীতিকর মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। সম্প্রতি ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার ঘটনাকে উল্লেখ করে বাংলাদেশের দূতাবাসে যেতে ভয় পাচ্ছেন বলে জানান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তসলিমা নাসরিনকে নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসটি  তুলে ধরা হলো- ‘সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে কুচি কুচি করে কেটে ফেলেছে সৌদি রাজ পরিবারের কাছের লোকেরা। তাও আবার ইস্তানবুলের সৌদি দূতাবাসের ভেতর। বাংলাদেশ তো সৌদি আরব নামক পবিত্র ভূমির পুজো আচ্চা করে চলে। সৌদি আরবের অনুকরণ করেই চলেছে দেশটি। এখন ভাবছি আমি যে আমার বাংলাদেশ পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য, বা বিদেশি পাসপোর্টে বাংলাদেশের ভিসা নেওয়ার জন্য, বা পাওয়ার অব এটর্নি সত্যায়িত করার জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসে মাঝে মধ্যে যাই, যদিও ওরা কিছুই দেয় না, না রিনিউ, না ভিসা, না সত্যায়িতের সই, সেই যাওয়া আমার বন্ধ করে দিতে হবে। আমার উপস্থিতি দূতাবাসের লোকদের যথেষ্ট ইরিটেট করে। তারা তো আমাকে কুচি কুচি করে কেটে ফেলবে একদিন। ঠিক যেমন সৌদি আরব কেটেছে জামাল খাশোগির মতো নির্ভীক সাংবাদিককে। কেআই/ এসএইচ/  
মালয়েশিয়া দূতাবাসের সেবা পরিদর্শন করলেন নজিবুর রহমান

মালয়েশিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের কন্স্যুলার সেবা পরিদর্শন করলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান।  বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় মালয়েশিয়ার জালান বেছার আম্পাং  দূতাবাসের পাসপোর্ট শাখা পরিদর্শনে যান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন, রাষ্ট্রদূত মুহ. শহীদুল ইসলাম, পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার উইং প্রধান মো. মশিউর রহমান তালুকদার, পাসপোর্ট বিভাগের এডিশনাল প্রজেক্ট ডাইরেক্টর মো. জুল ফিকার আলী, প্রথম সচিব (বাণিজ্য) মো. রাজিবুল আহসান, ২য় সচিব (শ্রম) মো. ফরিদ আহমদ, পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার অফিস সহকারী সুশান্ত সরকার প্রমুখ।   প্রবাসী কর্মীদের উদ্দেশ্যে মূখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান বলেন, জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির পাশাপাশি মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। সফল ও দক্ষ কার্যক্রমের সুফল হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্বদরবারে সুপরিচিত। ডিজিটাল পাসপোর্ট তৈরি এবং নবায়ন থেকে শুরু করে সব সেবাই আপনারা পাবেন। হাইকমিশনের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী সর্বদা আপনাদেরকে সেবা দিতে প্রস্তুত রয়েছেন। এক প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত মুহ. শহীদুল ইসলাম বলেন, আমাদের মিশন শ্রমিকবান্ধব হওয়ায় দূতাবাস ছাড়া দেশটির প্রত্যেকটি প্রদেশে গত এক বছর ধরে আপনাদের সেবা দিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রতি মাসে শনিবার থেকে রোববার মালয়েশিয়ার জহুর বারু, পেনাং, মালাক্কা, ক্লাং এ কন্স্যুলার সেবা দেওয়া হচ্ছে। রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, মালয়েশিয়া সরকার অবৈধদের বৈধতার প্রোগ্রামে যারা নিবন্ধিত হয়েছেন যা সর্বমোট আবেদনের যথাক্রমে ৫৭ শতাংশ এবং ৮৯ শতাংশ বাংলাদেশিদের।  এই অভূতপূর্ব সাড়ার উচ্ছসিত প্রশংসা করেন এ কর্মকর্তা এবং উভয় দেশের মধ্যে সহযোগিতার প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। কন্স্যুলার সেবা পরিদর্শন শেষে সাড়ে ১১টায় কুয়ালালামপুর জালান সুলতান ইয়াহিয়া পেট্রা দূতাবাসের মূল কন্স্যুলার অফিসে রাষ্ট্রদূত মহ. শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এক জরুরি বৈঠকে মিলিত হন মূখ্য সচিব। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ দূতাবাসের ডেপুটি হাই কমিশনার ওয়াহিদা আহমেদ, শ্রম কাউন্সিলর ও অতিরিক্ত সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম, প্রতিরক্ষা বিভাগের উইং প্রদান এয়ার কমডোর মো. হুমায়ূন কবির প্রমুখ।   এসএইচ/

বাহরাইনে ভবনধসে ৪ বাংলাদেশি নিহত, আহত ২৬   

বাহরাইনের রাজধানী মানামায় বহুতল ভবনধসে ৪ বাংলাদেশি নিহত হয়েছে। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ২৬ জন। তাদের মধ্যে ২ জনের আশঙ্কাজনক।    দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার সকালে এক টুইট বার্তায় জানায়, ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। অপরদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আরও একজন। নিহতরা হলেন, চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার পরানপুর গ্রামের আবদুল হান্নান, হাজীগঞ্জ উপজেলার জাকির, কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার জয়নাল। নিহত অপরজনের নাম আলো মিয়া। তাৎক্ষণিকভাবে তার সঠিক ঠিকানা জানা যায়নি। তিনতলা ওই ভবনটিতে অর্ধশত বাংলাদেশি শ্রমিক ছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে, দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন মারাত্মক আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মানামার আল মির্জা সড়কের পাশে নেস্ট সুপার মার্কেট-সংলগ্ন তিনতলা বিশিষ্ট ওই ভবনধসের ঘটনা ঘটে। কেআই/এসি   

জনগণের ক্ষমতায়ন দিবস উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় যুবলীগের সভা

সফল রাস্ট্র নায়ক শেখ হাসিনার জন্মদিনকে জনগণের ক্ষমতায়ন দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা করায় মালয়েশিয়ায় আলোচনা সভা করেছে আওয়ামী যুবলীগ। রোববার রাত ৮টায় রাজধানী কুয়ালালামপুরের হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালের বলরুমে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মালয়েশিয়া যুবলীগের আহ্বায়ক তাজকীর আহমেদের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক মনসুর আল বাশার সোহেলের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, দাউদকান্দি উপজেলার চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী।  বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য আরেফিন মোল্লা। সভায় অন্যানের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, মার্শাল পাবেল, আমান উল্লাহ আমান, মো. আশরাফুল ইসলাম সোহেল, মালয়েশিয়া সেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি মো. জালাল উদ্দিন সেলিম প্রমূখ।   এসএইচ/

শ্রমবাজারের অচলাবস্থা কাটাতে মালয়েশিয়ায় বৈঠক

সব জ্বল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার নিয়ে চলতে থাকা ধোঁয়াশা শেষ হতে চলেছে। জি-টু-জি-প্লাস পদ্ধতিতে ১০টি এজেন্সির বদলে সব বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে কর্মী পাঠানো হবে মায়েশিয়ায়।  প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে মালয়েশিয়া সফররত বাংলাদেশি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে দেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের দু’দফা বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। প্রায় এক মাস বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার প্রশাসনিক রাজধানী পুত্রাজায়ায় দু’দেশের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।  কর্মী-সংক্রান্ত ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী এবং মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী কুলা সেগারান নেতৃত্ব দেন। মালয়েশিয়া বাংলাদেশের জন্য বড় একটি শ্রমবাজার। দেশটিতে দশ লাখের বেশি কর্মী কাজ করছে। গেলো দেড় বছরে এসেছে প্রায় দুই লাখের মতো কর্মী।  জিটুজি প্লাস পদ্ধতিতে এই কর্মী আসলেও ১ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ হয়ে যায় এর অনলাইন সিস্টেম এসপিপিএ। প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মুহাম্মদের আগের ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশের বৈধ সব রিক্রুটিং এজেন্সির জন্য মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কুয়ালালামপুরে এক সাক্ষাতে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি এ সময় জানান, যারা অবৈধ আছে এবং দশ বছরের বেশি মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছে তাদের ভিসা দেয়ার বিষয়েও ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। জানা গেছে, নতুন অনলাইন সিস্টেম চালুর আগে পাইপ লাইনে থাকাদের ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে সকল কাজ চলবে।  নাম সর্বশ্য নয়, যোগ্য সব এজেন্সি এই সুযোগ পাবে। বৈঠকে রাষ্ট্রদূত মুহা. শহীদুল ইসলাম জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, অতিরিক্ত সচিব আহমেদ মনিরুছ সালেহিন (কর্মসংস্থান), মন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. আবুল হাছানাত হুমায়ূন কবীর, উপ-সচিব মোহাম্মদ সাহিন (কর্মসংস্থান), পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ডিজি ও একজন উপ-সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক মো. মোশাররফ হোসেন, আইন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সানজিদা শারমিন, দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এসময় এমওইউ মোতাবেক দুই দেশের যৌথ ওয়ার্কিং কমিটির সদস্যরা মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে বৈঠক করেন তারা। এদিকে, জিটুজি প্লাস পদ্ধতিতে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর অনলাইন সিস্টেম এসপিপিএ ১ সেপ্টেম্বর বন্ধ হয়ে যায়।  কথা ছিল পাইপলাইনে থাকা কর্মীদের সব কাজ চলবে।  কিন্তু এখন চিত্র সম্পূর্ণ উল্টো।  কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে দেয়া হচ্ছে না ভিসার সত্যায়ন।  বন্ধ আছে ঢাকায় মালয়েশিয়ান হাইকমিশনের ভিসা স্ট্যাম্পিংও। উল্লেখ্য, বর্তমানে বাংলাদেশে অনুমোদিত রিক্রুটিং এজেন্সির সংখ্যা ১ হাজার ১৭৯টি। ২০১২ সালে দুই দেশ শুধু সরকারি মাধ্যমে জি টু জি পদ্ধতিতে মালয়েশিয়ায় লোক পাঠাতে চুক্তি সই করে।  ২০১৬ সালের তা পরিমার্জন করে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ১০টি বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সিকে জি টু জি প্লাসের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়।  ২০১৬ সালের শেষের দিক থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত প্রায় ২ লাখ শ্রমিক মালয়েশিয়া গেছেন।  এর মধ্যে ২০১৮ সালে জুলাই মাস পর্যন্ত ১ লাখ ৯ হাজার ৫৬২ জন শ্রমিক পাঠায় বাংলাদেশ। কেআই/ এসএইচ/  

বেশ কিছু প্রত্যাশার কথা জানিয়েছে প্রবাসীরা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুক্তরাষ্ট্র সফরে বেশ কিছু প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন এখানকার প্রবাসী বাঙালিরা। গেল তিনদিন বাঙালিদের অক্সিজেন ব্যাংক হিসেব পরিচিত জ্যাকসনের হাইটসে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল তাদের কিছু দাবির কথা। সিলেট হবিগঞ্জের বাসিন্দা জসীম চৌধুরী গেল ২৩ বছর ধরে বাস করছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে। তাঁর মতোই ঢাকার সাংবাদিক মুজাহিদ আনসারী দাবি করেছেন বাংলাদেশ বিমান পুনরায় চালুকরণের। বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট অনেকদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। ইতোপূর্বে এ নিয়ে অনেক দাবি জানানো হয়েছে। প্রবাসীদের কথা বিবেচনা করে দ্রুত ঢাকা-নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট শুরুর যাবতীয় উদ্যোগ নেয়ার দাবি করেছেন সবাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের নেতা হিসেবে ১৯৭৪ সালের সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে ভাষণ দিয়েছিলেন। বিশ্বসভায় দাঁড়িয়ে সদ্য স্বাধীন দেশের নেতার দেওয়া সেই বক্তৃতা আজও আন্তর্জাতিক মহলে সমাদৃত। শেখ হাসিনাও বহুবার জাতিসংঘে এসেছেন। বেশ গুরুত্বের সংগে আন্তর্জাতিক, আঞ্চলিক ও জাতীয় বিষয় তুলে ধরেছেন। তবে যতবারই তিনি এ দেশে এসেছেন প্রবাসীরা দাবি জানিয়েছেন তাদের অনেক চাওয়াপাওয়ার। দেশে প্রবাসীদের রেখে আসা সম্পদের নিরাপত্তা প্রদানের কথাও বলেছেন বেশ ক’জন। প্রবাসে থাকার কারণে অনেকের সম্পদ দেশে বেদখল হচ্ছে। মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে সম্পদ দখলের চেষ্টা নিয়মিত ঘটনা। এ সব বন্ধ করতে সরকার কঠোর হবে-এমনটা আশা করছেন সবাই। হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে হয়রানি কমানোর জন্য সরকারকে সাধুবাদ জানিয়েছেন ওয়াশিংটনে বসবাসকারী সাংবাদিক জাহিদ রহমান। তবে এখনো পুরোদমে বন্ধ না হওয়ায় মৃদু উষ্মা প্রকাশ করেন তিনি। দেশের বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি, লাগেজ হারিয়ে যাওয়া, অকারণে সময়ক্ষেপণ হওয়ায় অনেকেই ক্ষুব্ধ। দেশে যাওয়া-আসার পথে বিমানবন্দরে সাধারণ প্রবাসীদের হয়রানি নিয়ে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নের দাবি তাদের। প্রবাসীদের দেখভালের জন্য প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের এ মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম সম্পর্কে স্বচ্ছ কোনো ধারণা নেই। প্রবাসীদের নানা ধরনের সেবা দেওয়ার জন্য এই মন্ত্রণালয়কে আরও বেশি সময়োপযোগী করার দাবিও উঠে এসেছে ব্যবসায়ীদের কথাবার্তায়।  আমেরিকার বাংলাদেশি অধ্যুষিত নগরীগুলোতে কনস্যুলেট সেবা বাড়ানোর জন্য পর্যাপ্ত লোকবলের ব্যবস্থা এখনো হয় নি। নিউইয়র্কের কনস্যুলেট অফিসেও সাধারণ প্রবাসীদের সেবা প্রদানে লোক স্বল্পতার কারণে কর্মকর্তাদের হিমশিম খেতে হয়। এই সেবা গ্রহণ দ্রুত ও সহজ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে জোর দাবি রয়েছে প্রবাসীদের।  যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা যাতে সহজে দেশে বিনিয়োগ ও সঞ্চয় করতে পারে সে ব্যাপারে স্বচ্ছ ধারণাপত্র চেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসীরা।এ ক্ষেত্রে সার্বিকভাবে ঝুঁকিমুক্ত থাকতে চান তাঁরা। চান বিনিয়োগের নিরাপত্তা। এই কাজের জন্য সরকারকে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহিত করার কথা বলেছেন তাঁরা।এতে প্রবাসীরা যেমন উপকৃত হবেন তেমনি দেশের বৈদেশিক মুদ্রার ভান্ডারও সমৃদ্ধ হবে বলে মত দিয়েছেন এনআরবি ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইনকরপোরেশনের প্রধান নির্বাহী বিশ্বজিত সাহা। প্রবাসীদের জন্য ‘ওয়ান স্টপ’ সার্ভিস চালু করার দাবিও উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী সাখাওয়াত চনচলের কথায়। প্রবাসের ব্যস্ত জীবন থেকে স্বল্প সময়ের জন্য তাঁরা দেশে যান। দেশে যেকোনো কাজের জন্য তাঁরা দীর্ঘসূত্রতার সম্মুখীন হন। তাঁদের ধারণা, ‘ওয়ান স্টপ’ সার্ভিস চালু করলে এই সমস্যা দুর হবে। ফ্লোরিডা স্টেট যুবলীগের সভাপতি সঞ্জয় সাহার অভিমত, সময় এসেছে নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট অফিসের জন্য নিজস্ব ভবন নির্মাণের। নিউইয়র্ক এখন বাংলাদেশি প্রবাসীদের সংখ্যা উল্লেখ করার মতো। তাই সুপরিসর জায়গায় নিজস্ব ভবনে বাংলাদেশ কনস্যুলেট অফিস হবে, সেখানে প্রবাসীদের জন্য মিলনায়তন, পাঠাগার থাকবে এমনপ্রত্যাশা সবারই।সবমিলে প্রবাসের বাঙালিরা যাতে মিলেমিশে ভালো থাকতে পারেন তেমন দাবি উঠে এসেছে সবার কথাবার্তায়। এসএ/

মালয়েশিয়ায় ৫৫ বাংলাদেশি আটক

মালয়েশিয়ায় সাঁড়াশি অভিযানে ৫৫ বাংলাদেশিসহ ৩৩৮ বিদেশি শ্রমিককে আটক করা হয়েছে। দেশটির সাইবারজায়া শহরে তল্লাশি চালিয়ে তাদের আটক করা হয় বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার অভিবাসন দফতরের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তাফার আলী। তিনি জানান, অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে সেপ্টেম্বরের প্রথম থেকে ‘অপস মেগা ৩.০’ নামে সাঁড়াশি অভিযানের অংশ হিসেবে সাইবারজায়া শহরে তল্লাশি চালানো হয়।এ সময় ২ হাজার ২৩০ জন বিদেশি শ্রমিকের কাগজপত্র যাচাই করা হয়েছে। সেখান থেকে ৩৩৮ জনের নথিপত্র বৈধ না হওয়ায় তাদের আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৫৫ জন বাংলাদেশি, ২০৮ জন ইন্দোনেশিয়ান, ২৮ জন বর্মী এবং ৪৭ জন নেপালি রয়েছেন। মালয়েশিয়া অভিবাসন দফতরের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তাফার আলীর ভাষ্য, আটককৃতদের বেশির ভাগই এক কোম্পানির পরিচয়ে এসে অন্য কোম্পানির কর্মী হিসেবে কাজ করছিলেন। এই জালিয়াতিতে অল্প কিছু কোম্পানিই জড়িত। আটককৃতদের বুকিত জালিল ইমিগ্রেশন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি। মালয়েশিয়ায় বৈধ নথিপত্র ছাড়া অবস্থানরত বিদেশিদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। অবৈধ শ্রমিকদের স্বদেশে ফেরত যেতে বেঁধে দেয়া সময়সীমা আগস্টে শেষ হওয়ার পর এই সাঁড়াশি অভিযানে নামে অভিবাসন দফতর। এর আগে `সাধারণ ক্ষমা` ঘোষণা করে মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিকদের আট হাজার টাকা পরিশোধের বিনিময়ে স্বদেশে ফেরত যাওয়ার সুযোগ দেয়া হয়। আরকে//

সুইডেনে সিটি কাউন্সিলর বাংলাদেশি যুবক

সুইডেনের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে এক বাংলাদেশি সিটি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এই সিটি নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে রুহুল আমিন বিল্লাল বিজয়ী হয়েছেন। দেশটির রাজধানী স্টকহোম সিটির কমুনে দি সিগটুনা কাউন্সিল পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন রুহুল আমিন বিল্লাল। তিনি লিবারেল রাজনৈতিক পার্টি থেকে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়ে জয়লাভ  করেছেন। সুইডেনের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বাংলাদেশির বিজয় অনন্য মাইলফলক বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। তার দেশের বাড়ি গাজীপুর। পিতা মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. সামসুল হক। প্রবাসে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বিজয়ের পর এক প্রতিক্রিয়ায় স্থানীয় সকল প্রবাসী ভোটারদের কাছে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন। এই প্রথমবারের মতো দেশের বাহিরে এত বড় পরিসরে নির্বাচনে বিজয়ী হতে পেরে নিজেকে  ভাগ্যবান বলে মনে করেন বাংলাদেশি  এই কাউন্সিলর। সুইডেন যুবদলের নেতা কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপি সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব, বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজা, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আলম হোসেন, জার্মান বিএনপির সভাপতি আকুল মিয়া, সাধারণ সম্পাদক গনি সরকার। কেআই/ 

মালয়েশিয়ায় ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার

মালয়েশিয়ার নিলাই শহর থেকে ৬৫ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে দেশটির অভিবাসন দফতর। আটক করা হয়েছে বিদেশী কর্মী সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের দুই কর্মকর্তাকে। অভিবাসন দপ্তর জানিয়েছে, মানব পাচারকারী চক্রের প্রতারণার শিকার হয়েছেন এসব বাংলাদেশীরা। এ ঘটনায় এরইমধ্যে মানবপাচারবিরোধী আইনে তদন্ত শুরু করেছে দেশটি। উন্নত জীবন গড়তে মালয়েশিয়ায় স্বপ্নযাত্রা। বৈধ না অবৈধ- কোন পথে যাচ্ছেন? তা জানা অনেকের জন্যই ছিল কঠিন। অনেকক্ষেত্রেই এই স্বপ্নযাত্রা থেমে যায় মানবপাচারকারীদের শৃঙ্খলে। বন্দি জীবন কাটে প্রতারক প্রতিষ্ঠানের ডরমিটরিতে। মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরে এরকমই এক সিন্ডিকেট অফিসে আটকা পড়েছিলেন ৬৫ বাংলাদেশী। মঙ্গলবার দেশটির অভিবাসন বিভাগ অভিযান চালিয়ে তাদের উদ্ধার করে। পাওয়া যায় ৩৭৭টি পাসপোর্ট। এরমধ্যে ৩৬১টি পাসপোর্টই বাংলাদেশীদের। অভিবাসন দফতরের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মুস্তাফার আলী জানান, মানব পাচারের শিকার এসব বাংলাদেশীরা কয়েক মাস ধরে বেতন পাননি। উল্টো ৩০০ থেকে ৫০০ রিংগিত ধার নিতে বাধ্য করা হয়েছিল তাদের। জব্দ করা হয় মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির স্বাক্ষরিত চুক্তির কপিসহ ৬১টি নথি। আটক করা হয় কোম্পানির পরিচালক কমিটির দুই সদস্যকে। বিদেশি শ্রমিক কোটার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেতে কোম্পানিটির প্রতারণার বিষয়টি বেরিয়ে এসেছে প্রাথমিক তদন্তে। অবৈধ অভিবাসীদের মালয়েশিয়া ছাড়ার সময়সীমা শেষ হয় ৩১ আগস্ট। পরদিন থেকেই অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে মেগা থ্রি নামে অভিযানে নামে মালয় সরকার। এশিয়ান নেটওয়ার্ক সংস্থা বলছে, গেল ৮ মাসে ৭ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশী আটক হয়েছেন। দেশটিতে বর্তমানে ১০ লাখেরও বেশি বাংলাদেশী রয়েছেন।

মালয়েশিয়ায় জিম্মি ৬৫ বাংলাদেশিসহ ৩৭৭ পাসপোর্ট উদ্ধার 

মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরের একটি অফিস থেকে ৩৭৭টি পাসপোর্টসহ ৬৫ জন প্রবাসী বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে সে দেশের অভিবাসন বিভাগ। এ সময় কোম্পানির একজন কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানা গেছে।      বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তফা আলী সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন যাবত অবৈধদের বৈধ করার নামে প্রতারণাসহ জাল ভিসা তৈরির অভিযোগ ছিল কোম্পানিটির বিরুদ্ধে।  এছাড়া কোম্পানিটি দীর্ঘদিন যাবত অভিবাসী শ্রমিকদের জিম্মি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। উদ্ধারকৃত বাংলাদেশীরা জানান, দীর্ঘ পাঁচ মাস যাবত বেতন না দিয়ে রুমের ভিতর তাদেরকে আটকে রেখে ছিলো। এছাড়া বিভিন্ন কোম্পানির কাছে এ সব বাংলাদেশি শ্রমিকদের ১৮০০ থেকে ২০০০ মালয় রিংগিতের বিনিময়ে বিক্রি করতো বলে তারা জানান।    উল্লেখ্য, সম্প্রতি আরও একটি বড় সিন্ডিকেটকে নিলাই থেকে গ্রেফতার করে অভিবাসন বিভাগ। কেআই/এসি     

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি