ঢাকা, সোমবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, || অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৮

বিধ্বস্ত লাতিন আমেরিকা, ব্রাজিলেই প্রাণহানি ২৯ হাজার 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:২৩, ১ জুন ২০২০

বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়া করোনা ভাইরাস এবার জেঁকে বসেছে লাতিন আমেরিকায়। এশিয়ার চীন-ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য-আমেরিকা এবার সেখান থেকে করোনা ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে লাতিন আমেরিকায়। 

একদিন আগেই এ অঞ্চলে ৫০ হাজার ছাড়িয়ে যায় প্রাণহানি। অবস্থা আরও গুরুতর হতে পারে বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা। যাতে সবচেয়ে ভুগছে ব্রাজিল। 

আতিন আমেরিকার সর্ববৃহৎ দেশটি ইতিমধ্যে প্রাণহানিতে ইউরোপের স্পেন, ফ্রান্সকেও ছাড়িয়ে গেছে। ফলে, চরম বিপর্যয়ের মুখে বিশ্বের পঞ্চম বৃহৎ এ দেশ। 

তবে করোনা শুধু যে ব্রাজিলকে কাঁপাচ্ছে তা নয়, ভাইরাসটি দাপট দেখাচ্ছে সহগোত্রীয় পেরু, চিলি, এল সালভেদর, গুয়েতেমালা ও নিকারগুয়া, আর্জেন্টিনা, পানামার মতো দেশগুলাতে। যেখানে হু হু করে বাড়ছে সংক্রমণ, স্বজন হারা হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। 

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬  হাজার ৪০৯ জনের দেহে মিলেছে করোনা সংক্রমণ। এতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ১৪ হাজার ৮৪৯ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণ গেছে ৪৮০ জনের। এ নিয়ে লাতিন আমেরিকার দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২৯ হাজার ৩১৪ জনে ঠেকেছে। যদিও এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২ লাখ সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ। 

সর্বোচ্চ মৃত্যুতে ব্রাজিল এখন চতুর্থ রাষ্ট্র। উপরে আছে ইতালি, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা লাখ ছাড়িয়েছে। 

এদিকে আক্রান্ত ও প্রাণহানির এমন হারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থা-ডব্লিউএইচও। 

সংস্থাটির বলছে, ‘চলমান অবস্থা অব্যাহত থাকলে আগামী আগস্টের মধ্যে লাতিন আমেরিকার দেশটিতে মৃতের সংখ্যা সোয়া লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে। শুধু তাই, এ অঞ্চলের অন্যান্য দেশেও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে করোনা।’

লাতিন আমেরিকার আরেক দেশ পেরুতে আক্রান্ত ১ লাখ ৬৪ হাজার ছাড়িয়েছে। প্রাণহানি সাড়ে ৪ হাজারের বেশি। চিলিতে সংক্রমিতের সংখ্যা ১ লাখ ছুঁই ছুঁই। সেখানে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

মেক্সিতো সাড়ে ৯০ হাজার ছাড়িয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা, প্রাণহানি ১০ হাজার ছুঁই ছুঁই। ইকুয়েডরে ৩৯ হাজার ছাড়িয়েছে সংক্রমণ, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩৫৮ জনের। 

এদিকে, রোগটি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় চাপে রয়েছে ব্রাজিলের প্রশাসন। অভিশংসনের ঝুঁকিতে রয়েছেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো। তবে এসবের দায় তিনি নিতে নারাজ।

এআই//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি