ঢাকা, বুধবার   ২৭ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ১১ ১৪২৮

করোনার প্রভাবে ৩৩ দেশে স্কুল বন্ধ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৪৪, ১১ মার্চ ২০২০ | আপডেট: ১০:২১, ১৬ মার্চ ২০২০

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের বিস্তার এখন বিশ্বজুড়ে। এর মধ্যে এ ভাইরাসের ধাক্কায় বিশ্ব রাজনীতি, অর্থনীতিসহ সব সেক্টরেই প্রভাব পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে ভাবনায় পড়েছেন বিশ্ব নেতারা। করোনার প্রতিষোধক অবিস্কারের চেষ্টাও চলছে। এ ভাইরাসের কারণে বিভিন্ন দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

ইউনেস্কোর তথ্যমতে, অন্তত ৩৩টি দেশ এ ভাইরাস থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষায় স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে। ১৭টি দেশ পুরো রাষ্ট্রে এবং ১৬টি দেশে বিশেষ বিশেষ অঞ্চলে বন্ধ করেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এতে ১৭টি দেশের ৩৬৩ মিলিয়নের বেশি শিক্ষার্থী এবং ১৬টি দেশের ৫৬৭ মিলিয়ন শিক্ষার্থী শিক্ষা বঞ্চিত হচ্ছেন। 

যেসব দেশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করেছে- চীন, ইতালি, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, মঙ্গোলিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, জর্জিয়া, ইরাক, কুয়েত, লেবানন, কাতার, উত্তর কোরিয়া, পোল্যান্ড, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

যেসব দেশের বিশেষ অঞ্চলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করেছে- আফগানিস্তান তাদের হেরাত প্রদেশে; ভুটান রাজধানী জেলা থিম্পু, পারো, পুনাখা; কম্বোডিয়া সিয়েম রিপ প্রদেশে; ফ্রান্স ওঁইস ও হ্যত-রিন, কোরসিকা এবং আরও কিছু শহরে; জার্মানি বাভারিয়া, নর্দেইন-ওয়েস্তফলেন, ব্রান্দেবার্গ, বাদেন-উর্তামবার্গ ও নিয়েদারসাখসেনসহ কিছু শহরে; গ্রিস আচায়ি, জান্তে ও ইলিস অঞ্চলে; ভারত দিল্লি অঞ্চল, কাশ্মীরের জম্মু ও সাম্বা জেলা এবং কেরালার পাথানামথিত্তা ও কোত্তাম জেলায়; 
পাকিস্তানে সিন্ধ প্রদেশে; ফিলিস্তিন পশ্চিম তীরে; ফিলিপাইন ম্যানিলা সিটি, কালাবারজোন, মধ্যাঞ্চলীয় লুজন ও ইয়োকস অঞ্চলে; যুক্তরাষ্ট্র ক্যালিফোর্নিয়া, কোলোরাডো, ফ্লোরিডা, জর্জিয়া, ইডাহো, ইলিনয়স, ইন্ডিয়ানা, কেন্টাকি, ম্যাসাচুসেটস, মিসৌরি, নেব্রাস্কা, নিউ হ্যাম্পশায়ার, নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, পেনসিলভানিয়া, রোডে আইল্যান্ড, সাউথ ক্যারোলিনা, টেনেসে, ভার্জিনিয়া, ভারমন্ট ও ওয়াশিংটনে; ব্রিটেন ও নর্দার্ন আইয়ারল্যান্ড টেটবুরি, নর্থউইচ, মিডলসবারা ও ব্রিক্সামে, ইউক্রেন চেরনিবৎসি ওব্লাস্তে; পর্তুগাল ও স্লোভাকিয়া বেশ কিছু অঞ্চল ও শহরে এবং ভিয়েতনাম হ্যানয়, হো চি মিন চিটিসহ বেশ কিছু শহর ও অঞ্চলে বিভিন্ন স্তরে স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এখন পর্যন্ত ১ লাখ ১৬ হাজার ৬০০ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ৪ হাজার ২৫৮ জন। অপরদিকে করোনায় আক্রান্ত ৬৪ হাজার ২১৪ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছে।

বিশ্বের ১১৪টি দেশ ও অঞ্চলে এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়েছে। শুধুমাত্র চীনের মূল ভূখণ্ডেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৫৪ এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ১৩৬ জনের। চীনের পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে। দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ১৪৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬৩১ জনের।

এদিকে ইতালিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১৪৯ জনে। এমন পরিস্থিতিতে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার। অপরদিকে, ইরানে এখন পর্যন্ত ৮ হাজার ৪২ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ২৯১ জন।

জাপানে নোঙ্গর করা প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের ৬৯৬ যাত্রী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। জার্মানিতে এই ভাইরাসে ১১৩৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। ফ্রান্সে ১৬০৬ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ৩০ জন। জাপানে আক্রান্ত হয়েছে ৫৫৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের।

স্পেনে আক্রান্ত ১৬২২ এবং মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের, যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ৫২৫, মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের। সুইজারল্যান্ডে আক্রান্ত ৩৩২ এবং মারা গেছে ২ জন, যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ৩১৯ মৃত্যু ৫। ইরাকে আক্রান্ত ৬০, মৃত্যু ৬। ভারতে ৪৩ জন আক্রান্ত হয়েছে। তবে দেশটিতে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত কোনো রোগীর প্রাণহানি ঘটেনি।

এছাড়া, সুইডেনে আক্রান্ত ২৪৮, সিঙ্গাপুরে ১৬৬, নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৩৮২ এবং মৃত্যু ৩, নরওয়েতে আক্রান্ত ১৭৬, বেলজিয়ামে ২৩৯, হংকংয়ে আক্রান্ত ১১৫ এবং মৃত্যু ৩, মালয়েশিয়ায় ১২৯, অস্ট্রিয়ায় ১৩১, অস্ট্রেলিয়ায় আক্রান্ত ১০০, মৃত্যু ৩, বাহরাইনে ৮৮, কুয়েতে ৬৯, কানাডায় ৭৭, থাইল্যান্ডে ৫৩ এবং মৃত্যু ১, তাইওয়ানে আক্রান্ত ৪৫ এবং মৃত্যু ১, গ্রিসে ৭৩, আমিরাতে ৪৫, আইসল্যান্ডে ৫৮, সান মারিনোতে ৩৬ জন আক্রান্ত এবং মৃত্যু ১, ডেনমার্কে আক্রান্ত ৩৫, লেবাননে ৩২, ইসরাইলে ৩৯, চেক রিপাবলিকে ৩২, আয়ারল্যান্ডে ২১, আলজেরিয়াতে ২০ এবং ভিয়েতনামে ৩০ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

অপরদিকে, ওমানে ১৮, ফিলিস্তিনে ২৫, মিসরে ১৮, ফিনল্যান্ডে ২৬, ব্রাজিলে ২৭, ইকুয়েডরে ১৬, পর্তুগালে ৩৩, রাশিয়াতে ২০, ক্রোয়েশিয়ায় ১৩, কাতারে ১৭, ম্যাকাউতে ১১, এস্তোনিয়ায় ১১, জর্জিয়ায় ১৪, রোমানিয়ায় ১৬, আর্জেন্টিনায় ১৪, স্লোভেনিয়ায় ১৭, আজারবাইজানে ১০, বেলারুশে ৭, মেক্সিকোতে ৮, পাকিস্তানে ৭, ফিলিপাইনে আক্রান্ত ১১ এবং মৃত্যু ১, সৌদি আরবে ১৬, চিলিতে ১০, পোল্যান্ডে ১১, স্লোভাকিয়ায় ৫, পেরু ৭, ইন্দোনেশিয়ায় ৬, নিউজিল্যান্ডে ৫, সেনেগালে ৪ ও হাঙ্গেরিতে ৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

এ ছাড়া লুক্সেমবার্গে ৫, উত্তর মেসিডোনিয়ায় ৩, বসনিয়ায় ৩, ডোমিনিক প্রজাতন্ত্রে ৫, মরক্কোতে ২, আফগানিস্তান ৪, কম্বোডিয়া ২, বুলগেরিয়া ৪, ক্যামেরুন ২, মালদ্বীপ ৪, দক্ষিণ আফ্রিকা ৩, লাটভিয়ায় ৩, বাংলাদেশে ৩ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

অপরদিকে, আন্দোরা, আর্মেনিয়া, জর্ডান, লিথুনিয়া, মোনাকো, নেপাল, নাইজেরিয়া, শ্রীলঙ্কা, তিউনিসিয়া, ইউক্রেন, ভুটান, কোস্টারিকা, ভ্যাটিকান সিটি, গিব্রালটার, সার্বিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং টোগোতে একজন করে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

এমএস/এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি