ঢাকা, সোমবার   ১৪ জুন ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪২৮

চলচ্চিত্র অভিনেতা ফারুক

‘১৯ বার আমাকে বঞ্চিত করা হয়েছে’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:২০, ৯ জুলাই ২০১৮ | আপডেট: ১২:২১, ৯ জুলাই ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে [বিআইসিসি] এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৬ প্রদান করেছেন। রোববার বিকেলে ২৪ ক্যাটাগরিতে শিল্পী ও কলাকুশলীর মধ্যে এ পুরস্কার বিতরণ করেন তিনি। অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার দেওয়া হয়েছে চলচ্চিত্র অভিনেতা আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ও অভিনেত্রী ফরিদা আক্তার ববিতাকে।

পুরস্কার প্রাপ্তির পর একুশে টেলিভিশনের নিয়মিত অনুষ্ঠান ‘একুশের রাত’-এ অতিথি হয়ে এসেছিলেন চিত্রনায়িক চলচ্চিত্র অভিনেতা আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। অনুষ্ঠান উপস্থাপক ছিলেন- অঞ্জন রায়।

অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন অভিনেতা ফারুক।

শুরুতে চিত্রনায়ক ফারুক বলেন, ‘প্রথমেই বলতে হয় ববিতার কথা। তিনি তো অসাধারণ অভিনেত্রী। তার অভিনয়ের ধারেকাছে অনেকেই যেতে পারবে না। উনি আজ যে সম্মান পেয়েছেন সে জন্য আমি তাকে অন্তর থেকে শুভেচ্ছা জানাই। আমি নিজেও মনে করি যে আমি ভাগ্যবান। কারণ তার সঙ্গে আমি বহু সিনেমা করেছি।’

পুরস্কার প্রাপ্তির অনুভুতি নিয়ে ফারুক বলেন, ‘এটা অনেক বড় সম্মান। আমরা সারাজীবন যে মেধা, শ্রম, কষ্ট করেছি তার জন্যই এই সম্মাননা। আমার মনে হয়, শিল্পীদের জন্য আরও কিছু করতে পারে সরকার। যেমন আমাদের ভিআইপি স্ট্যাটাস নেই, এটা শিল্পীদের থাকা জরুরি। আমি চলচ্চিত্র পরিবারকে ভালো রাখার জন্য কাজ করে যাচ্ছি। এ ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। চলচ্চিত্রে অসহায় শিল্পীদের দিকেও সরকারের দৃষ্টি দেওয়া দরকার।’

এ সময় আক্ষেপের সঙ্গে তিনি বলেন, ’১৯ বার আমাকে বঞ্চিত করা হয়েছে। কারণ একটাই বঙ্গবন্ধুর কথা বলা, এক কথা আপস না করা। বিষয়টি এমন যে- তুমি আসো আমাদের দলে, তা না হলে তোমার হবে না। শিল্প-সংস্কৃতিতে আমার মনে হয় এটা করা ঠিক না।’

বর্তমান চলচ্চিত্রের অবস্থা প্রসঙ্গে ফারুক বলেন, ‘চলচ্চিত্র তার নিজের গতি, নিজের জায়গা থেকে কথা বলে। চলচ্চিত্র নিয়ে যদি এখন কিছু বলতে যাই তবে বলবো- সিনেমা হলগুলো ঠিক করতে হবে। সিনেমা হলের মালিকেরা কিন্তু আমাদের এই পরিবারেরই একটি অংশ। এই বিষয়টিকে আমার ভাবতে হবে। আমার, বলছি এক কারণে যে- অনেকেই এটিকে আমার বলেন না। প্রথম কথা প্রেক্ষাগৃহের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে। সিনেমা কিন্তু থেকে নেই। নিয়মিতই তৈরি হচ্ছে।’

চলচ্চিত্রের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমার কি ইচ্ছে করে না যে কাজ করি। আমারও ইচ্ছে করে। যখন আমি বলবো যে- কাজ করব। তখন আসবে- চরিত্রটা কি? তখনই তারা বিপদে পড়ে যাবে। আমাকে যদি বলা হয় আপনি নায়িকার বাবার চরিত্র করেন আমি তো করব না। আমার জায়গা এটা না। আমার কাজ হচ্ছে সিনেমাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। আমার দর্শকরা কিন্তু আমাকে ভালোবাসে। ওই ভালোবাসাটাই আমাকে আনতে হবে। তাহলেই চলচ্চিত্রের জন্য উপকার হবে।’

পুরো অনুষ্ঠানটি দেখতে ভিডিওটি ক্লিক করুন :

এসএ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি