ঢাকা, সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৫ ১৪২৮

অভিনেত্রীর অপমৃত্যু, ডায়েরিতে প্রেমিকের দিকে অভিযোগ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৩৪, ২৩ জুন ২০২০ | আপডেট: ২২:৩৬, ২৩ জুন ২০২০

ধূমকেতুর মতো তাঁর কেরিয়ারের উত্থান দেখে দুঃস্বপ্নেও ভাবা যায়নি মাত্র ৩৭ বছর বয়সে তিনি নিজেই নিজেকে শেষ করে দেবেন। মডেল বিবেকা বাবাজি ও সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মতোই রহস্যমৃত্যু হয়েছিল। বিবেকার বাবা ছিলেন হায়দরাবাদি আর মা ছিলেন মহারাষ্ট্রের মেয়ে। তবে কর্মসূত্রে তাঁরা মরিশাসে থাকতেন। সেখানে ১৯৭৩-এর ২৭ মে পোর্ট লুই শহরে বিবেকার জন্ম। বিবেকা নব্বইয়ের দশকে মডেলিংয়ে কেরিয়ার তৈরির আশায় ভারতে চলে এসেছিলেন। অল্পবিস্তর মডেলিং করার পরেই তিনি প্রথম নজর কাড়েন কন্ডোমের বিজ্ঞাপনে।

ধীরে ধীরে তিনি বলিউডের জনপ্রিয় মডেলদের মধ্যে একজন  হয়ে ওঠেন। বিবেকা দেশের প্রথমসারির ডিজাইনার রিতু কুমার, আবু জানি, সন্দীপ খোসলা, তরুণ তহিলিয়ানী সঙ্গে কাজ করেছেন। তিনি নিজের সংস্থা শুরু করেছিলেন ২০০৯-এ। নাম দিয়েছিলেন ‘ক্রিম ইভেন্টস’। সে সময়কার প্রেমিক কার্তিক জোবনপুত্র তাঁর সঙ্গী ছিলেন। প্রেম ভেঙে যাওয়ার পরে বিবেকা সংস্থা থেকে সরে এসেছিলেন। পরের বছর তিনি নিজের একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থাও শুরু করেছিলেন। ব্যবসায়িক কাজের পাশাপাশি পর্দাতেও নিয়মিত ছিলেন বিবেকা। 

দালের মেহন্দির ‘বুম বুম’, হরভজন মানের ‘হায় মেরি বিল্লো’ মিউজিক অ্যালবামে নজর কেড়েছিলেন বিবেকা। এফ টিভিতে সঞ্চালনার কাজও করেছিলেন। মডেলিং, সঞ্চালনার পাশাপাশি শুরু হয় অভিনয়ও। বিবেকার প্রথম ও একমাত্র ছবি ‘ইয়ে ক্যায়সি মহব্বত’ ২০০২ সালে মুক্তি পায়। এই ছবিতে বিবেকার সহ কুশীলব ছিলেন দীপক তিজোরি, কৃষ্ণা অভিষেক এবং মুকেশ ঋষি। বক্স অফিসে সেরকম সাফল্য না পেলেও বিবেকার অভিনয় সবার চোখে পড়েছিল। মুম্বইয়ের বান্দ্রায় বিবেকার নিজের ফ্ল্যাটে ২০১০-এর ২৫ জুন উদ্ধার হয় তাঁর ঝুলন্ত দেহ। পুলিশের তদন্তে পরে দিন উদ্ধার হয় বিবেকার ডায়েরি। 

পুলিশ জানিয়েছে, সেখানে শেষ লেখায় বিবেকা লিখেছিলেন, ‘তুমি আমায় মেরে ফেলেছ, গৌতম বোহরা’। শেয়ার ব্যবসায়ী গৌতমের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল বিবেকার। পুলিশের ধারণা গৌতমের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার কারণে বিবেকা অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন। যদিও তাঁর আর এক প্রাক্তন প্রেমিক রোহিত যুগরাজ বলেছিলেন, বিবেকার মতো মেয়ে অবসাদের শিকার হতে পারেন না। বিবেকার ফ্ল্যাটের প্রতিবেশীরা জানিয়েছিলেন, ওই ঘটনার কয়েক দিন আগেই গৌতমের সঙ্গে বিবেকার তীব্র বাদানুবাদ হয়েছিল। তাঁর নিথর দেহ যখন উদ্ধার করা হয়, তখন ফ্ল্যাটে রান্নার গ্যাসের তীব্র কটু গন্ধ পাওয়া গিয়েছিল। 

পুলিশের ধারণা, রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার অন করে সিলিং ফ্যান থেকে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলে আত্মঘাতী হন এই মডেল। সংবাদমাধ্যমে বিবেকার অপমৃত্যু সে সময় চাঞ্চল্য তৈরি করেছিল। গৌতমকেও জেরা করা হয়েছিল। তবে এই অপমৃত্যু কাণ্ড এক সময় চাপা পড়ে যায়। সুশান্ত সিংহ রাজপুতের অকালমৃত্যুতে বিবেকার কথা আবার বলিউডে ভেসে উঠেছে। এই ঘটনার দু’ বছর পরে, ২০১২ সালে পেশায় শেয়ার ব্যবসায়ী গৌতমকে অন্য একটি জোড়া খুনের মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছিল।                                             

এসইউএ/এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি