ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

বিদ্রোহী প্রার্থীকে কখনই মনোনয়ন দেবে না আ’লীগ (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৩৮, ২৮ জানুয়ারি ২০২১

দলের মনোনীত প্রার্থীর বিরোধিতা করে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কেউ প্রার্থী হলে তাকে আর কখনোই মনোনয়ন দেবে না আওয়ামী লীগ। দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে বিজয়ী হলেও পরবর্তীতে তিনি দলীয় মনোনয়ন পাবেন না। এই নীতি শুধু এবারই নয়, আগামী নির্বাচনেও কঠোরভাবে অনুসরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন নেতারা।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী। বুঝিয়ে-শুনিয়েও তাদেরকে বসানো যাচ্ছে না। 

এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন দলের প্রার্থীরা। স্থানীয় নেতাকর্মীদের মতবিরোধ আর বিভাজনে অনেক ক্ষেত্রে পরাজিতও হন নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা। এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে এবারের পৌরসভা নির্বাচনে দলের বিদ্রোহীদের জন্য কঠোর বার্তা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ।

সিনিয়র নেতারা বলছেন, বিদ্রোহী হলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। জয়ী হলে কখোনই দলীয় মনোনয়ন পাবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কর্ণেল (অব.) ফরুক খান বলেন, হয় নিজের বুদ্ধিহীতার কারণে অথবা অন্য কারোর উস্কানিতে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। মনোনয়ন বোর্ডে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দাঁড়াবে তাদের বিরুদ্ধে গঠনতন্ত্র মোতাবেক দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতিমধ্যে 
কিছু ব্যবস্থা নেওয়াও হয়েছে। অতীতে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন তাদেরকে আমরা আর মনোনয়ন দিচ্ছি না।

সম্প্রতি নেত্রকোনার মদন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে আব্দুল মান্নান তালুকদার শামীমকে মনোনয়ন দিয়ে পরবর্তিতে তাকে বাদ দিয়ে আরেকজনকে প্রার্থী করা হয়। কারণ তিনি গত নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন। দলকে যারা ক্ষতিগ্রস্ত করবে তাদের ছাড় দেয়া হবে না বলেও জানিয়েছেন নেতারা।

দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম বলেন, যে পর্যায়েরই নেতা হোক না কেন সে যদি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিরোধিতা করে পরোক্ষভাবে অথবা প্রার্থী হয়ে, যারাই নৌকার বিরোধিতা করবে তাদের ক্ষেত্রেও আগামী দিনে নৌকা নিয়ে নির্বাচনের কোন বৈতরণী পার হওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে না। আওয়ামী লীগের কেউ যদি মনে করে থাকেন যে আমি অপরিহার্য, আমাকে ছাড়া দল চলবে না- এটাও কিন্তু সঠিক নয়। আওয়ামী লীগে অপরিহার্য শুধুমাত্র একজনই, তিনি হলেন জাতির পিতার সুযোগ্য সন্তান আওয়ামী লীগ সভাপতি দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

আগামীতেও যারা দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর এই বার্তা দিয়ে রাখলো আওয়ামী লীগ।
ভিডিও :

এএইচ/এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি