ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৮ ৮:১৮:৫৯

Ekushey Television Ltd.
বঙ্গবন্ধু-১ এর সফল উৎক্ষেপণ

আনন্দে কাঁদলেন জয়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৫৫ এএম, ১২ মে ২০১৮ শনিবার

স্যাটেলাইটের যুগে প্রবেশে করলো বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে বিশ্বের কাছে আরেকবার জানান দিলো বাংলাদেশ কোনো অংশে কম নয়। মহাকাশের বুকে ঘুরছে বিশ্বের ৫৬টি দেশের দুই হাজারের বেশি স্যাটেলাইট, সেই মহাকাশের এলিট শ্রেণির ক্লাবে যুক্ত হলো এবার লাল-সবুজের বাংলাদেশ। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টা ১৪ মিনিটে রচিত হলো ইতিহাসের গৌরবোজ্জ্বল এক অধ্যায়।

বাংলাদেশের এ স্বপ্নযাত্রায় অনেকেই আজ আনন্দে আত্মহারা। মুষ্ঠিবদ্ধ হাত শূন্যে ছুড়ে আজ বিশ্বের বুকে বাংলাদেশিরা জানান দিচ্ছে মহাকাশে স্যাটেলাইট ক্ষমতাধর দেশের সদস্য এখন আমরাও। আমরাও কোনো অংশে কম নই।

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট সফলভাবে উৎক্ষেপণের কিছুক্ষণের মধ্যে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্ঠা সজীব ওয়াজেদ জয়। প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে ধরে রাখতে পারেননি আবেগ। আনন্দ্র অশ্রু গাল বেয়ে পড়েছে তার।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, আনুষ্ঠানিক নতুন যুগে প্রবেশ করলো বাংলাদেশ। দেশের এ নতুন যাত্রাকে এগিয়ে নেবে তরুণ প্রজন্ম। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বঙ্গবন্ধু-১। বঙ্গবন্ধু-১ এর সফল উৎক্ষেপণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা ও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স সফল উৎক্ষেপণের খবর দিয়ে টুইটে বলেছে, স্যাটেলাইটের প্রথম ধাপের পাশাপাশি দ্বিতীয় ধাপ সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া ফ্যালকন-৯ রকেট ইতোমধ্যে ভূপৃষ্ঠে ফিরে এসেছে। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টা ৪৭ মিনিটে সফলভাবে কক্ষপথে পৌঁছেছে বঙ্গবন্ধু-১।

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মূল অবকাঠামো তৈরি করেছে ফ্রান্সের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেস। গত ২৮ মার্চ (বুধবার) কানের থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেস প্ল্যান্ট ত্যাগ করে স্যাটেলাইটটি। পরে স্যাটেলাইট বহনকারী কার্গো বিমান অ্যানতোনোভ নাইস বিমানবন্দর থেকে ২৯ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে।

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পরপরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এসএইচ/



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি