ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব: মঞ্চ মাতাবেন যারা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:৪৫ ৯ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ১৬:০২ ১০ নভেম্বর ২০১৭

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট, আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭-এর তৃতীয় পর্বের পর্দা উঠছে আজ। লোকসংগীত-ই হবে বাংলাদেশকে এবং বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরার নতুন উপলক্ষ্য। এই বাস্তবতা ও অনুপ্রেরণা নিয়ে সান কমিউনিকেশনস্ লিমিটেড ও মাছরাঙা টেলিভিশন আজ ৯ থেকে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত আয়োজন করেছে ৩ দিনব্যাপী ‘আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট ২০১৭’। বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত দেড়টা পর্যন্ত চলবে এই অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশসহ ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ইরান, ব্রাজিল, মালি, অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স ও জাপান থেকে প্রায় ১৪০ জন লোকসংগীত শিল্পী অংশ নেবেন এবারের অনুষ্ঠানে।

এই উৎসবে মঞ্চ মাতাবেন যারা-

সুফি শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন

ফকির শাহাবুদ্দিন বাংলাদেশের লোকসংগীত, বাউল ও সুফি গানের অন্যতম শিল্পী। পাশাপাশি তিনি সংগীত পরিচালক ও গীতিকার হিসেবেও সুপরিচিতি অর্জন করেছেন। তিন দশকের বেশি সময় ধরে বাউল সংগীতের সঙ্গে জড়িত তিনি। লোকগানের কিংবদন্তি শাহ আবদুল করিমের সান্নিধ্যে আসার পর বাউল গানের দিকে ঝুঁকে পড়েন। তিনি একজন বাউল গানের সংগ্রাহকও। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে ভারত, যুক্তরাজ্য, দুবাই, আলজেরিয়া, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশে গিয়েও সংগীত পরিবেশন করেছেন তিনি। টেলিভিশন এবং বিভিন্ন মঞ্চে গান পরিবেশনের পাশাপাশি বেশকিছু চলচ্চিত্রে প্লে-ব্যাক করেছেন।

পাপন

অঙ্গরাগ মহন্ত, ভারতের তরুণ প্রজন্মের কাছে বিখ্যাত ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পাপন নামেই বেশি পরিচিত। আসামের দুই জনপ্রিয় শিল্পী খগেন মহন্ত ও অর্চনা মহন্তের সন্তান পাপনের গানের সঙ্গে পরিচয় ছোটবেলায়। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের গানের সঙ্গে আধুনিক বাদ্যযন্ত্রের ব্যবহার পাপনের গানে লক্ষ্য করা যায়। ২০০৫ সালে প্রথম আসামীয় গানের অ্যালবাম ‘জোনাক রাতি’ মুক্তি পায়। এই অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি আসামের শ্রোতাদের মাঝে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেন। এর মাঝে বাংলাদেশের সংগীত অনুরাগীদের কাছে তিনি পরিচিতি পেয়েছেন জনপ্রিয় গান ‘দিনে দিনে খসিয়া পড়িবে রঙ্গিলা দালানের মাটি...’ দিয়ে। পাপন একই সঙ্গে বাংলা, আসামীয়া এবং হিন্দি ভাষায়ও গান গেয়ে থাকেন।

বাউলিয়ানার ম্যাজিক

উৎসবের প্রথম দিনে মঞ্চে উঠবেন বাউলিয়ানার শিল্পীরা। গানে গানে তারা মাতিয়ে তুলবেন উৎসবের প্রথম রাত। আর্মি স্টেডিয়ামের সব দর্শক-শ্রোতার মাঝে আজ দেখা যাবে উন্মাদনা। বাউলিয়ানা ঘরানার সংগীতশিল্পী কামরুজ্জামান রাব্বি এবারের আসরের বাউলিয়ানার হয়ে সংগীত পরিবেশন করবেন। লোকসংগীতবিষয়ক রিয়েলিটি শো ম্যাজিক বাউলিয়ানায় সেরা চারে জায়গা করে নেওয়া প্রতিযোগী পাপিয়া জাহান এবারের আসরে গান পরিবেশন করবেন। ‘ম্যাজিক বাউলিয়ানা-২০১৬’-এর চ্যাম্পিয়ন শিবলী সাদিককেও এবারের আসরে বাউল গান নিয়ে হাজির হতে দেখা যাবে। এছাড়াও নিভৃতচারী শিল্পী লাল্টু হোসেন, শফিকুল ইসলামকে উৎসব মাতাতে দেখা যাবে।

মোরিসিও টিযুমবা

ব্রাজিলের মোরিসিও টিযুমবা। যখন তিনি খুব ছোট তখন সাম্বা বিটের তালে তালে নাচতে শুরু করেন। বিট যতক্ষণ চলতে থাকে সে পর্যন্ত তিনি নাচতেই থাকেন, একটুও থামেনি। মোরিসিও তার নৈপুণ্যে সারা বিশ্বের সামনে ব্রাজিলকে রঙিনভাবে উপস্থাপন করেন। হাতের আবেশে নাচতে থাকেন মনোমুগ্ধকর ‘সেক্সটেট’ পদক্ষেপের ছন্দে ছন্দে। এই বিস্ময়কর জাদুর ছন্দে পুরো ঢাকা আন্তর্জাতিক ফোক ফেস্ট মাতাতে এবার হাজির হচ্ছেন টিযুমবা।

তেনজিন চোয়েগাল

পাহাড়ের গাঁ বেয়ে ঠাণ্ডা বরফ গলে সংগীতপ্রেমীদের মনে প্রশান্তি দিতেই তিব্বতী লোকসংগীতের সুরে তেনজিন চো’য়েগাল। ড্রানিয়েন নামের এক ধরনের গিটার এবং লিংবু বাঁশি বাজিয়ে গান পরিবেশন করেন তেনজিন চো’য়েগাল। তার কণ্ঠে পাওয়া যায় পাহাড়, ঝরনা, বরফের আবেশ। অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী এই তিব্বতী লোকসংগীতশিল্পীর ঠাণ্ডা সুর আমাদের মনকে করবে উষ্ণ, আত্মাকে করবে পরিশুদ্ধ। তেনজিন তার যন্ত্রশৈলী রপ্ত করছেন বাবা আর গালার সুর ধার করেছেন মা’র কাছ থেকে। তার চারপাশের প্রকৃতি তাকে উৎসাহ দিয়েছে এগিয়ে যেতে। সবকিছুই তেনজিন চো’য়েগালকে দিয়েছে আশীর্বাদস্বরূপ এগিয়ে যেতে আন্তর্জাতিক সংগীতে নিজের স্থান করে নিতে।

এসএ/ডব্লিউএন

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি