ঢাকা, বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০, || চৈত্র ১৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

কুড়িগ্রামে শিক্ষক লাঞ্ছিতের অভিযোগে থানায় জিডি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২০:৫৭ ২০ জানুয়ারি ২০২০

কুড়িগ্রামের উলিপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আবু তাহেরের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষককে বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও অন্যান্য শিক্ষকদের হুমকী-ধামকী প্রদান করায় নিরাপত্তার অভাবে কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়রী (জিডি) করেছেন ওই কলেজের সকল শিক্ষকগণ। 

এ ঘটনায় সোমবার (২০ জানুয়ারি) শিক্ষকগণ কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার কার্যালয়ে জবানবন্দি প্রদান করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, অধ্যক্ষ আবু তাহের মহান বিজয় দিবসে (১৬ই ডিসেম্বর) জুতা পায়ে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করেন। জুতা পায়ে শহীদ বেদিতে পুস্পমাল্য অর্পনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ওই অধ্যক্ষকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। পরে অধ্যক্ষ বাদী হয়ে এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। 

এ ঘটনায় কলেজের শিক্ষকগণকে দায়ী করে বিভিন্নভাবে হুমকী ধামকী দিয়ে আসছেন অধ্যক্ষ আবু তাহের এবং তাদেরকে শারীরিকভাবে লাঞ্চনাসহ প্রাণনাশের ষড়যন্ত্র করছেন বলে দাবি করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে গত ১৪ জানুয়ারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আসাদুল হাবিব আরিফকে অফিস চলাকালিনসময়ে কলেজ ক্যাম্পাসের ভিতরে ঢুকে বহিরাগত জনৈক আব্দুর রউফ লাঞ্ছিত করেন। 

পরে শিক্ষকরা জানতে পারেন অধ্যক্ষ আবু তাহেরের মোবাইল ফোনের নিদের্শনার এই লাঞ্ছিতের ঘটনা ঘটে। যার অডিও রেকর্ড শিক্ষকদের কাছে রয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। এছাড়াও আরেকটি অডিও বার্তায় কলেজের রসায়ন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ও শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার পালকে শারীরিকভাবে আক্রমনের নির্দেশ দেয়ার কথা বলা হয়েছে। উক্ত ঘটনা উল্লেখ করে কলেজে কর্মরত দশজন শিক্ষক ওই অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে উলিপুর থানায় ডায়েরী করেন (ডায়েরী নং-৬২৫)। 

এ বিষয়ে উলিপুর সরকারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আসাদুল হাবিব আরিফ বলেন, ১৪ই জানুয়ারি দুপুর আনুমানিক ১২টার দিকে জনৈক আব্দুর রউফ ক্যাম্পাসের ভিতরে ঢুকে কোন কারণ ছাড়াই আমাকে লাঞ্ছিত করেন। পরবর্তীতে জানতে পারি অধ্যক্ষ মোবাইল ফোনে এ নির্দেশনা দিয়েছেন। যার অডিও বার্তা সংরক্ষিত রয়েছে। 

শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার পাল জানান, জিডির ঘটনায় সোমবার (২০ জানুয়ারি) পুলিশ সুপার কুড়িগ্রাম কার্যালয়ে আমাদেরকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। আমরা সেখানে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জবানবন্দি দিয়েছি। উক্ত ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে নোটিশ করা হলেও তিনি আজ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে উপস্থিত হননি।

উলিপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) আবু তাহেরে সাথে মুঠো ফোনে (০১৭১৮-৪২০৮৪৩) বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরবর্তীতে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও কোন উত্তর পাওয়া যায়নি 

উলিপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে জিডি’র ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনা তদন্তের অনুমতির জন্য জিডির কপি আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

কেআই/এসি

 
 

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি