ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

কোনো গ্রাম অন্ধকার থাকবে না: শেখ হাসিনা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:১১ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৫:০৮ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের যেসকল অঞ্চলে বিদ্যুৎ নেই সেখানে আলো পৌঁছে দিতে কাজ করছে সরকার। দেশের প্রতিটি ঘরে শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিত করতে সরকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, কোনো গ্রাম অন্ধকার থাকবে না।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সরকারের বিদ্যুৎ বিভাগের আওতাধীন ৪টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ৮টি জিআইএস উপকেন্দ্র ও ১০টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বহুমুখী বিদ্যুৎ উৎপাদনে জোর দিয়েছি। ১৯৯৬ সালে যখন ক্ষমতায় আসি তখন ১৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়। পরবর্তীতে যারা ক্ষমতায় এসেছেন তারা সেখান থেকে আর এগিয়ে নিতে পারেননি। কেননা, সন্ত্রাস আর দুর্নীতিই ছিল তাদের একমাত্র লক্ষ্য। 

তিনি বলেন, সেখান থেকে ৪ হাজার ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছি আমরা। বিএনপি-জামায়াত জোটের লক্ষ্যই ছিল দেশকে পিছিয়ে নিয়ে যাওয়া। এ সময় তিনি ক্ষমতার লোভে দেশের সম্পদ বিক্রির ষড়যন্ত্রে তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপির ভূমিকার নিন্দা জানান। 

দেশ ও জনগণকে পিছিয়ে রাখাই বিএনপি-জামায়াত জোটের চরিত্র ছিল উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, হত্যা ও ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল বলেই জনগণের উন্নয়ন না করে নিজেদের স্বার্থ হাসিল করেছে।

পরিবার, যুবসমাজ ও পরিবেশ ধ্বংসকারী মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। 

দেশের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও আওয়ামী লীগ সরকারের অবদান তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশের সম্পদের অপব্যবহার করে নিজেদের স্বার্থ হাসিলে বিএনপি-জামায়াত জোট।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি প্রতিটি গ্রামে দেশের উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই বর্তমান সরকারে লক্ষ্য।

তিনি বলেন, আমরা পরমাণু বিদ্যুৎ নির্মাণে কাজ করছি। জলবিদ্যুৎ নির্মাণে ভারত, মিয়ানমার, ভুটান ও নেপালের সঙ্গে আলোচনা করছি। প্রতিটি উপজেলায় যাতে শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিত হয়, আমরা সে চেষ্টা করে যাচ্ছি।  

আই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি