ঢাকা, বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০, || চৈত্র ১৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

খালেদার জামিন শুনানি দুপুরে, আদালতে কড়া নিরাপত্তা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১১ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | আপডেট: ১৫:২৮ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি হবে আজ রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টায়। রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সকালে এই সময় ধার্য করেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

এ উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের মাজার গেইটের প্রবেশপথে তল্লাশি করা হচ্ছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মানুষকে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় প্রবেশ করতে দিচ্ছে পরিচয়পত্র পরীক্ষা করে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনটি দিনের কার্যতালিকার এক নম্বর ক্রমিকে রয়েছে।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি হবে বলে দিন নির্ধারণ করেন।

উচ্চ আদালতে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানির আগের দিন গতকাল শনিবার রাতে চার ঘণ্টা বৈঠক করেন বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির সদস্যরা।

জামিন পেলে অসুস্থ খালেদা জিয়া উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাবেন বলে আবেদনে বলেছেন দলীয় নেতা ও আইনজীবীরা। এ পরিস্থিতিতে সবার চোখ থাকবে আজ উচ্চ আদালতের দিকে। বিএনপি নেতা ও আইনজীবীরা আশা করছেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা বিবেচনা করে উচ্চ আদালত তাকে জামিন দেবেন। অন্যদিকে পর্দার আড়ালে রাজনৈতিক সমঝোতা হয়ে থাকলে তারও একটি ‘প্রভাব’ এতে পড়তে পারে বলেও মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্নেষকরা।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার  মওদুদ আহমদ বলেন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক একটি মিথ্যা মামলায় কারাবন্দি করে রাখা হয়েছে। অতীতে অনেক রাজনীতিবিদ অসুস্থতাজনিত কারণে জামিন পেয়েছেন। 

তিনি আশা করেন, দেরিতে হলেও খালেদা জিয়া সুবিচার পাবেন। দেশের মানুষেরও প্রত্যাশা, জামিন নিয়ে তিনি উন্নত চিকিৎসা নেওয়ার সুযোগ পাবেন। 

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশে যাওয়ার বিষয়টি দল ও পরিবার সিদ্ধান্ত নেবে। তবে তারা আবেদনেও বিষয়টি উপস্থাপন করবেন।

অপর আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, খালেদা জিয়া জামিন পাবেন বলে তারা আশাবাদী। একজন বয়স্ক নারী হিসেবে মানবিক কারণে দেশের মানুষও খালেদা জিয়ার জামিন চায়। 

তবে দুদকের আইনজীবী মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, শুনানিতে তারা কোনো ছাড় দেবেন না।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর সাত বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত।

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি