ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ২৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

৩৬ তম বিসিএস

গেজেট প্রকাশের দীর্ঘসূত্রতায় ক্ষোভ চাকরি প্রার্থীদের

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:০৭ ১৭ জুলাই ২০১৮ | আপডেট: ২১:৩৩ ১৯ জুলাই ২০১৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আসিফ। স্বপ্ন ছিলো বিসিএস। মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নেওয়ার স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দেওয়া ছিলো অনেক কঠিন। তবুও হাল ছাড়িনি আসিফ। বিসিএস প্রস্তুতিটা ব্যস্ততার মধ্যেই নিয়েছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে অনার্স মাস্টার্সে পড়ার সময় নিয়েছেন প্রস্তুতি।

সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন, ভাগ্যও সহায় ছিল বলেই ৩৬ বিসিএসে ক্যাডার পেয়েছেন। কিন্তু ফল প্রকাশের সাড়ে আট মাস পার হলেও এখনও চাকরির জন্য সুপারিশ করে গেজেট প্রকাশ করতে পারেনি সরকারি কর্ম কমিশন(পিএসসি)। এমনকি কবে নাগাদ সুপারিশ করা হবে এবিষয়েও কিছু বলছে না পিএসসি। এমতাবস্থায় আসিফ ও তার গোটা পবিবারের দিন কাটছে দুশ্চিন্তায়। কিছুটা হতাশা ঘিরে ধরেছে এ মেধাবীকে।

বিষয়টি আসিফ নিজেই একুশে টিভি অনলাইনের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে শেয়ার করেন।

আসিফের মতো বহু মেধাবী এই বাস্তবতার সম্মুখীন। ৩৬বিসিএস বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত ২ হাজার ৩২৩ জনেরই বেশিরভাগই হতাশ, কিছুটা ক্ষুব্ধও। গেজেট প্রকাশে কালক্ষেপনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও বয়ে যাচ্ছে ঝড়। অনেকেই মানববন্ধন বা স্মরণলিপি দেওয়ার চিন্তা করছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ৩৬তম বিসিএসের গেজেটের বিষয়ে সারসংক্ষেপ সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদিত হয়ে আসামাত্র গেজেট প্রকাশ করা হবে। তবে কতদিনে নিয়োগের জন্য গেজেট প্রকাশ করা হবে জানানো হয়নি।

৩৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় ২০১৫ সালের ৩১ মে। ২ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী এতে অংশ নেন। পরের বছরের সেপ্টেম্বরে লিখিত পরীক্ষা হয়। মৌখিক পরীক্ষা শেষ হয় ২০১৭ সালের জুনে। গত বছরের ১৭ অক্টোবর ২ হাজার ৩২৩ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করে পিএসসি। সর্বশেষ সাড়ে আট মাস আগে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের চাকরির জন্য এখন প্রজ্ঞাপন জারি হয়নি।

এ বিষয়ে পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক  বলেন, শুধু বিসিএস নয় পিএসসিকে বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষা নিতে হয়। তবে পিএসসি সময় কমিয়ে আনতে একসঙ্গে একাধিক বিসিএসের পরীক্ষা নিচ্ছে। প্রতিবছর একটি বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হচ্ছে।

পিএসসি সূত্র জনায়, নিকট-অতীতের প্রতিটি বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ থেকে চাকরিতে যোগদানের গেজেট প্রকাশে আড়াই থেকে সাড়ে তিন বছর পর্যন্ত সময় লাগছে। প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার শেষে চূড়ান্ত ফল প্রকাশে একদিকে পিএসসি যেমন দেরি করছে অন্যদিকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ও গেজেট প্রকাশে অনেক সময় নিচ্ছে।

ফল প্রকাশের পরও নিয়োগে দীর্ঘসূত্রতার বিষয়ে সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইমাম মজুমদার বলেন, একটি বিসিএসের নিয়োগে এত দীর্ঘ সময় কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। বিসিএসের নিয়োগপ্রক্রিয়ার সময় কমিয়ে আনা জরুরি। একটা বিসিএসের জন্য কোনোভাবেই এক-দেড় বছরের বেশি সময় লাগা উচিত নয়।

টিআর/ এআর

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি