ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ১৮:০৩:০৪

Ekushey Television Ltd.

চকবাজারে সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে জেএসসি পরীক্ষার্থী খুন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০২:২১ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৭ শনিবার

রাজধানীর চকবাজার থানা এলাকায় সিনিয়র ও জুনিয়রদের দ্বন্দ্বে ছুরিকাঘাতে মো. হাসান (১৬) নামের এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ শনিবার ভোররাত ৪টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসানের মৃত্যু হয়।


ছুরিকাঘাতে নিহত হাসান এ বছর জেএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় চাঁদনীঘাট এলাকার শিশু হাসপাতালের গলিতে সিনিয়র ও জুনিয়রদের তর্কাতর্কিকে কেন্দ্র করে তার ওপর হামলা হয়।


স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় চকবাজার থানাধীন চাঁদনীঘাট এলাকায় স্থানীয় সিনিয়র ও জুনিয়রদের মধ্যে মারামারি হয়। এ সময় কয়েকজন হাসানকে মারধর করে। এর একপর্যায়ে একজন তার পেটে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে গুরুতর আহত হয় হাসান। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দ্রুত ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোরে তার মৃত্যু হয়।


হাসানের বাবা মোহাম্মদ আলী জানান, স্ত্রী-সন্তান নিয়ে তিনি লালবাগ এলাকার পোস্তায় থাকেন। গতকাল কয়েকজন ছেলে মিলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাঁর ছেলেকে মারধর করে পেটে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তিনি শুনেছেন যে, জ্যেষ্ঠ ও কনিষ্ঠদের মধ্যে দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত।


মোহাম্মদ আলী আরো জানান, মারামারির সময় কয়েকজন মিলে তাঁর ছেলের পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেয়।

চকবাজার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. জামাল অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, থানা থেকে পুলিশের একটি দল ঢামেক হাসপাতালে গিয়েছে। লাশ এখনো ঢামেকেই রাখা আছে।     
প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় উত্তরায় সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বের জেরে স্কুলছাত্র আদনান কবিরকে (১৫) ১৩ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর রোডে কয়েকজন যুবক কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। পরে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই দিন রাতেই আদনানের বাবা কবির হোসেন বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় হত্যা মামলা করেন। আদনান হত্যার পর তেজগাঁওয়ে এ ধরনের একটি ঘটনায় এক কিশোর নিহত হয়।


/ এআর /

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি