ঢাকা, রবিবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

নোবেলকে চাবুক মারতে চান ইমন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:৫৬ ২ আগস্ট ২০১৯ | আপডেট: ২১:৩৪ ২ আগস্ট ২০১৯

কয়দিন ধরেই নোবেলকে নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে। জাতীয় সংগীত নিয়ে এক মন্তব্যের জেরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে  পড়েছেন নোবেল। এক সাক্ষাৎকারে নোবেল বলেছিলেন, ‘রবীন্দ্রনাথের লেখা জাতীয় সংগীত ‘আমার সোনার বাংলা’ যতটা না দেশকে প্রকাশ করে তার চেয়ে কয়েক হাজার গুণ বেশি প্রকাশ করেছে প্রিন্স মাহমুদের লেখা ‘বাংলাদেশ’ গানটি।

নোবেলের এমন মন্তব্যের জবাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠে। অনেকে তার কড়া সমালোচনা করতে থাকেন। কেউ কেউ তার বিচারও দাবি করেন। বিতর্কের এই আগুনে যেনো ঘি ঢাললেন কলতার জনপ্রিয় গায়িকা ইমন চক্রবর্তী। 

নোবেলর এই সাক্ষাৎকারটি দেখার পরই ইমন চক্রবর্তী তাকে চাবুক মারার কথা বলেন। ভারতীয় এক গণমাধ্যমে ইমন বলেন, ‘আমরা এখনও ভুল করলে বড়রা শুধরে দেন। শাসন করেন। নোবেল আমার ছোট ভাইয়ের মতো। সদ্য ক্যারিয়ার শুরু করেছে। তাই শুরুতেই এরকম বিরূপ মন্তব্য ওর করা উচিত হয়নি। 

তিনি বলেন, দিদি হিসেবে, শিল্পী হিসেবে এবং সর্বোপরি একজন বাঙালি হিসেবে আমি একথা বলেছি। নোবেল নিজেকে দ্রুত শুধরে নিতে পারলে ওর জন্যই ভালো।

ইমন আরও বলেন, ‘শুধুই যে নোবেল বাংলাদেশকে অপমান করেছেন, জাতীয় সংগীতের অবমাননা করেছেন এমন নয়, বাঙালির সাংস্কৃতিক আত্ম্যাভিমানে আঘাত করেছেন। একজন শিল্পী হিসেবে আমি এর প্রতিবাদ জানালাম।’

সঙ্গীত শিল্পী মাঈনুল ইসলাম নোবেলকে দুই বাংলায় এখন এক নামেই সবাই চেনেন। সারেগামাপা’র বদৌলতে তার এই তারকাখ্যাতি। প্রতিযোগীতার পুরো জার্নিতে সবার দৃষ্টি ছিল তার দিকে। কিন্তু দর্শক ও ভক্তদের হতাশ করে আয়োজনের দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন তিনি। এতে নোবেল ভক্তদের অনেকেই অবাক এবং নাখোশ হয়েছেন।

এসি

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি