ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

প্রিয়া সাহার বিচার চায় হিন্দু-বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান কল্যাণ ট্রাস্ট

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৪৪ ২২ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ১৮:৪৬ ২২ জুলাই ২০১৯

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করায় বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহার বিচার চান হিন্দু-বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট।

আজ সোমবার (২২ জুলাই) হিন্দু-বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত পাল এ বিচার দাবি করেন।

তবে এর আগে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের করা মামলা খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহার অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার চেয়েছে হিন্দু-বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট। 

সুব্রত পাল বলেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহার অভিযোগ বাস্তবসম্মত নয়। ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী মানুষ নিখোঁজ হয়েছে, এ তথ্য বানোয়াট, অসত্য ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অন্য দেশের নিকট বিচার চাওয়া গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। আমরা সম্মিলিতভাবে প্রিয়া সাহার বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করছি।’ 

কাদের প্ররোচনায় কোন উদ্দেশ্যে প্রিয়া সাহা এই মিথ্যাচার করেছেন, সে বিষয়ে সুব্রত একটি সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।
 সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ও সচিব নির্মল রোজারিও,  ট্রাস্টি অ্যাডভোকেট উজ্জ্বল প্রসাদ কানু, পরিতোষ কান্তি সাহা, শ্যামল ভট্টাচার্য্য, দয়াল কুমার বড়ুয়া, ডালিম কুমার বড়ুয়া ও জে. এম. সুব্রত হাজরা।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্মল রোজারিও বলেন, ‘হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ বা কল্যাণ ট্রাস্ট অথবা অন্য কোনো সংগঠন বা ব্যক্তির পক্ষ থেকে এ ধরনের বক্তব্য অতীতে কখনো দেওয়া হয়নি। এই হিসাব তিনি (প্রিয়া সাহা) কীভাবে বের করেছেন তা তিনি নিজেই বলতে পারবেন।’

 টিআর/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি