ঢাকা, রবিবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বাজারের দুধে ৯৬ শতাংশ ক্ষতিকর উপাদান

প্রকাশিত : ১৯:৩৬ ২১ মে ২০১৯ | আপডেট: ১৯:৩৮ ২১ মে ২০১৯

বাজারের ৯৬টি দুধের নমুনার মধ্যে ৫ টিতে ৯৬ শতাংশ মাত্রার ক্ষতিকর উপাদান আর ৩৬ টিতে ২০ গ্রাম নেট পাওয়া গেছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছেন ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির শাহনীলা ফেরদৌসী।

আদালতকে তিনি জানিয়েছেন, এসব দুধ প্রতিনিয়ত খেতে থাকলে কিডনী ও লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। দেশের নাম করা দুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর পণ্যে ক্ষতিকর পরিমান গাঁ শিউরে ওঠার মতো বলেও মন্তব্য করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।

ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির গবেষণার স্বপক্ষে ব্যাখ্যা দিতে সংস্থাটির প্রধান প্রফেসর ড. শাহনীলা ফেরদৌসী মঙ্গলবার আদালতে হাজির হন। এ সংক্রান্ত গবেষনা প্রতিবেদন আদালতে জমা দেন তিনি। আদালতকে শাহনীলা ফেরদৌসী বলেন, পরীক্ষার ফল সঠিক আছে কিনা, তা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যাচাই করা হয়। পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়ার পরই তা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রকাশ করা হয়।

৯৬টি দুধের নমুনার মধ্যে ৫ টিতে ৯৬ মাত্রায় ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া গেছে বলে জানান তিনি। আর ৩৬ টিতে ২০ গ্রাম নেট পাওয়া গেছে। তবে এসব দুধ প্রতিনিয়ত খেতে থাকলে স্বাস্থ্যঝুঁকির কথাও আদালতকে জানান তিনি। পরে সারাদেশের বাজার থেকে বিভিন্ন কোম্পানির দুধ, দুগ্ধজাত খাদ্যপণ্য ও পশুর খাদ্যপণ্যে কী পরিমাণ ব্যাকটেরিয়া, কীটনাশক এবং সিসা রয়েছে, তা নিরূপণসহ জরিপ করে একটি তালিকা ও জড়িতদের বিরুদ্ধে গৃহীত আইনি পদক্ষেপ প্রতিবেদন আকারে দাখিল করতে পুনরায় নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

এদিকে হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ পানির চারটি স্তরসহ ৩৪টি পয়েন্টে রাজধানীর ওয়াসার পানি পরীক্ষা করে ২ জুলাই প্রতিবেদনে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। কমিটির সদস্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সাবিতা রিজওয়ানা রহমানের মতামত শুনে এ আদেশ দেওয়া হয়।

টিআর/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি