ঢাকা, রবিবার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, || পৌষ ১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বিশ্বরোডের ফুটপাত দখলমুক্ত হাইওয়ের ওসি এখন চক্ষুশূল  

সরাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা 

প্রকাশিত : ২২:১৫ ২০ নভেম্বর ২০১৯

পাল্টে গেছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল বিশ্বরোড ব্যস্ততম মোড়ের দৃশ্যপট। এখানে নেই সেই চির চেনা যানজট। পথচারীদের চলাচলে এখন নেই কোনো দুর্ভোগ। ফলে এখানে নানা সমস্যাসহ কমেছে অপরাধ প্রবণতা। 

স্থানীয়রা জানান, এখানকার খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানায় ওসি হিসেবে মাইনুল ইসলাম যোগদানের পর এখানকার দীর্ঘদিনের সমস্যা অনেকটা রোধ হয়েছে। তিনি এখানে যোগদান করেই মহাসড়কের দুইপাশের ফুটপাত দখলমুক্ত করেন। গুড়িয়ে দেন সকল অবৈধ স্থাপনা। এতে বিভিন্ন প্রভাবশালী মহলের তদবির থাকলেও তিনি সবকিছুর ঊর্ধ্বে থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেন। যার কারণে এখন তিনি কিছু সুবিধাবাদী লোকের চক্ষুশূল হয়েছেন।

বুধবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে সরেজমিন মহাসড়কের বিশ্বরোড মোড় এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, যানজটমুক্ত সড়কে বিভিন্ন যান চলাচল করছে নির্বিঘ্নে। ফুটপাত দখলমুক্ত হওয়ায় পথচারীদের চলাচলে নেই কোনো প্রতিবন্ধকতা। 

পথচারী বাবুল মিয়া বলেন, তিনি ঢাকা থেকে এসেছেন। গাড়ি থেকে বিশ্বরোডে নেমে তিনি প্রথমে অবাক হন। কয়েকমাস আগেও এখানে ফুটপাত ছিল অবৈধ দখলদারদের কবলে। যানজট ছিল নিত্যদিন। ফুটপাত দিয়ে চলাচলে ছিল নানা দুর্ভোগ। এখন এখানে এসবের কিছুই নেই।

স্থানীয় বাসিন্দা কালাম মিয়া জানান, এসব সম্ভব হয়েছে এখানকার হাইওয়ে থানার নতুন ওসি মাইনুল ইসলামের প্রচেষ্টায়। বাস চালক সারোয়ার আলম জানান, বিশ্বরোড এলাকায় এখন আগের মত যানজট নেই। ফুটপাত দখলমুক্ত হওয়ায় যাত্রীরা শৃঙ্খলার মধ্যে এখন গাড়িতে উঠতে পারছেন। 

এ ব্যাপারে খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি মাইনুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান, এখানকার ফুটপাতে অসংখ্য অবৈধ স্থাপনা ছিল। এতে পথচারীদের দুর্ভোগ ছিল চরমে। তাই এখানকার ফুটপাত দখলমুক্ত করা হয়েছে। জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন ঘটবে, এমন কর্মকান্ড কোনভাবেই মানা হবে না। মহাসড়কের ৩০ মিটারের মধ্যে কোনো স্থাপনা গড়ে কেউ ব্যবসা করতে পারবে না। এখানকার ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে হাইওয়ে পুলিশ সবসময় সদা তৎপর থাকবে।

কেআই/এসি
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি