ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৪ জুলাই ২০২০, || আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: ১৩ ঘণ্টা পর একজনকে জীবিত উদ্ধার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:১৬ ৩০ জুন ২০২০

রাজধানীর বুড়িগঙ্গা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চ থেকে প্রায় ১৩ ঘণ্টা পর এক ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। 

সোমবার রাত ১০টার দিকে ওই ব্যক্তিকে 'জীবিত' অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এরপর তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

উদ্ধার ব্যক্তির নাম সুমন ব্যাপারী। তার বাড়ি মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীর আব্দুল্লাহপুর। 

ফায়ার সার্ভিসের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা কামরুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, লঞ্চ দুর্ঘটনার ১৩ ঘণ্টা পর এক ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

তিনি বলেন, ‘১০টা ১০ মিনিটের দিকে কুশন পদ্ধতি ব্যবহার করে জাহাজ ভাসানোর চেষ্টা করা হলে সম্ভবত ইঞ্জিনরুম খুলে যায়। সে সময় তিনি বের হয়ে আসেন এবং উদ্ধারকর্মীরা তাকে উদ্ধার করেন।’

এদিকে, উদ্ধার সুমন ব্যাপারী সম্পর্কে মিটফোর্ড হাসপাতালের সহকারী রেজিস্টার ডা. আমজাদ হোসেন বলেন, সাধারণত বন্ধ ঘরে কেউ ১৩ ঘণ্টা আটকা থাকলে তার শরীরে দাগ পড়ার কথা। কিন্তু উদ্ধার ব্যক্তির শরীরে তা নেই। তার ফুসফুসেও পানি জমার লক্ষণ নেই।

সোমবার সকালে মুন্সিগঞ্জ থেকে আসা ‘এমভি মর্নিং বার্ড’ নামের একটি ছোট লঞ্চ ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় বুড়িগঙ্গায় ডুবে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তাদের মধ্যে ৩০ জনের পরিচয় মিলেছে। 

তারা হলেন- সত্যরঞ্জন বনিক (৬৫), মিজানুর রহমান (৩২), শহিদুল (৬১), সুফিয়া বেগম (৫০), মনিরুজ্জামান (৪২), সুবর্ণা আক্তার (২৮), মুক্তা (১২), গোলাম হোসেন ভুইয়া (৫০), আফজাল শেখ (৪৮), বিউটি (৩৮),  ছানা (৩৫), আমির হোসেন (৫৫), মো. মহিম (১৭), শাহাদাৎ (৪৪), শামীম ব্যাপারী (৪৭), মিল্লাত (৩৫), আবু তাহের (৫৮), দিদার হোসেন (৪৫), হাফেজ খাতুন (৩৮), সুমন তালুকদার (৩৫), আয়শা বেগম (৩৫), হাসিনা রহমান (৪০), আলম বেপারী (৩৮),  মোসা. মারুফা (২৮), শহিদুল হোসেন (৪০), তালহা (২), ইসমাইল শরীফ (৩৫), সাইফুল ইলাম (৪২), তামিম ও সুমনা আক্তার।

এমবি//


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি