ঢাকা, শনিবার   ১৬ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিং থেকে বাঁচাতে করণীয় ৩

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:৩৪ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট: ১৫:৩০ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

প্রযুক্তির নাগালে ব্যাপক হারে বেড়েছে অনলাইন লেনদেন। ডিজিটালাইজেশনের দৌলতে ব্যাংকগুলো আরও সহজ করে দিয়েছে টাকা লেনদেনের পদ্ধতি। ক্যাশ অন ডেলিভারি আর তেমন হয় না বললেই চলে। কিন্তু প্রযুক্তির উন্নতি সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে ঝুঁকিও। কারণ অনলাইন লেনদেনের সময় খুব সহজেই হ্যাকারদের হাতে চলে যেতে পারে ব্যাংকের যাবতীয় তথ্য। এ ক্ষেত্রে আপনার অ্যাকাউন্ট একবার হ্যাক হয়ে গেলে বুঝবেন কীভাবে? আসলে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে, তা বোঝার কিছু সহজ উপায় আছে। অ্যান্টিভাইরাস সংস্থা ক্যাসপারস্কি অনলাইন শপিং ও লেনদেনের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের কিছু পরামর্শ দিয়েছে। যদি আপনার মোবাইলে কোনও অ্যান্টিভাইরাস নাও থাকে, তবু সাইবার ক্রাইম থেকে বাঁচতে বিষয়গুলো মাথায় রাখুন।

সন্দেহজনক গতিবিধিতে নজর রাখুন

যে কোনও সন্দেহজনক গতিবিধি হলেই বিষয়টি নজর রাখুন। সব সময় কীসের জন্য লেনদেন হচ্ছে, সেটা লিখে রাখুন। মনে রাখবেন, ছোট কোনও লেনদেনে অসঙ্গতি থাকলে, সেখানেও বিপদের সম্ভাবনা থেকে যেতে পারে।

ফোনে ব্যাংকের তথ্য দিবেন না

সবার মোবাইলেই বিভিন্ন কোম্পানির কমবেশি ফোন আসে। অনেক ফোনে ব্যাংকের তথ্য চাওয়া হয়। কিন্তু এই ধরনের ফোন থেকে সব সময় সাবধান। প্রয়োজন হলে ব্যাংকে গিয়ে সরাসরি কথা বলুন ব্যাংকের ম্যানেজারের সঙ্গে। কিন্তু এই ধরনের ফোনে ব্যাংকের তথ্য ভুলেও দেবেন না। তবে শুধু কল নয়। মেসেজের মাধ্যমেও এই প্রতারণার ফাঁদ পাতা হয়। কোনও বিশেষ নম্বর থেকে বারবার ফোন বা মেসেজ আসলে বুঝে যাবেন, আপনার অ্যাকাউন্ট প্রতারকদের টার্গেট। এ ক্ষেত্রে নম্বর ব্লক করে দিন বা ব্যাংকে গিয়ে যোগাযোগ করুন।

ব্যাংক সংক্রান্ত মেইল এড়িয়ে যাবেন না

অ্যাকাউন্টের ডিটেইলস পরিবর্তিত হয়েছে বলে কমবেশি ইমেইল আসে। অনেক সময় কাজের ব্যস্ততায় এই ধরনের মেইল হয়তো নজরে পড়ে না। কিন্তু এই ভুল কখনও করবেন না। কারণ এমনটা করলে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে কোনও দিন হয়তো আর একটা টাকায় থাকবে না। সব সাফ করে নিয়ে যাবে সাইবার চোর। তাই সমস্যা বাড়লে সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে যোগাযোগ করুন।

প্রসঙ্গত, গোটা বিশ্বে এখন সবচেয়ে সুচতুর সাইবার অপরাধের নাম ‘ম্যান ইন দা ব্রাউজার অ্যাটাক’। ঘরে বসেই আপনার ব্যাংকের সব টাকা তুলে নিতে পারে অপরাধীরা। একটি ছোট মালওয়ার ব্যবহার করে ল্যাপটপ বা মোবাইলের ব্রাউজারের অনলাইন গতিবিধি দেখা শুরু হয়। সেখান থেকে ব্যাংকের ওয়েবসাইটে ঢুকে আপনার ব্যবহৃত তথ্য হাতিয়ে মুহূর্তের মধ্যে খালি করে দেয় অ্যাকাউন্ট। তাই অ্যাডভান্সড ইন্টারনেট সিকিউরিটি ব্যবহার না করলে অনলাইন শপিং বা লেনদেন থেকে বিরত থাকাই ভাল।

একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি