ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

মিথিলার অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে যা বললেন তারকারা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৩৫ ৬ নভেম্বর ২০১৯

পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলার অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে চটেছেন শোবিজের অনেক সেলিব্রেটিই। 

স্রোতের বিপরীতে গিয়ে মিথিলা-ফাহমির পাশে দাঁড়িয়েছেন শোবিজ অঙ্গনের বেশ  কয়েকজন তারকা শিল্পী-অভিনেতা-অভিনেত্রী-নির্মাতা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিষয়টি উল্লেখ করে তারা স্ট্যাটাসও দিয়েছেন। 

কণ্ঠশিল্পী আঁখি আলমগীর তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, ‘অন্যের কিছু (তা যতই খারাপ হোক) যখন আপনি শেয়ার করছেন, তখন আপনিও খুব ভালো কিছু করছেন না।’

অভিনেত্রী রুনা খান লিখেছেন, ‘যে যে তার নিজের ওয়ালে অন্যের পারসনাল ও নেগেটিভ নিউজ শেয়ার করবে, আমি তাদের ব্লগ করব।’

নির্মাতা অমিতাভ রেজা বলেন, ‘যে দেশে ভালোবাসা খারাপ হস্তমৈথুনে পুরুষত্ব। সে দেশে সাংবাদিকতা খুব স্বাভাবিক বিচারে এ রকম হবে। বি স্ট্রং।

নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে প্রভা লিখেছেন- ‘কারো ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি শেয়ার বা পোস্ট করা, এথিকালি কোন রাইট আপনি রাখেন না; বিকৃত মানসিকতার আমূল পরিবর্তন হোক....’।

অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা লেখেন, ‘কারো ইনবক্সের কথা বা তথ্য প্রচার করা-যে করেছে, সে কোনো মানুষ হতে পারে না। তাকেও কোনো মেয়ে জন্ম দিয়েছে। অন্য মানুষের ছবি ভাইরাল করে তোর লাভ কোথায়? আমরা সোশ্যাল মিডিয়া ইউজ করতে শিখিনি।’

তরুণ নাট্যনির্মাতা মাবরুর রশীদ বান্নাহ্ লিখেছেন: ‘ফেসবুকে কিছু শেয়ার করার আগে যৌন হয়রানি ও সাইবার আইন সম্পর্কে সতর্ক হোন। দয়া করে এটা মাথায় রাখুন যে, বিষয়টি আপনার বাবা-মা ও শিশুদের উপর কেমন প্রভাব ফেলবে। আপনার পরিবারেও এমন ঘটনা ঘটতে পারে। কারো ব্যক্তিগত ছবি চুরি করা ও ছড়িয়ে দেয়া অপরাধ এবং মর্যাদাহানিকর। দুজন অ্যাডাল্ট ছেলে-মেয়ে কী করবে সেটা আমাদের বিষয় না। প্লিজ এই ধরনের হয়রানির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন।’

লাক্স তারকা তানিন তানিহা বলেন, ‘এত এত ঝামেলা হচ্ছে বাংলাদেশে, আর মানুষ এমন ফালতু একটা বিষয় নিয়ে পড়ে আছে। ওদের ভালোবাসা ওরা যা মন চায় করুক। আইডি হ্যাক হয়েছে এজন্য ছবিগুলো দিয়ে মজা নেয়ার কি আছে? আপনি কি কখনো এমন কোনো কিছু করেন নাই? আপনাদের জীবনে এমন কোনো সিচুয়েশন আসে নাই? এমন যদি আপনাদের সাথে হতো? লজ্জা লজ্জা! নিজেকে নিয়ে ভাবেন। আমার তো লজ্জা লাগছে আমার কাছের ভাইগুলোও এমন মজা নিচ্ছে। প্লিজ এগুলো বন্ধ করেন।’

মডেল-অভিনেত্রী কাজল সুবর্ণ লিখেছেন: ‘মেয়েটার একটা বাচ্চা আছে। সে কারো মা। সে কারো সন্তান। কারো বোন। কেউ তো আর ইচ্ছে করে এমন কিছু করে না। আপনারা কি তাকে বাঁচতে দিবেন না? একই ভুল যদি আপনার পরিবারের কেউ করে? তখন কি তাকেও এভাবে ভাইরাল করবেন?’

অভিনেতা পাভেল ইসলাম লিখেছেন, ‘মিথিলা নামে আপনার একটা বোন আছে, যে একজন শিক্ষিকা, যার একটি ছোট কন্যাসন্তান আছে, সম্প্রতি তার ডিভোর্স হয়েছে। পরবর্তীকালে তার কারব সাথে একটি সম্পর্ক হয়েছে, হোক তা বৈধ বা অবৈধ; আপনি কি পারতেন আপনার বোনের সেসব গোপন ছবি ভাইরাল করতে?

মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি লিখেছেন, ‘ভালোবেসে প্রেমিককে চুমু খেয়েছি, প্রেমিকের বুকে মাথা রেখে প্রাণ জুড়িয়েছি, তাতে কার বাপের কী, মায়ের কী বা চৌদ্দগোষ্ঠীর কী? কেউ পাবলিক ফিগার বা জনপ্রিয় হলে তার ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো বা ভালোবাসার অধিকার কি উধাও হয়ে যেতে হবে?

মিথিলার অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ওই ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার ক্রাইম বিভাগে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা।

গতকাল মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) অভিনেত্রী মিথিলা এই অভিযোগ দেন।

ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতে ফেসবুকের একটি গ্রুপ থেকে নির্মাতা ও পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে মিথিলার অন্তরঙ্গ ছবি পোস্ট করা হয়। এরপর রাতেই ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে।

এরপর এই দুই তারকার একাধিক অন্তরঙ্গ ছবি বিভিন্ন গ্রুপে পোস্ট হতে থাকে। ছবিগুলো নিয়ে দিনভর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা চলতে থাকে। বিষয়টি নিয়ে বিনোদন অঙ্গনকে নাড়া দেয়। এ নিয়ে শোবিজের অনেক তারকাই তাদের মত ব্যক্ত করেছেন। অনেকে চুপ থাকলেও ব্যাপারটিতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

যদিও এখন পর্যন্ত এসব ছবির বিষয়ে ইফতেখার আহমেদ ফাহমি ও মিথিলার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে বিভিন্ন শো ও সাক্ষাৎকারে ইফতেখারকে নিজের ভালো বন্ধু ও শুভাকাঙ্খি বলেই পরিচয় দিয়েছেন মিথিলা।

প্রসঙ্গত, ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেতা তাহসানের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন মিথিলা। এই দম্পতির একমাত্র সন্তান আইরা। পরে দুজনের বনিবনা না হওয়ায় ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে।

বেশ কিছুদিন আগে কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখার্জির সঙ্গে মিথিলার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে বলে গুঞ্জন ওঠে। তাদের দুজনকে একাধিকবার বিভিন্ন স্থানে দেখা যায়। এ নিয়ে বাংলাদেশেসহ কলকাতার গণমাধ্যমগুলোতেও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। যদিও বিষয়টি নিছক গুজব বলে উড়িয়ে দেন মিথিলা।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি