ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

রাজবাড়ীর নিন্মাঞ্চল প্লাবিত,দুর্ভোগে বানভাসী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৩৭ ১৯ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ১৮:৫০ ১৯ জুলাই ২০১৯

রাজবাড়ীতে পদ্মা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে কালুখালী, সদর ও গোয়ালন্দ উপজেলার শহর রক্ষা বাঁধের বাহিরে নিম্নাঞ্চলে বন্যার পানি ঢুকে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবার রাজবাড়ী সদর উপজেলার নয়নসুখ, মিজানপুর, গোয়ালন্দের ছোটভাকলা, দেবগ্রাম, দৌলতদিয়া এবং কালুখালীর রতনদিয়ায় পদ্মা নদীর পানি বেড়ে বিপদ সীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার নদীর পানি বিপদ সীমার ৩০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। যে কারণে পদ্মা নদী সংলগ্ন নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। প্রতিদিন পানি বেড়ে স্থানীয়দের বাড়ি ঘরে ঢুকে পড়েছে। পানিতে প্লাবিত হয়েছে বাড়ির আঙ্গিনা, ঘরবাড়ি। ডুবে গেছে ধান, পাটসহ ফসলের ক্ষেত। সদর উপজেলার নয়নসুখ গ্রামের দেড়-শতাধিক ঘর বাড়ি পানিতে নিমজ্জিত। সব মিলিয়ে জেলার প্রায় ২ শতাধিক পরিবার বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক আলমগীর হোসাইন বেলেন,‘পদ্মা নদীর পানি ধীরে ধীরে বাড়ছে এবং রাতে প্রবল আকার ধারণ করেছে। রাজবাড়ী পদ্মা নদীর বেড়িবাঁধের বাইরে নিম্নাঞ্চল পানি বাড়ার কারণে প্লাবিত হয়েছে। সদর উপজেলার নয়নসুখ ও কাশিমপুর এবং গোয়ালন্দের বেড়িবাঁধের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।’

বানভাসিদের পূনর্বাসনের জন্য পর্যাপ্ত শুকনা খাবার, চাল,নগদ টাকা, মজুদ রয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

এমএস/কেআই

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি