ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ১৫:৪১:৪৫

Ekushey Television Ltd.

শিশু আটকে রাখা নিয়ে এ্যাপোলোর বিরুদ্ধে ফেসবুকে ক্ষোভ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:১৭ পিএম, ৩ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০৮:৫১ পিএম, ৩ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার

এ্যাপোলো হাসপাতালে অসহায় এক মা বিল পরিশোধ করতে না পারায় সন্তানকে ছাড়পত্র না দেয়ার সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পাঠকরা।

একুশে টেলিভিশন অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর সারাদেশে অসংখ্য পাঠককে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

হাসান আল মামুন নামে এ পাঠক লিখেন, এ‌তো টাকা হাসপাতা‌লে কি‌সে খরচ হয় তদন্ত প্র‌য়োজন, যে টাকা বিল হ‌য়ে‌ছে তা দি‌য়ে সিঙ্গাপুর থে‌কে চি‌কিৎসা নেওয়া যেত। 

শফিকুল জামাল চৌধুরী রিপন মন্তব্য করেন, এরা কি মানুষ না জানোয়ার। এসব হাসপাতালে কৃত্রিম সমস্যা করে টাকার অংক বাড়ায়ে সর্বস্বান্ত করার নজির অনেক আাছে। এদের কে শাস্তি দিবে?

হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসার নামে এই রমরমা বাণিজ্যের অবসান ঘটানোর দাবিও উঠেছে বিভিন্ন মহলে। তবে যাদের বিরুদ্ধে এত অভিযোগ সেই এ্যাপোলো হাসপাতাল তাদের সিদ্ধান্তে অনড়। হাসপাতালটি তাদের প্রাপ্য বিল থেকে সরে আসতে রাজী নয়। এমনকি কর্তৃপক্ষ ভুক্তভোগী সেই মায়ের সঙ্গে ক্ষুব্ধ আচরণ করেছেন বলে জানিয়েছে দিলু আক্তার।

এদিকে সাহায্যে আগ্রহীদের ০১৮২৫-৭০২৮১৫ মোবাইল নাম্বার যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন শিশুটির মা দিলা আক্তার।

প্রসঙ্গত, গত আট সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের রাঙ্গুনীয়া থেকে দিলু আক্তার নামে এক মা তার এগারো মাস বয়সী শিশু সন্তানকে মস্তিষ্কের জটিল রোগের চিকিৎসার জন্য এ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করান। খুব অল্প সময়ের ব্যবধানে চিকিৎসা ও হাসপাতালের খরচ বাবদ তিনি হাসপাতালকে ৩ লাখ ২১ হাজার টাকা খরচ করেন। কিন্তু এরপর তার হাত খালি হয়ে যায়। এর মধ্যে প্রতিদিন বিল বাড়তে থাকে। একপর্যায়ে এই মা তার শিশুকে নিয়ে গ্রামে ফিরে যেতে চাইলে বাধ সাধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কড়ায় গন্ডায় টাকা পরিশোধ না করলে তার শিশুকে ফেরত দেওয়া হবেনা বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালে বিনা চিকিৎসায় আটক আছে।

এবিষয় নিয়ে গত ১ অক্টোবর একুশে টেলিভিশন অনলাইনে "টাকা শোধ করতে না পারায় সন্তান আটকে রেখেছে হাসপাতাল" শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এরপরেই আলোচনায় আসে এ্যাপোলোর একর্মকাণ্ড। 

এ সংক্রান্ত আরও খবর:

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি