ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০:৪৫:৪৩

Ekushey Television Ltd.

শ্বাসরোধেই হত্যা করা হয়েছে ইডেনের সাবেক অধ্যক্ষকে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:০১ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সোমবার | আপডেট: ০৩:৩২ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সোমবার

ইডেন কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ মাহফুজা চৌধুরী পারভীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে মাহফুজা চৌধুরীর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়। এসময়  তিনি বলেন, এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে একাধিক ব্যক্তি জড়িত রয়েছে।

এদিকে আজ সকালে মাহফুজা চৌধুরীর স্বামী ইসমত কাদের চৌধুরী এ মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হল-রূপা ওরফে রেশমা ও স্বপ্না। অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকেও মামলায় আসামি করা হয়েছে। হত্যার ঘটনায় রাজধানীর নিউমার্কেট থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় বাসার দুই গৃহকর্মীসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

সোমবার সকালে মাহফুজা চৌধুরীর স্বামী ইসমত কাদের চৌধুরী এ মামলা করেন। মামলার আসামিরা হল-রূপা ওরফে রেশমা ও স্বপ্না। অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকেও মামলায় আসামি করা হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নিউমার্কেট থানার উপপরিদর্শক আতিকুর রহমান। তিনি জানান, সকালে মাহফুজা চৌধুরীর স্বামী মামলাটি করেন। মামলার দুই আসামি গা ঢাকা দিয়েছে। তাদের খুঁজছে পুলিশ। এসআই আতিকুর রহমান আরও জানান, লাশের পোস্টমর্টেমের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত রোববার রাতে ঢাকা কলেজের সামনের বহুতল ভবন ‘সুকন্যা টাওয়ারে’থেকে মাহফুজা চৌধুরী পারভীনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর তার বাসার দুই গৃহকর্মী পালিয়ে যায়।

তাদের আটকের জন্য বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপির) রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদার। সোমবার সকালে তিনি গণমাধ্যমকে জানান, খুনের ঘটনায় আমরা নিহতের দুই গৃহকর্মীকে সন্দেহ করছি। ওই ঘটনার পর বিকাল ৫টার দিকে তারা পালিয়ে যায়।

পলাতক দুই গৃহকর্মীর মধ্যে স্বপ্নার বয়স আনুমানিক ৩৬, রেশমার আনুমানিক ৩০ বছর। স্বপ্নার বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারী ও রেশমার কিশোরগঞ্জে। মারুফ হোসেন সরদার বলেন, তাদের ধরার জন্য বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়েছি। গতকাল সারারাতই অভিযান চলে। আশা করছি, দ্রুত তাদের আটক করা সম্ভব হবে।

টিআর/



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি