ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

সিদ্দিক বললেন ডিভোর্স লেটার পাইনি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৪৬ ২৩ অক্টোবর ২০১৯

নানা মত ও দ্বিমতের কারণে শেষ পর্যন্ত বিবাহ বিচ্ছেদ হয় অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান ও অভিনেত্রী মারিয়া মিমের। তাদের সাত বছরের সংসারে সুরের ছন্দ পতন হয়। স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ ও পরকীয়ায় আসক্তির অভিযোগে স্বামী অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানকে ডিভোর্স দেন স্ত্রী মিম।

আজ বুধবার এ ডিভোর্স লেটার সিদ্দিকের হাতে আসার কথা থাকলেও তিনি এ লেটার এখনও পাননি বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন সিদ্দিক। গত শনিবার ডিভোর্স পেপারে স্বাক্ষর করেন মিম। 

ডিভোর্স লেটার না পাওয়ার কথা জানিয়ে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘আমি গণমাধ্যমের খবর পড়ে জেনেছি আমার কাছে ডিভোর্স লেটার পাঠানো হয়েছে। সে আমার নামে অনেক অভিযোগ দিয়েছে। ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছে। তবে এখনো আমার হাতে এমন কোনো কাগজ এসে পৌঁছায়নি।’

সিদ্দিক আরও বলেন, ‘মারিয়া মিম যেহেতু আমার সন্তানের মা। তার বিরুদ্ধে আমি কিছু বলবো না। তার ডিভোর্স দেওয়ার রাইট আছে। আমাদের দেশে কোনো নারী তার স্বামীকে ডিভোর্স দিলে সেটা ফিরিয়ে দেওয়াও কোনো উপায় নেই। আমার কাছে এটা পৌঁছালে আমি জানাবো। বাংলাদেশে অনেক বড় বড় তারকাদেরও ডিভোর্স হয়েছে। আমি সব সময় চেয়েছি এটা যেন নোংরাভাবে না হয়। আমাকে ডিভোর্স দিয়ে মিমি মিডিয়াতে কাজ করে যদি ভালো থাকে, ভালো থাকুক।’

তবে স্ত্রী মিমের অভিযোগ, সিদ্দিক তার পেশাগত কাজে বিভিন্নভাবে বাঁধা দিয়ে আসছেন। স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করছেন এবং সিদ্দিক পরোকীয়ায় আসক্ত। সিদ্দিক বিভিন্ন সময় তার উপর নির্যাতন করেন বলেও জানান মীম। 

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ২৪ মে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মিমকে বিয়ে করেন সিদ্দিক। ২০১৩ সালের ২৫ জুন তারা পুত্র সন্তানের বাবা-মা হন।

এমএস/এসি

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি