ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৩:০৯:১৮

Ekushey Television Ltd.

স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাবে যে খাবার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৪:০৬ পিএম, ১২ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার

স্তন ক্যান্সর বর্তমানে মহামারি আকার ধারণ করেছে। এই রোগ দেখা দিচ্ছে অপেক্ষাকৃত অল্পবয়সীদের মধ্যে, যাঁদের বয়স ২৫-৫০। ইদানীং ক্যানসারের প্রচলিত ওষুধে কাজ হচ্ছে না। প্রথম অবস্থায় ধরা পড়লেও কয়েক মাসের মধ্যে রোগ হুড়হুড় করে বেড়ে স্টেজ-ফোর এ পৌঁছে যাচ্ছে। প্রচলিত বেশির ভাগ কেমোথেরাপিও এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। সবচেয়ে বড় ভয়ের কারণ হল, এক বার রোগ সেরে যাওয়ার এক থেকে দু’ বছরের মধ্যে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই রোগ আবার ফিরে আসছে রোগীর দেহে!

এমন কিছু খাবার যা খুব বেশি দামি নয় আর পাওয়াও যায় হাতের কাছেই এবং যা রুখে দিতে পারে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি। বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা প্রতিরোধে সুষম ও পুষ্টিকর খাবার আপনাকে প্রতিনিয়ত সাহায্য করে। আসুন জেনে নেওয়া যাক এমন ৭টি খাবার সম্পর্কে, যা স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারে।

বাঁধাকপি: বাঁধাকপিতে থাকে প্ল্যান্ট কম্পাউন্ড যা স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। কাঁচা খেতে ভালো না লাগলে হালকা ভাপিয়ে নিতে পারেন সামান্য লবন দিয়ে। বাঁধাকপি কখনোই বেশি সময় ধরে রান্না করবেন না। এতে এর পুষ্টিগুণ অনেকটাই নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

উজ্জ্বল রঙের ফল ও সব্জি: উজ্জ্বল রঙের বিশেষত লাল, হলুদ ও কমলা রঙের সবজি ও ফলে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ছাড়াও থাকে ক্যারোটিনয়েড নামক পদার্থ। যা স্তন ক্যান্সার প্রতিহত করতে সহায়ক। তরমুজ, কমলা লেবু, লাল লঙ্কা, মিষ্টি আলু, টমেটো, গাজর ইত্যাদি বেশি করে খাদ্য তালিকায় রাখুন।

আখরোট: আখরোটে যদিও প্রচুর ক্যালোরি থাকে তবু বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে এটি স্তনের টিউমারের বৃদ্ধির গতি কমিয়ে আনে। কম করে হলেও আখরোট খান যা স্তনকে রাখবে ক্যান্সার থেকে সুরক্ষিত।

অলিভ অয়েল: অলিভ অয়েলে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। এটি স্তনে টিউমারের বৃদ্ধি রোধ করে ও স্তন ক্যান্সার ঠেকাতে সাহায্য করে। মাংস ম্যারিনেট করে রাখার সময় আপনি সহজেই ব্যবহার করতে পারেন খানিকটা অলিভ অয়েল আর সেই সঙ্গে সবজি রান্নার ক্ষেত্রেও খানিকটা অলিভ অয়েল দিতে পারেন। সবচেয়ে ভাল হয় যদি সালাদের সঙ্গে ব্যবহার করতে পারেন।

কম ফ্যাটযুক্ত দুগ্ধজাত খাবার: কম ফ্যাটযুক্ত দুগ্ধজাত খাবারে থাকে ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ডি যা স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। টকদই ও পনির খেতে পারেন।

সামুদ্রিক মাছ: সামুদ্রিক মাছে আছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড যা প্রদাহ প্রতিরোধ করে একে ক্যান্সারে রূপ নিতে বাধা দেয়। সপ্তাহে অন্তত ২ দিন সামুদ্রিক মাছ খেতে পারলে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারে।

বর্তমানে ডাক্তাররা পুষ্টিকর খাদ্যের মাধ্যমেই বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের কথা বলছেন। এগুলির মধ্যে স্তন ক্যান্সার অন্যতম। পুষ্টিকর খাবার খান আর প্রতিরোধ করুন স্তন ক্যান্সার।

এমজে/



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি