Ekushey Television Ltd.

হাত হারানো রাজীবের মামলার প্রতিবেদন ২২ মে

প্রকাশিত : ১৬:৫৩ ১৮ এপ্রিল ২০১৯

দুই বাসের চাপায় সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের শিক্ষার্থী রাজীব হোসেনের হাত হারানোর পর মৃত্যুর মামলার প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়ে আগামী ২২ মে দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) মামলার প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন শাহবাগ থানা পুলিশ তা দাখিল করেনি। এ জন্য ঢাকা মহানগর হাকিম মো. সারাফুজ্জামান আনছারী প্রতিবেদন দাখিলে পরবর্তী ওই দিন ধার্য করেন।

২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল বিআরটিসির একটি দোতলা বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের (বাণিজ্য) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন (২১)। হাতটি বেরিয়েছিল সামান্য বাইরে। হঠাৎই পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসির বাসটিকে গা ঘেঁষে ওভারটেক করার সময় রাজীবের ডান হাত শরী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

দু-তিনজন পথচারী দ্রুত তাকে পান্থপথের শমরিতা হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু চিকিৎসকেরা চেষ্টা করেও বিচ্ছিন্ন হাতটি রাজীবের শরীরে আর জুড়ে দিতে পারেননি।

পরে ওই বছরের ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব। মামলাটি প্রথম দণ্ডবিধির ২৭৯ ও ৩৩৮(ক) ধারায় দায়ের করা হয়। পরে রাজিব মারা যাওয়ায় ধারা পরিবর্তন করে দণ্ডবিধির ৩০৪(ক) অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

মামলার আসামি বিআরটিসি বাসের চালক মো. ওয়াহিদ ও স্বজন পরিবহনের বাসের চালক মো. খোরশেদ বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

আসামিদের গত বছরের ৫ এপ্রিল ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এরপর একই বছরের ৮ এপ্রিল আসামিদের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়।

আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি