ঢাকা, রবিবার   ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || ভাদ্র ৩১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

১০ এজেন্সির অনিয়ম তদন্তে ৩ মাস সময় দিলেন হাইকোর্ট

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:০৩ ২১ আগস্ট ২০১৯

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো ও নিয়ন্ত্রণকারী ১০ রিক্রুটিং এজেন্সি সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে গঠিত কমিটির কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। এ কমিটিকে তদন্ত শেষ করতে তিন মাসের সময় বেধেঁ দিয়েছেন আদালত। আগামী ১৪ নভেম্বরের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করে প্রতিবেদন দাখিল না করলে কমিটির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হাইকোর্ট জানায়।

বুধবার (২১ আগস্ট) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষে ছিলেন শেখ জালাল উদ্দিন।

পরে ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম বলেন, ছয়মাসের মধ্যে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দেওয়ার কথা ছিল। ছয়মাস পার হয়ে এখন প্রায় ১০ মাস শেষ হতে চলেছে। এতদিনেও প্রতিবেদন না দেওয়ায় আদালত অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

আদালত বলেছেন, ছয় মাসের মধ্যে দেওয়ার কথা এখন ১০ মাস পার হয়ে যাচ্ছে। তারপরও বার বার এসে সময় চাচ্ছেন।

আইনজীবী রাশনা ইমাম জানান, এ অবস্থায় আমরা কমিটিকে কার্যপরিধি ঠিক করে দিতে আদালতে আবেদন করি। আদালত আমাদের আবেদন মঞ্জুর করে পাঁচটি কার্যপরিধি নির্ধারণ করে দিয়েছেন।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশে কমিটি গঠন করেছন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। কমিটিতে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবকে আহ্বায়ক করা হয়।

গত বছরের ২৯ অক্টোবর মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো নিয়ন্ত্রণকারী ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন আদালত। মালেশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি উপেক্ষা করে ১০ এজেন্সির মাধ্যমে লোক নেওয়ার ঘটনার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বঞ্চিত অপর ১০টি এজেন্সি হাইকোর্টে রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।

আরকে/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি