ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ৯ ১৪২৮

৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রার দিন বাড়ছেই

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:৪৯, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিশ্বে উষ্ণ দিনের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত শতকের আশির দশকে বছরে যে কয়দিন ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকত, চল্লিশ বছরের ব্যবধানে এমন দিনের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে।   

শুধু তাই নয়, আগে বিশ্বের যতটুকু অঞ্চলে তাপমাত্রা তীব্র হত, এখন তার চেয়ে বেশি অঞ্চলজুড়ে এমনটা হচ্ছে।  যা আমাদের দৈনন্দিন জীবন এবং স্বাস্থ্যের জন্য এক রকম চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। বিবিসির একটি বিশ্লেষণে এমনটাই দেখা গেছে। 

১৯৮০ সাল থেকে বাড়ছে তীব্র তাপমাত্রার দিন। ১৯৮০ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত প্রতিবছর গড়ে অন্তত ১৪ দিন ছিল ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার। তবে তার পরের দশ বছরে এমন দিনের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে ২৬ হয়েছে। 

জীবাশ্ম জ্বালানি পোড়ানোর জন্য তাপমাত্রা বৃদ্ধির এই হার শতভাগে চলে যেতে পারে বলেও জানান, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ পরিবর্তন ইন্সটিটিউটের সহযোগী পরিচালক ফ্রেড্রিক অটো।
 
সাধারণত মধ্যপ্রাচ্য এবং উপসাগরীয় এলাকায় ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর তাপমাত্রার সৃষ্টি হয়। তবে সম্প্রতি ইতালিতে ৪৮ দশমিক আট এবং কানাডায় ৪৯ দশমিক ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে উদ্বেগজনক বলছেন পরিবেশ বিজ্ঞানীরা।  

তারা ভাষ্যে, জীবাশ্ম জ্বালানি পোড়ানো না কমালে আরও অনেক জায়গায় ঘন ঘন এমন তীব্র তাপমাত্রার সৃষ্টি হবে। তাই দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে। 

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টের জলবায়ু গবেষক ড. সিহান লি বলেন, ‘যত দ্রুত জ্বালানি পোড়ানো ধোঁয়া নির্গমণ কমানো যাবে ততই আমাদের মঙ্গল।’
  
ক্রমাগত পরিবেশ দূষণ চলতে থাকলে এবং এর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেয়া হলে, শুধুমাত্র তাপমাত্রা বাড়তে থাকবে বিষয়টা এমন নয় বরং এই পরিস্থিতি থেকে বের হয়ে আসা দিন দিন আরও কঠিন হয়ে পড়বে বলেও জানান তিনি।   

আসছে নভেম্বরে গ্লাসগোতে অনুষ্ঠেয় জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সম্মেলনে বিশ্ব নেতাদের এ বিষয়ে জরুরি পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন পরিবেশ বিজ্ঞানীরা। 

তারা বলছেন, পরিবেশ দূষণের শীর্ষে থাকা দেশগুলোর পক্ষ থেকে দূষণ হ্রাসের প্রতিশ্রুতি আসতে হবে।  
সূত্র : বিবিসি
এসবি/এএইচএস


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি