ঢাকা, শুক্রবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২২

৬ গুণীজন পেলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সংবর্ধনা 

রাজশাহী প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ১৮:০৭, ২৫ নভেম্বর ২০২২

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের আয়োজনে দেশবরেণ্য ছয় গুণীজনকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগর ভবনে গ্রিন প্লাজায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত গুণীজনদের ক্রেস্ট ও সংবর্ধনা স্মারক তুলে দেন সিটি মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে সংবর্ধনা স্মারকপত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।

সংবর্ধিত গুণীজনেরা হলেন, আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক, আইন কমিশনের সদস্য বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীর, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, লেখক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান, প্রখ্যাত সাংবাদিক, কলামিস্ট ও লেখক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবেদ খান এবং শিক্ষাবিদ, নাট্যকার ও লেখক অধ্যাপক রতন সিদ্দিকী। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিত্রশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ অনুপস্থিত থাকায় তাঁর নিকট প্রেরণের জন্য তাঁর প্রতিনিধিকে উত্তরীয়, ক্রেস্ট ও সংবর্ধনা স্মারক প্রদান করা হয়।

স্বাগত বক্তেব্য বাংলাদেশে আর কোনোদিন দুর্ভিক্ষ আসবে না বলে মন্তব্য করে অর্থনীতিবিদ ড. আতিউর রহমান বলেছেন, দুর্ভিক্ষ শুধুমাত্র উৎপাদনের জন্য হয় না, উৎপাদনহীনতার জন্যও হয় না। মানুষের যখন আয় রোজগার থাকে না, কোনো কিছু কেনার সক্ষমতা থাকে না তখনই দুর্ভিক্ষ হয়। 

তিনি আরও বলেন, দেশে বিপুল পরিমাণ ধান-গম উৎপাদন হচ্ছে, সবজি হচ্ছে, আলু হচ্ছে, নার্সারি হচ্ছে, ফুলের গাছ হচ্ছে, গবাদিপশু পালন হচ্ছে। সুতরাং বহুমাত্রিক এদেশে মানুষের আয় রোজগার বেড়েছে। এখন একজন দিনমজুর ৫০০-৬০০ টাকা পায়। এতে বোঝা যায় অর্থনীতিতে বাংলাদেশের একটা ভরসাস্থল আছে।

অনুষ্ঠানে সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক বলেন, ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের আখরে লেখা আমাদের সংবিধান। সংবিধান নিয়ে যেভাবে কাটাছেড়া করা হয়েছে, তা কষ্টের। আপনারা খেয়াল রাখবেন, এই সংবিধানটা যেন আমরা আমাদের বক্ষে ধারণ করি, এটাকে প্রটেক্ট করি।

তিনি আরও বলেন, রাজশাহীতে ২০১৫ সালে এক বার এসেছিলাম। এবার এসে দেখছি আমূল পরিবর্তন। রাজশাহীর দৃশ্যমান এই উন্নয়ন প্রমাণ করে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

স্বাগত বক্তব্যে রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহী কৃষি প্রধান অঞ্চল। এখানে কৃষিপণ্য নির্ভর শিল্প-কারখানা প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। এখানে একটি পুর্নাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হওয়া খুবই দরকার। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হলে কৃষি নির্ভর রজশাহীতে এ বিষয়ে রিসার্চ হবে। যা কৃষিতে উচ্চ ফলনশীল জাতের বীজ উদ্ভাবনে ভূমিকা রাখবে। কৃষির মাধ্যমে এই অঞ্চলের অর্থনীতিকে বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে। 

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক, বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক আনজীর লিটন, সাংবাদিক রাশেদ চৌধুরী, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল প্রমুখ। 
কেআই//
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি