ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ৩০ ১৪২৭

সৌদি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি বৃদ্ধির আশ্বাস

সৌদি আরব প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:২৯, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | আপডেট: ১৯:৪৮, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য সৌদি আরবের কিং খালিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের বৃত্তিসংখ্যা বৃদ্ধি করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টির রেক্টরকে অনুরোধ জানান দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম। এছাড়া রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সৌদির এই বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথভাবে গবেষণা সম্পাদন, শিক্ষার্থী বিনিময় কার্যক্রম ও বাংলাদেশি শিক্ষক নিয়োগেরও আহ্বান জানান।

আজ ২৫ ফেব্রুয়ারি সকালে সৌদি আরবের আসির প্রদেশের আভা শহরে অবস্থিত কিং খালিদ আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের রেক্টর ফালেহ আর আল-সেলামির সাথে এক বৈঠকে এ আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)। 

রাষ্ট্রদূতের প্রস্তাবে স্বাগত জানিয়ে রেক্টর ফালেহ আর আল-সেলামি বলেন, তাঁর বিশ্ববিদ্যালয় এ সকল বিষয়ে আগ্রহী এবং এ বিষয়ে অর্থায়নসহ সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হবে। রেক্টর আরও জানান, এ বিশ্ববিদ্যালয় দেশি-বিদেশি সকলের জন্য উন্মুক্ত বিধায় মেধাবী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা সহজেই উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাবে। কিং খালিদ বিশ্ববিদ্যালয়ে খণ্ডকালীন ও ডিপ্লোমা কোর্সেও বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য পড়াশোনা করার সুযোগ রয়েছে বলে তিনি জানান।

রেক্টর আরও বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৭ (সাত) জন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যায়ন করছে, এছাড়া কয়েকজন বাংলাদেশি শিক্ষকও এখানে অধ্যাপনা করছেন। কিং খালিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯টি অনুষদে প্রায় ৬০ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে, যার মধ্যে ৬০ শতাংশ নারী শিক্ষার্থী। 

এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী আভা চেম্বার অব কমার্সের মহাসচিব ড. রিয়াদ এ আল-ওগরান এর সাথে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় রাষ্ট্রদূত দু'দেশের ব্যবসা বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও আমদানি রপ্তানি বৃদ্ধির বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন।

রাষ্ট্রদূত কোভিড মহামারীর সময়ে ও বাংলাদেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি শতকরা ৫ ভাগের অধিক উল্লেখ করে বাংলাদেশকে বিনিয়োগের জন্য অপার সম্ভাবনার দেশ হিসেবে উল্লেখ করেন। রাষ্ট্রদূত জাবেদ পাটোয়ারী দুদেশের ব্যাবসায়িক প্রতিনিধির পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল প্রেরণ এবং দুদেশের বিনিয়োগ ও বাণিজ্য মেলায় অংশগ্রহণের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। 

রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, মৎস্য, কৃষি পণ্য, সিরামিক, ঔষধ, চামড়াজাত পণ্য ও পর্যটন খাতকে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় হিসেবে উল্লেখ করেন। 

আভা চেম্বারের মহাসচিব পর্যটন, শিল্প পার্ক, ম্যানুফ্যাকচারিং, সিরামিক ইত্যাদি সম্ভাবনাময় খাতে বাংলাদেশের একক ও যৌথ বিনিয়োগকে স্বাগত জানান। মহাসচিব বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের সৌদি আরবে সরাসরি বিনিয়োগ অথবা জেনারেল সেলস এজেন্ট নিয়োগের মাধ্যমে আমদানি রপ্তানি বৃদ্ধির পরামর্শ প্রদান করেন। মহাসচিব আভা চেম্বারের সহায়তায় বাংলাদেশি পণ্যের মেলা আয়োজনের অনুরোধ জানান। 

এছাড়া রাষ্ট্রদূত নিকটবর্তী সুবিধাজনক সময়ে সৌদি আরবে বিনিয়োগ মেলা, রোড-শো, বাংলাদেশ এক্সপো আয়োজনের বিষয়ে সহযোগিতা চাইলে মহাসচিব এ বিষয়ে সকল সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। 

এছাড়া রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী গতকাল আসির প্রদেশের পুলিশ প্রধান মেজর জেনারেল আব্দুল আজিজ আল-মগলুদ এর সাথেও সাক্ষাৎ করেন। রাষ্ট্রদূত এ সময় এ অঞ্চলে বসবাসরত প্রায় ৩ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য পুলিশ প্রধানকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। 

পুলিশ প্রধান এসময় আসির প্রদেশে বসবাসরত বাংলাদেশীরা সৌদি আরবের আইন কানুন মেনে চলার জন্য ও অপরাধমূলক কর্মকান্ডে খুবই কম জড়িত হওয়ার জন্য তাঁদের প্রশংসা করেন।

পুলিশ প্রধান এ অঞ্চলে কর্মরত বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের বিষয়ে উল্লেখ করে তাঁদের সৌদি আরবে আগমণের পূর্বে ভালোভাবে প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্ত্বারোপ করেন। রাষ্ট্রদূত এ সময় প্রশিক্ষণের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিবেশে কাজ করতে আসা গৃহকর্মীদের প্রতি বিশেষ নজর দেয়ারও অনুরোধ জানান। 

পুলিশ প্রধান জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট হতে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও অপরাধ বিষয়ে যোগাযোগের জন্য একজন ফোকাল পয়েন্ট নির্ধারণের অনুরোধ জানান। একইসাথে তাঁর কার্যালয়েও এরকম একজন ফোকাল পয়েন্ট নির্ধারণ করবেন বলে জানান। 

এ সকল বৈঠকে জেদ্দার দায়িত্ব প্রাপ্ত কনসাল জেনারেল এস এম আনিসুল হক ও রিয়াদ দূতাবাসের ইকনমিক কাউন্সেলর মুর্তুজা জুলকার নাঈন নোমান উপস্থিত ছিলেন।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি