ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ৩ ১৪২৮

হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের ওষুধে মাত্র ৫ দিনে করোনা প্রতিহত!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:০৫, ১৭ জুলাই ২০২০

বৈশ্বিক করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী চলছে নানা গবেষণা। এরই মধ্যে সামনে এসেছে যে, করোনার মারাত্মক প্রভাব কমে হয়ে যাবে সাধারণ সর্দি-কাশি। এমনই ওষুধের খোঁজ পেয়েছেন হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

প্রফেসর ইয়াকুব নাহমিয়াসের নেতৃত্বে হিব্রু বিশ্ববিদ্যায় ও বেঞ্জামিন তেনেভারের নেতৃত্বে নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই মেডিক্যাল সেন্টারের যৌথ উদ্যাগে এই গবেষণা হয়েছিল। সেখানেই উঠে এসেছে এন্টি কোলেস্টেরল ড্রাগ ‘ফেনোফাইব্রেট’।

প্রফেসর নাহমিয়াস জানিয়েছেন, ক্লিনিক্যাল গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে এই পদ্ধতির প্রয়োগে করোনার ক্ষতিকর দিক কমিয়ে সাধারণ সর্দি-কাশিতে পরিণত করা সম্ভব। তারা এও জানিয়েছেন, এখান থেকেই ধারণা মেলে কেন উচ্চ রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল থাকা ব্যক্তিদের কোভিডের মারাত্মক প্রভাব পড়ে।

দুই গবেষকের তথ্য বলছে, এই কোলেস্টেরল ড্রাগ ফুসফুসের কোষে ফ্যাটকে পুড়িয়ে ফেলে। যার ফলে ওই অংশগুলোর সঙ্গে ভাইরাসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। তার দরুন ভাইরাস নিজের প্রতিলিপি করতে পারে না। 

এই গবেষকরা আরও বলেছেন, মাত্র ৫ দিনে এই চিকিৎসায় ভাইরাসকে শেষ করা সম্ভব। প্রফেসর নাহমিয়াস জানান, “আমাদের শ্বাসযন্ত্রের ব্যর্থতায় না গিয়ে ভাইরাস পরিষ্কার করার জন্য শরীরকে সময় দেওয়া দরকার। এটি করার মাধ্যমেই আমি মনে করি, একে আরও কম মারাত্মক কিছুতে অর্থাৎ সাধারণ সর্দির মতো কিছুতে রূপান্তর করতে পারি।”

রেমডেসিভারের বিপরীতে এই ওষুধ ব্যবহারে করোনাভাইরাস রোগীদের উপর ব্যাপক প্রভাবের জন্য প্রশংসিত হচ্ছে আমেরিকায়। ফেনোফাইব্রেট ওষুধ কখনও কখনও ট্রাইকার ব্র্যান্ড নামে বিক্রি হয় ওই দেশটিতে। আমেরিকার খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন দ্বারা ইতিমধ্যে অনুমোদিত এবং প্রচুর সরবরাহে রয়েছে ওষুধটি।

এই মুহূর্তে বিশ্বে প্রায় সব জায়গায় করোনার প্রতিষেধক তৈরির কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। হন্যে হয়ে গবেষণা চালাচ্ছেন বিজ্ঞানিরা। সেখানে এই গবেষণা কতটা ফলপ্রসু হয়, সেটাই দেখার বিষয়। 

এএইচ/এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি