ঢাকা, বুধবার   ২১ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৮ ১৪২৮

রাজশাহী নগর কমিটিতে পদ পেতে দৌড়ঝাঁপ 

রাজশাহী প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ২০:৩৭, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

দলের হাইকমান্ড থেকে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রে জমা দিতে বলা হয়েছে। হাইকমান্ডের এই নির্দেশনা পেয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের আগেই সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক চূড়ান্ত কমিটি প্রস্তুত করে কেন্দ্রে পাঠাবেন অনুমোদনের জন্য। 

মহানগরের নতুন কমিটিতে পদ পেতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন অনেক নেতাই। পাশাপাশি সক্রিয় হয়ে উঠেছে দলের ভিতরে ও বাইরে থাকা আওয়ামী লীগ বিরোধী শক্তি। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে হাইব্রিড ও অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা করে দিতে তৎপর ওই অপশক্তি। তারা দলের ত্যাগী নেতাদের বিরুদ্ধেও বিভিন্নভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে পরিচিত আজিজুল আলম বেন্টু। পারিবারিক ঐতিহ্য ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সুবাদে মহানগর আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে তার প্রতি সমর্থন রয়েছে। এবারো মহানগরের নতুন কমিটির একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ তিনি পাবেন। কিন্তু তাকে নতুন কমিটি থেকে বাদ দিতে অপপ্রচারে নেমেছেন আওয়ামী লীগ বিরোধী সেই অপশক্তি। তার বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

রাজশাহী মহানগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার হড়গ্রাম এলাকার একটি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান আজিজুল আলম বেন্টু ১৯৯২ সালে যুবলীগের সদস্য হয়ে রাজনীতিতে সক্রিয় হন। রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন তিনি। এর আগে তিনি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার নেতৃত্বে মহানগরীর পশ্চিমাঞ্চলে শক্তিশালী হয় আওয়ামী লীগের রাজনীতি। এক সময় ওই অঞ্চলে আওয়ামী লীগের পক্ষে কথা বলার নেতা ছিল না। ফলে রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার পর রাজনৈতিক মামলায় হয়রানি ও কারা নির্যাতিত হয়েছেন বেন্টু।

শহীদ পরিবারে সন্তান আজিজুল আলম বেন্টুর বড় ভাই রবিউল আলম বাবু আশির দশকে রাজশাহীর তুখোড় ছাত্রনেতা হিসেবে পরিচিত পান। 

বর্তমানে তিনি রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের সভাপতি। আজিজুল আলম বেন্টুর বাবা রহুল আমিন সরকার জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের রাজনৈতিক সহকর্মী ছিলেন। তৎকালীন পবা থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতিসহ বিভিন্ন পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের রাজনীতি প্রতিষ্ঠায় জনবল ও আর্থিক সহযোগিতা দেয়াসহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বেন্টুর বাবা রুহুল আমিন সরকার।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টু বলেন, ‘সকল কমিটি গঠনের আগে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার করে থাকে দলের ভিতরে ও বাইরে থাকা আওয়ামী লীগ বিরোধী শক্তি। ওয়ার্ড থেকে শুরু করে মহানগর কমিটি গঠনের আগে তারা সক্রিয় হয়ে উঠে যাতে আমি যেন কোন পদ না পাই। কারণ তারা জানে আমি পদ পেলে দল আরও সংগঠিত ও শক্তিশালী হয়।’

বেন্টু আরও বলেন, ‘গত ১ মার্চ মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আগে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালানো হয়েছে যাতে আমি সাধারণ সম্পাদক হতে না পরি। এখন মহানগরের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সাথে সাথে আমি যেন কোন পদ না পাই এ জন্য আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারও শুরু করেছে সেই অপশক্তি।’

এআই//আরকে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি