ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৯

রংপুরে করোনা টেস্টে ভোগান্তিতে রোগীরা (ভিডিও)

রংপুর বিভাগীয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:২৫, ৪ অক্টোবর ২০২০ | আপডেট: ১২:২৯, ৪ অক্টোবর ২০২০

রংপুর সিটি করপোরেশনসহ পুরো জেলায় করোনার পরীক্ষা করাতে নানা ভোগান্তি পোহাচ্ছেন রোগীরা। পিসিআর ল্যাবের সক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি রোগী হওয়ায় পরীক্ষার ফল পেতেও সময় লাগছে দশ-বারো দিন।

রংপুর মেডিকেল কলেজে স্থাপিত পিসিআর ল্যাবে প্রতিদিন ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষার সক্ষমতা রয়েছে। শুধু সিটি করপোরেশন এলাকাতে ১৫ লাখ মানুষের বাস। অথচ রংপুর জেলা ছাড়াও কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা ও লালমনিরহাটের রোগীদের একমাত্র ভরসা এই পিসিআর ল্যাব।

নির্ধারিত বুথ অথবা বাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার কথা বলা হলেও দিনের পর দিন ঘুরেও নমুনা দিতে পারছেন না রোগীরা। ৫/৭ দিনের চেষ্টায় নমুনা দিলেও রেজাল্ট পেতে সময় লাগে আরও ৮/১০ দিন। এতে সংক্রমণের ঝুঁকি যেমন বাড়ছে, তেমনি চিকিৎসা নিতে বিলম্ব হওয়ায় রোগীরা পড়ছেন বিপাকে।

ভুক্তভোগী মানুষরা জানান, সিটি কর্পোরেশনে গিয়েছিলাম এবং মেডিকেলেও গিয়েছিলাম কিন্তু কোথাও টেস্টের স্থান পাইনি। তাহলে টেস্ট করাতে দেব কোথায়? অন্য আরেকজন জানান, টেস্ট করাতে দেরি হচ্ছে যার কারণে অনেক সমস্যা হচ্ছে। ৭ দিন পার হয়ে যাচ্ছে কিন্তু মানুষটি করোনা পজিটিভ না নেগেটিভ এটা আমরা বুঝতে পারছি না।

ল্যাবের সংখ্যা না বাড়ানো পর্যন্ত সমস্যার সমাধান দেখছেন না নগরীর প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কামরুজ্জামান তাজ বলেন, নমুনার সবগুলো টেস্ট প্রতিদিন করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে জমতে জমতে ব্যাকলো্ড হয়ে যাচ্ছে। এই কারণেই রেজাল্ড আসতে ৫ থেকে ৭ দিন সময় লাগছে। নমুনা সংগ্রহ বেশি হওয়ার কারণে এখানে মেশিন সংখ্যা বাড়াতে হবে অথবা যদি অন্যত্র টেস্টের ব্যবস্থা করা যায় তাহলে টেস্টের সমস্যার সমাধান হতে পারে।

দ্রুত কার্যকর উদ্যোগ দেখতে চান ভুক্তভোগীরা।
এএইচ/এসএ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি