ঢাকা, সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ৪ ১৪২৮

ঝালকাঠিতে বাস ধর্মঘট অব্যাহত

ঝালকাঠি প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ১৬:১৪, ২৪ মার্চ ২০২১

ঝালকাঠির ১০টি রুটে দ্বিতীয় দিনের মতো বাস ধর্মঘট অব্যাহত রয়েছে। তবে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে শ্রমিকদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পেলে ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয় চিন্তা করা হবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

গত ২২ মার্চ সোমবার রাতে বরিশালের রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডের শ্রমিকদের হামলায় ঝালকাঠির বেশ কয়েকজন বাস শ্রমিক আহত হওয়ার ঘটনায় মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরু হওয়া বাস ধর্মঘট আজ ২৪ মার্চ বুধবার দ্বিতীয় দিনের ন্যায় অব্যহত রয়েছে। হঠাৎ করে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় এ রুটে নিয়মিত চলাচলকারী সাধারণ মানুষ ও বাসযাত্রীরা চরম দুর্ভোগের পড়েছেন।
  
ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির নেতা নাসির উদ্দিন আহম্মেদ জানান, আজ (বুধবার) দুপুরে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার অফিসের ঊর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক-শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের বৈঠক হবার কথা রয়েছে। যদি বৈঠকে বরিশালের প্রশাসন যদি তাদের শ্রমিকদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিতে পারে তাহলে তারা ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয় চিন্তা করবে। অন্যথায় তাদের অন্দোলন কর্মসূচী অব্যাহত রাখা ছাড়া কোন পথ খোলা থাকবে না।
  
এ বিষয়ে ঝালকাঠি জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বাহাদুর চৌধুরী বলনে, বরিশাল রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডের শ্রমিকদের হামলায় ঝালকাঠির কয়েকজন বাস শ্রমিক আহত হন। পরে হামলাকারীরা রাতের আধারে ঝালকাঠি মালিক সমিতির বেশ কয়েকটি গাড়ীর টায়ার কেটে ও পাম ছেড়ে দেয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচার দাবীতে ঝালকাঠি, পিরোজপুরে বাস ও মিনিবাসের শ্রমিকরা মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে একযোগে অনর্দিষ্টিকালের জন্য ধর্মঘট শুরু করে।

দু’দিন ধরে যাত্রীবাহী বাসের এই ধর্মঘটের কারণে বরিশাল, পিরোজপুর ও ঝালকাঠির রুটে চলাচলকারী অসংখ্য যাত্রী ভোগান্তিতে পড়েন। এমন কি যাত্রীদের মাহেন্দ্র, অটোরিক্সাসহ বিকল্প যানবাহনে চলাচলও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। 

এ অবস্থায় জরুরি প্রয়োজনে অসহায় মানুষ বাধ্য হয়ে বরিশাল থেকে ভোররাতে ঢাকাগামী লঞ্চে ঝালকাঠি আসে এবং ঝালকাঠি থেকে দিনভর অপেক্ষা করে সন্ধ্যায় ঢাকাগামী লঞ্চে বরিশাল ফিরছে।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি